সবজির দামে ফিরছে স্বস্তি

ঢাকা, রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ | ১০ আষাঢ় ১৪২৫

সবজির দামে ফিরছে স্বস্তি

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:২৯ অপরাহ্ণ, মে ২৪, ২০১৮

print
সবজির দামে ফিরছে স্বস্তি

রমজানের প্রথম দু’তিন দিন সবজির দাম ছিল লাগাম ছাড়া। এর মধ্যে বেগুন, শসা আর গাজরের দাম একশ’ টাকার উপরে হয়েছিল। কিন্তু সপ্তাহ পেরোতেই সবজির বাজারের উত্তাপ কিছুটা কমেছে।

এখন রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে অধিকাংশ সবজি ৫০ থেকে ৬০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার মিরপুরসহ বিভিন্ন কাঁচাবাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

মিরপুর-২ বড়বাগ কাঁচাবাজারের ক্রেতা-বিক্রেতারা জানান, আলু কেজি প্রতি ২৫ টাকা, দেশি পেঁয়াজ ৪৫ টাকা, ভারতীয় পেঁয়াজ ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, শসা কেজি প্রতি ৫০ টাকা, গাজর ৫০ টাকা, লেবুর হালি ২০ টাকা, টমেটা কেজি প্রতি ৫০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৬০ টাকা, পটল কেজি প্রতি ৫০ টাকা, বরবটি ৫০ টাকা, লম্বা ও গোল বেগুন ৬০ টাকা, করলা ৬০ টাকা, ঢেঁড়স প্রতি কেজি ৪০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, লাউ প্রতি পিচ ৪০ টাকা, কুমড়া কেজি প্রতি ৩০ টাকা, জালি ৪০ টাকা, লতি ৪০ টাকা, ঝিঙ্গা ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এর মধ্যেও কাঁচা কলার দাম চড়া। প্রতি হালি ৪০ থেকে ৪৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। একইভাবে পাকা কলার দামও লাগড়াম ছাড়া। সবরি ডজন প্রতি বিক্রি ১২০ থেকে ১৩০ টাকা।

মিরপুর বড়বাগের সবজি বিক্রেতা আসাদ পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘রোজার প্রথম কয়েকদিন দাম বেশি ছিল। এখন সবজির দাম কমে গেছে।’

এ ছাড়া বাজারে শুকনা মরিচ কেজি প্রতি ২২০ টাকা, ছোলা কেজি প্রতি ৭০ টাকা ও চিনি কেজি প্রতি ৬০ থেকে ৬২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

অবশ্য বাজারভেদে গরুর মাংসের দাম বেশি রাখছে বিক্রেতারা। মিরপুর-২ বড়বাগ মাংসের বাজারে গরুর মাংসের দাম রাখছে কেজি প্রতি ৪৮০ টাকা করে। অথচ রমজানে সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত দাম ৪৫০ টাকা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মাংস বিক্রেতা প্রশ্ন রেখে বলেন, গরুর মাংস প্রতি কেজিতে খরচই পড়ছে ৪৬০ টাকা। তাহলে ৪৫০ টাকায় কেমনে বিক্রি করব?

মিরপুরের বড়বাগ বাজারে আসা ক্রেতা ফিরোজ পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘সবজির দাম কিছুটা কমেছে। তবে বাজারে সরকারি মনিটরিংয়ের অভাব রয়েছে। আজ গরুর মাংস কিনলাম ৪৮০ টাকা করে। মনিটরিং থাকলে এই গচ্ছা দিতে হতো না।’

টিএটি/আইএম

 
.




আলোচিত সংবাদ