সবজির বাজারও নিয়ন্ত্রণহীন

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট ২০১৭ | ৬ ভাদ্র ১৪২৪

সবজির বাজারও নিয়ন্ত্রণহীন

পরিবর্তন প্রতবেদক ৪:৫৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৭

print
সবজির বাজারও নিয়ন্ত্রণহীন

হাতে সাদা রঙের প্লাস্টিকের থলে। নেভি ব্লু জিন্স প্যান্ট আর মেষ রঙের পোলো শার্ট পরা। শরীর গড়িয়ে পড়ছে বৃষ্টির ফোঁটার মতো ঘাম। চোখে মুখে একরাশ হতাশার ছাপ।

রাজধানীর রামপুরা বাজারে সবজি দোকানের সামনে এই প্রতিবেদকের কথা হয় ত্রিশোর্ধ্ব যুবক আনোয়ার হোসেনের সাথে। সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে মনের ভেতরে চাপা ক্ষোভ যেন উগড়ে দিলেন।

বেসরকারি চাকুরীজীবী আনোয়ার হোসেন বলেন, গরমে যত না ঘামছি; তারচেয়ে বেশি ঘামছি মনে হয় বাজারের উত্তাপে। কেজিপ্রতি ৫০ টাকার নিচে কোনো সবজি নেই। তাহলে আমরা যারা ছোট চাকরি করি তারা যাবো কোথায়?

‘ভাই, বাজার দর নিয়ে অরাজকতা চলছে। কেউ যেন দেখার নেই। এখন বৃষ্টি হচ্ছে- এই উসিলায় দেখবেন সব জিনিষের দাম আরো বাড়বে। এমনি ঈদের আগে সব মসলার গায়ে আগুন। তার আঁচেই শরীর পুড়ে যাওয়ার মতো,’ যোগ করেন তিনি।

এই অবস্থা শুধু আনোয়ার হোসেনের একার নয়। তার মতো ছোট চাকুরে, মধ্যবিত্ত নিম্নমধ্যবিত্তদের অবস্থা একই রমক।
শনিবার সরেজমিন রামপুরা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে বাজারে সবজির দাম কেজিপ্রতি ১০ থেকে ২০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে।

সবজি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিকেজি বেগুন ৬০ টাকা, করলা ৬০-৭০ টাকা, শিম ১২০ টাকা, টমেটো ১৫০-১৬০ টাকা, মুলা ৫০ টাকা, পেঁপে ৫০ টাকা, শসা ৫০ টাকা, কচুর লতি ৫০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকা, ধুন্দল ৬০ টাকা, ঝিঙা ৬০ টাকা, কাঁকরোল ৬০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, বরবটি ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
এছাড়া কাঁচকলা প্রতি হালি ৩০ টাকা, ছোট ফুলকপি প্রতি পিস ৩০ টাকা, মিষ্টি কুমড়ার ফালি ৩০ টাকা, চালকুমড়া পিস ৫০ টাকা, প্রতি আঁটি লাল শাক ২৫ টাকা, পালং শাক ২৫ টাকা, পুঁইশাক ২০ টাকা, ডাঁটাশাক ২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কাঁচা মরিচ ১৮০ টাকা, লেবু প্রতিহালি ২০ থেকে ২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
মাছের বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিকেজি রুই ৩০০ টাকা, কাতলা ৩০০-৩৫০ টাকা, তেলাপিয়া ১৪০ থেকে ১৮০ টাকা, সিলভার কার্প ২০০ টাকা, গলদা চিংড়ি ৬০০-৮০০ টাকা, পুঁটি ২০০-৩৫০ টাকা, পোয়া ৪০০-৪৫০ টাকা, মলা ৩২০-৩৫০ টাকা, পাবদা ৫০০-৬০০ টাকা, বোয়াল ৪৫০-৫০০ টাকা, শিং ৪০০-৭০০ টাকা, দেশি মাগুর ৪০০-৭০০ টাকা, শোল ৪০০-৬০০ টাকা, পাঙ্গাশ ১২০-১৮০ টাকা, চাষের কই ২০০-২৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
এ ছাড়া ৭০০-৮০০ গ্রামের ইলিশ প্রতি পিস বিক্রি হচ্ছে ৪৫০-৫০০ টাকায়। আর ১ কেজি ওজনের প্রতিটি ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ১৪০০ টাকায়।

মাংসের বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি কেজি গরুর মাংস ৫০০ টাকা, খাসি ৭৫০, ব্রয়লার মুরগি ১৫০-১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ১ কেজি ওজনের প্রতি পিস কক মুরগি ২৩০-২৫০ টাকা, দেশি মুরগি ৩৫০-৪০০ টাকা ও হাঁস প্রতি পিস ৪০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এফএ/এসবি

print
 
nilsagor ad

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad