চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতির মৃত্যু পুলিশ হেফাজতে
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০২০ | ২৬ চৈত্র ১৪২৬

চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতির মৃত্যু পুলিশ হেফাজতে

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ১:১৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৫, ২০২০

চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতির মৃত্যু পুলিশ হেফাজতে

চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি জাহিদ হাসান পুলিশ হেফাজতে মারা গেছেন। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় তাকে আটক করে জেলার দামুড়হুদা থানা পুলিশের একটি দল। এর কিছুক্ষণ পরেই তার মৃত্যু হয়।

জাহিদের পরিবারের অভিযোগ, আটকের পর পুলিশ সদস্যরা তাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে।

তবে পুলিশের দাবি, ফেনসিডিলসহ আটকের পর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে জাহিদ মারা যান।

নিহত জাহিদ হাসান দামুড়হুদা উপজেলার জয়রামপুর গ্রামের মৃত লাল মোহাম্মদের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি জাহিদ হাসানসহ তার বেশ কয়েকজন সহযোগী শনিবার সন্ধ্যায় জয়রামপুর রেল স্টেশনের কাছে বসেছিলেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে দামুড়হুদা থানা পুলিশের একটি দল সেখান থেকে জাহিদ হাসান ও তার সহযোগী হাবিবুরকে দুই বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করে। আটকের পর তাদেরকে টেনে হিঁচড়ে গাড়িতে তুলে নেওয়া হয়। এর ঘন্টাখানেক পর জাহিদের মৃত্যু হয়।

জাহিদ হাসানের চাচা পেয়ার আলীর অভিযোগ, আটকের পর প্রকাশ্যে তাদেরকে পেটাতে থাকে পুলিশ। এমনকি গাড়িতে তুলে নিয়েও পেটানো হয় জাহিদকে।

পুলিশের পিটুনীতেই জাহিদের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করেন পেয়ার আলী।

নিহতের স্ত্রী লিপি খাতুন খাতুনের অভিযোগ, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরাই পুলিশকে দিয়ে পরিকল্পিতভাবে তার স্বামীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের শাস্তিরও দাবি জানান তিনি। 

তবে দামুড়হুদা থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল খালেক নিহত জাহিদ হাসানের পরিবারের অভিযোগ অস্বীকার করেন।

তিনি বলেন, দুই বোতল ফেনসিডিলসহ জাহিদ ও তার সহযোগীকে আটক করা হয়। আটকের পর বুকে ব্যথা অনুভব করে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত নেওয়া হয় দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানে পরিস্থিতির অবনতি হলে তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পর জরুরী বিভাগের চিকিৎসক জাহিদকে মৃত ঘোষণা করেন।

চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু তারেকও নিহতের পরিবারের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন। তিনি বলেন, জাহিদ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে।

এদিকে, ছাত্রলীগ নেতা জাহিদ হাসানের মৃত্যুর খবরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ছুটে যান আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল কাদের ও বর্তমান সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

এআই/এএসটি

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও