দেখতে দেখতে ১১ বছর, বিএনপির আন্দোলন কোন বছর?

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২০ | ১৫ মাঘ ১৪২৬

দেখতে দেখতে ১১ বছর, বিএনপির আন্দোলন কোন বছর?

খুলনা ব্যুরো ৭:২০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯

দেখতে দেখতে ১১ বছর, বিএনপির আন্দোলন কোন বছর?

বিএনপি চোরাবালিতে আছে, পথহারা পথিকের মতো বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘বিএনপিকে নিয়ে বিচলিত হওয়ার কিছু নেই। আন্দোলনের ডাক দেয় শুনি, দেখতে দেখতে এগারো বছর। আন্দোলন হবে কোন বছর?’

মঙ্গলবার বিকেলে খুলনা সার্কিট হাউজ মাঠে আওয়ামী লীগের মহানগর ও জেলা শাখার সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব বলেন।

বিএনপি মহাসচিবকে উদ্দেশ করে কাদের বলেন, ‘আপনার মুখে দুর্নীতিবিরোধী কথা শুনলে হাসি পায়। এ যেনো ভূতের মুখে রাম নাম। আপনাদের সময়ে দেশ দুর্নীতিতে পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল।’

বিএনপি এখন নালিশ পার্টিতে পরিণত হয়েছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘বিএনপি জঙ্গি, সন্ত্রাসবাদের পৃষ্ঠপোষক। তাই মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশে বিএনপিকে আর ক্ষমতায় আসতে দেবে না আওয়ামী লীগ।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘টেন্ডারবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, ভূমিদস্যু, দুর্নীতিবাজ ও সন্ত্রাসীরা সাবধান। তাদের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার ডাইরেক্ট অ্যাকশন শুরু হয়েছে। সবাই নজরদারিতে আছে। সতর্ক ও শুদ্ধ হয়ে যান। আওয়ামী লীগে দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই।’

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদের সভাপতিত্বে সম্মেলনে অতিথি ছিলেন বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

সম্মেলন পরিচালনা করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ১৪ দলের সমন্বয়ক ও সাবেক সংসদ সদস্য  মিজানুর রহমান মিজান এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) অ্যাডভোকেট সুজিত অধিকারী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ড. মসিউর রহমান।

প্রধান বক্তা ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান। বিশেষ বক্তা ছিলেন আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য ও শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও নির্বাহী সদস্য মির্জা আজম, খুলনা-২ আসনের সাংসদ শেখ সালাহ উদ্দিন জুয়েল, বাগেরহাট-২ আসনের সদস্য শেখ সারহান নাসের তন্ময়, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, কেন্দ্রীয় নেতা এসএম কামাল হোসেন, আমিনুল ইসলাম মিলন, সাবেক মৎস্যমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, সংসদ সদস্য গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার।

এর আগে মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১২টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য।

সম্মেলনে খুলনা মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের কমিটিতে সভাপতি পদে বর্তমানরাই বহাল রয়েছেন। তবে, সাধারণ সম্পাদক পদে নতুন মুখ নেতৃত্ব নির্বাচিত হয়েছেন।

খুলনা মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নবনির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করেন।

এর মধ্যে খুলনা মহানগর সভাপতি হিসেবে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুলক খালেক। মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়া জেলা শাখায় শেখ হারুনুর রশীদ সভাপতি হিসেবে পুনর্নির্বাচিত এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুজিত কুমার অধিকারী সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

এইচআর

 

খুলনা: আরও পড়ুন

আরও