সুলতান স্বর্ণপদক পেলেন চিত্রশিল্পী ফরিদা জামান

ঢাকা, রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১১ ফাল্গুন ১৪২৬

সুলতান স্বর্ণপদক পেলেন চিত্রশিল্পী ফরিদা জামান

নড়াইল প্রতিনিধি ৯:৪৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০২০

সুলতান স্বর্ণপদক পেলেন চিত্রশিল্পী ফরিদা জামান

শেষ হলো সুলতান মেলা, ভাঙলো মিলন মেলা। সুলতান স্বর্ণপদক প্রদানের মধ্যদিয়ে মেলার পর্দা নামলো। এবছর সুলতান স্বর্ণ পদক পেলেন খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. ফরিদা জামান।

মেলার সমাপনী দিন সোমবার সন্ধ্যায় নড়াইলের শিল্পী সুলতান মঞ্চে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্যাচার্য্য প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে দেশবরেণ্য এই চিত্রশিল্পীকে সুলতান পদক প্রদান করেন।

সমাপনী অনুষ্ঠানে নড়াইল জেলা প্রশাসক আনজুমান আরার সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন বিশেষ অতিথি পদকপ্রাপ্ত শিল্পী অধ্যাপক ড. ফরিদা জামান, নড়াইল জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, নড়াইল পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( ভারপ্রাপ্ত) কাজী মাহবুবুর রশীদ, সুলতান ফাউন্ডেশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. হাসানুজ্জামান, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর কর্মকর্তা সুজন মাহমুদ প্রমুখ।

বক্তব্যকালে প্রধান অতিথি স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্যাচার্য্য বলেন, ‘বিশ্ববরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের আঁকা ছবি দেখলেই বোঝা যায় তিনি এদেশের খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষের ছবি এঁকেছেন। তাঁর তুলির আচঁড়ে খেটে খাওয়া মানুষের পাশাপাশি এদেশের প্রকৃতি, মুক্তিযুদ্ধসহ বিভিন্ন দৃশ্য ফুটে উঠেছে। শিল্পীর এই চিত্রকর্ম বিশ্ববাসীর কাছে পরিচিত করে তুলেছে। বাবা-মায়ের আদরের লাল মিয়া বিশ্বখ্যাত এসএম সুলতান নামে পরিচিতি লাভ করেছে। শিল্পীর সৃষ্টকর্মকে ধরে রাখতে সরকারি যা যা করণীয় উদ্যোগ নিবেন।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে উন্নতি হয়েছে। যোগাযোগব্যবস্থা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, নদী খনন, ব্রিজসহ যাতে মানুষ গ্রামে থেকে কর্মসংস্থান করতে পারে সে লক্ষ্যে নানা পরিকল্পনা গ্রহণ করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, আপনারা নিশ্চিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর হাতে দেশ নিরাপদ, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার হাতে এই বাংলাদেশে যে গতিতে উন্নয়ন চলছে, এটি আরো বেগবান হবে আগামীতে।’

পদকপ্রাপ্ত শিল্পী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ড্রইং ও পেইন্টিং বিভাগের অধ্যাপক  ড. ফরিদা জামান তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, সুলতান স্বর্ণপদক পেয়ে আমি খুবই গর্বিত। ছোটবেলায় বরেণ্য শিল্পী এসএম সুলতানকে দেখার সুযোগ হয়েছে। সে সময় তার সাথে কথা বলে অনুপ্রাণিত হয়েছি। তিনি শিশুদের খুব ভালোবাসতেন এবং তাদের জন্য আজীবন কাজ করেছেন। তিনি যেভাবে শিশুদের ভালোবেসেছেন, আমাদেরও উচিত সেভাবে শিশুদের ভালোবাসা।

সুলতান ফাউন্ডেশন ও জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পৃষ্টপোষকতায় গত ১৬-২৭ জানুয়ারি ১২ দিনব্যাপী সুলতান মেলায় বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে ছিল শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, দেশ-বিদেশের ১১৮টি ছবি নিয়ে চিত্র প্রদর্শনী, ভারত, জিম্বাবুয়ে, নেপাল এবং দেশের ২০ জন চিত্রশিল্পী নিয়ে আন্তর্জাতিক আর্ট ক্যাম্প, রচনা প্রতিযোগিতা, গ্রামীণ খেলাধুলা, সেমিনার এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

বরেণ্য শিল্পী এসএম সুলতান ১৯২৪ সালের ১০ আগস্ট নড়াইলের মাছিমদিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯৪ সালের ১০ অক্টোবর যশোর সম্মিলিত হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

এইচআর

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও