পেঁয়াজে লঙ্কাকাণ্ড, ঊর্ধ্বমুখী মশলার দর

ঢাকা, রবিবার, ২১ জানুয়ারি ২০১৮ | ৮ মাঘ ১৪২৪

পেঁয়াজে লঙ্কাকাণ্ড, ঊর্ধ্বমুখী মশলার দর

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১:০৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১১, ২০১৭

print
পেঁয়াজে লঙ্কাকাণ্ড, ঊর্ধ্বমুখী মশলার দর
ফাইল ছবি

সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে পালিত হবে ঈদুল আজহা। এই ঈদকে কেন্দ্র করে প্রতিবছরই ঊর্ধ্বমুখী থাকে মশলার দর। কিন্তু এবার ঈদে কয়েক সপ্তাহ আগেই বাড়তে শুরু করেছে সব ধরনের মশলার দর।

এদিকে, পেঁয়াজ নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড চলছেই। সপ্তাহের ব্যবধানে আবারও বেড়েছে দেশি পেঁয়াজের দাম। গত সপ্তাহে ২০ টাকা বেড়ে দেশি পেঁয়াজ ৪০ টাকায় বিক্রি হলেও শুক্রবার তা একলাফে ৬০ টাকা হয়েছে।

তবে মান ভেদে ৫০ টাকা দরেও পাওয়া যাচ্ছে পেঁয়াজ, যা আগের সপ্তাহে ৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। আর ভারতীয় পেঁয়াজ প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়।

শুক্রবার রাজধানীর রামপুরা, কাওরানবাজার, হাতিরপুল ঘুরে এ চিত্র পাওয়া গেছে।

বিক্রেতারা বলছেন, পাইকারী বাজারে দাম বাড়ায় তারাও পেঁয়াজের বাড়তি দর রাখতে বাধ্য হচ্চেন। পাশাপাশি বৃষ্টির মৌসুম হওয়ায় পেঁয়াজ সংরক্ষণ না করাও নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারে।

আর মশলা আমদানিতে বাড়তি শুল্ক দেওয়ায় দাম বেড়েছে। এটিকে ব্যবসায়ীরা স্বাভাবিক প্রক্রিয়া বলে মত দিয়েছেন।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, বর্তমানে মানভেদে প্রতিকেজি জিরা বিক্রি হচ্ছে ৩৫০ থেকে ৩৯০ টাকায়, দারুচিনি ২৪০ টাকা থেকে ২৮০ টাকা ও সাদা এলাচি ১৪০০ থেকে ১৬৮০ টাকায়।

এছাড়া সাদা গোল মরিচ ৯৮০ থেকে ১০০০ টাকা, কালো গোল মরিচ ৬৮০ থেকে ৭০০ টাকা, জয়ফল ৬৫০ থেকে ৯৫০ টাকা, যত্রিক ১৩০০ থেকে ১৪৫০ টাকা, আলু বোখারা ৪৬০ থেকে ৫২০ টাকা, পোস্তাদানা ৭৮০ থেকে ৮৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া রসুনের দাম ১৪০ থেকে ২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। নতুন আদা ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কেজি প্রতি শুকনা মরিচ (দেশি) ২২০, ভারতীয় ১৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া অপরিবর্তিত রয়েছে সবজি ও মাংসের দাম।

জেডএস/আইএম

print
 
.

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad