নিয়োগ নিয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে তালা

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮ | ১১ বৈশাখ ১৪২৫

নিয়োগ নিয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে তালা

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ১১:২২ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৮

print
নিয়োগ নিয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে তালা

‘গোপনে অবৈধভাবে’ নিজের ছেলে এবং নিকট আত্মীয়কে নিয়োগ দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর মডেল পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ফরাত হোসেনের কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা।

বুধবার বিকেল ৩টার দিকে দৌলতপুর থানা বাজারে দৌলতপুর মডেল পাইলট হাইস্কুলে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ ওঠে, এর আগে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রধান শিক্ষক ফরাত হোসেন ও সহকারী শিক্ষক রফিকুল ইসলাম প্রধান শিক্ষকের কক্ষে স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষিকা ওয়াহিদা সেলিনাকে ডেকে ওই নিয়োগ নিয়ে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে। এমনকি ওয়াহিদা সেলিনা ও তার স্বামীকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে তাকে প্রধান শিক্ষকের কক্ষে অবরুদ্ধ করে রাখে।

এ সময় স্কুলের অন্যান্য শিক্ষকরা প্রধান শিক্ষকের কক্ষ থেকে স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষিকা ওয়াহিদা সেলিনাকে উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষিকা ওয়াহিদা সেলিনা দৌলতপুর মডেল পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ফরাত হোসেন ও সহকারী শিক্ষক রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে বুধবার সন্ধ্যার আগে দৌলতপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। জিডি নং ৮৫৭।

স্কুলে অবৈধভাবে শিক্ষক নিয়োগসহ বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ এনে বিকালে প্রধান শিক্ষক ফরাত হোসেনকে ভেতরে রেখে কক্ষে তারা ঝুলিয়ে দেয় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

পরে দৌলতপুর থানা পুলিশ তালা খুলে প্রধান শিক্ষক ফরাত হোসেনকে উদ্ধার করে।

জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক জানান, স্কুলের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষিকা ওয়াহিদা সেলিনার সাথে মতবিরোধ হলে তা পরক্ষণে নিরসন হয়। এখন আর কোনো সমস্যা নাই।

প্রধান শিক্ষকের কক্ষে তালা ঝুলানোর বিষয়ে দৌলতপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহাদত হোসেন জানান, কে বা কারা দৌলতপুর মডেল পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ফরাত হোসেনের কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দিলে আমি গিয়ে সে তালা খুলে দিয়েছি।

দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. তৌফিকুর রহমান বলেন, দৌলতপুর মডেল পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকের মধ্যে বাকবিতণ্ডার খবর শুনে দৌলতপুর মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের এক কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়েছিল। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

এমপি/এমএসআই

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad