কুষ্টিয়ায় শিশু অপহরণ মামলায় প্রতিবেশী নারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ঢাকা, বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬

কুষ্টিয়ায় শিশু অপহরণ মামলায় প্রতিবেশী নারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ৪:১৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০২০

কুষ্টিয়ায় শিশু অপহরণ মামলায় প্রতিবেশী নারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানার শিশু অপহরণ মামলায় প্রতিবেশী এক নারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সী মোঃ মশিয়ার রহমান জনাকীর্ণ আদালতে আসামির উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হলেন- দৌলতপুর উপজেলার খলিশাকুন্ডি পূর্ব মন্ডলপাড়া গ্রামের চাঁদ আলীর কন্যা বেদেনা খাতুন ওরফে লিমা(৩৮)। এই মামলায় অপর ৩ আসামি ঠেকারী খাতুন, চাঁদ আলী ও আর্ব্দু রশিদদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর, সকাল ৯টায় দৌলতপুর উপজেলার খলিশাকুনিড গ্রামের ছমির আলীর স্ত্রী বিনা খাতুন তার ৬ মাস বয়সী শিশুপুত্র কর্ণকে ঘরের বারান্দায় শুইয়ে রেখে গৃহস্থালীর কাজে বাড়ির বাইরে ব্যস্ত ছিলেন। এসময় আসামি বেদেনা খাতুন লিমা অপর তিন সহযোগীর যোগসাজসে শিশু কর্ণকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যান। এই ঘটনায় শিশুর বাবা ছমির আলী বাদী হয়ে বেদেনা খাতুনসহ ৪জনের নামোল্লেখসহ দৌলতপুর থানায় মামলা করেন।

মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৮ সালের ৩০ নভেম্বর আদালতে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ।

কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ কৌশুলী আব্দুল হালিম সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দৌলতপুর থানার শিশু মামলাটি আসামিদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগে চার্জ গঠন পূর্বক দীর্ঘ স্বাক্ষ্য শুনানি শেষে আসামি বেদেনা খতুন লিমার বিরুদ্ধে আনীত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আইনের দ:বি: ৭ ধারার অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমাণিত হওয়ায় তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদেশ ও মামলার অপর ৩ আসামিদের খালাস দেওয়া হয়েছে।

এমইউপি/এএসটি

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও