মুসা বিন শমসেরের মুদ্রাপাচার মামলার প্রতিবেদন পেছালো

ঢাকা, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১২ ফাল্গুন ১৪২৬

মুসা বিন শমসেরের মুদ্রাপাচার মামলার প্রতিবেদন পেছালো

আদালত প্রতিবেদক ৩:১০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০২০

মুসা বিন শমসেরের মুদ্রাপাচার মামলার প্রতিবেদন পেছালো

মুদ্রা পাচারের অভিযোগে মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মামলার প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি নতুন দিন ধার্য করেছেন আদালত।

সোমবার এ মামলায় প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন নির্ধারিত ছিল। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা প্রতিবেদন না দেয়ায় ঢাকা মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারী নতুন করে এদিন ঠিক করেন।

গত বছরের ২১ মার্চ মুসার ছেলের শ্বশুরবাড়ি থেকে একটি গাড়ি উদ্ধার করেন শুল্ক গোয়েন্দারা। তারপর মুসাকে কাকরাইলে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কার্যালয়ে তলব করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ভোলা বিআরটিএ’র কয়েকজন কর্মকর্তার যোগসাজসে ভুয়া কাগজ দিয়ে ওই গাড়ি রেজিস্ট্রেশন এবং বেনামে অবৈধ আর্থিক লেনদেনের মাধ্যমে মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পায়।

মুসা বিন শমসের ১৭ লাখ টাকা শুল্ক পরিশোধ দেখিয়ে ভুয়া বিল অব এন্ট্রি প্রদর্শন করে গাড়িটি বেনামে রেজিস্ট্রেশন করেন।

শুল্ক গোয়েন্দার অনুসন্ধানে দেখা যায়, ওই গাড়িতে ২ কোটি ১৭ লাখ টাকার শুল্ক প্রযোজ্য।

শুল্ক গোয়েন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদে মুসা লিখিতভাবে জানান, সুইস ব্যাংকে তার ৯৬ হাজার কোটি টাকা গচ্ছিত আছে। তবে তিনি এই টাকার কোনো ব্যাংক হিসাব বা বৈধ উৎস দেখাতে পারেননি।

ওই ঘটনায় তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে মুসার বিরুদ্ধে মামলা করতে দুর্নীতি দমন কমিশনকে সুপারিশও করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। পাশাপাশি ফাঁকি দেয়া অর্থ পাচারের অভিযোগে মামলার অনুমতি চাওয়া হয় রাজস্ব বিভাগের কাছে। সেই অনুমতি পাওয়ার পর মুদ্রা পাচারের মামলাটি করা হয়।

এমআই/এইচআর

 
.


আলোচিত সংবাদ