গানের কথায় জোর দিতে হবে

ঢাকা, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৪

গানের কথায় জোর দিতে হবে

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:০৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৯, ২০১৮

print
গানের কথায় জোর দিতে হবে

বাপ্পা মজুমদার। গান লেখা, সুর ও সংগীত তৈরির কাজে ব্যস্ত সময় কাটে তার। নিজের নতুন অ্যালবামের পাশাপাশি দলছুট-এর জন্যও কাজ করছেন। কেমন সেসব অভিজ্ঞতা? জানালেন পরিবর্তন ডটকমকে

এবিসি রেডিও ২০১৭-এ প্রচারিত সেরা ৫০ গানের তালিকা প্রকাশ করেছে। এতে ১ নম্বরে আছে তোর প্রেমেতে; গানটি গেয়েছেন জেমস, সুর ও সংগীত আপনার। অনুভূতি কেমন?

অনুভূতি খুবই ভালো। জেমস ভাই আমার সুর ও সংগীতে একটি গান করেছেন, এটাই আমার জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি নিঃসন্দেহে। কারণ আমি ব্যক্তিগতভাবে তার গানের খুব ভক্ত। সেরা ৫০ গানের তালিকায় এই গানটি আছে এবং এক নম্বর পজিশনে -এসব নিয়ে ভাবছি না; কিংবা এটা আমি কনফার্ম নই। কিন্তু জেমস ভাই আমার গান করেছেন, এটাই আমার বড় আনন্দ। তিনি এর আগেও আমার গান করেছেন, ভালো লেগেছে।

কিছুদিন আগে পুত্র সিনেমায় গান করলেন; আপনি যে ধরনের গান করেন সিনেমায় গান করার সময় কি নিজেকে ভাঙতে হয়?

নিঃসন্দেহে। তা তো একটু করতেই হয়। কারণ সিনেমায় সাধারণত থিম ওরিয়েন্টেড গান হয়। ফলে এখানে গান করতে হলে একটু ভাবনাটা বুঝে অন্যরকম করে নিজেকে সাজাতে হয়। তবে কাজটা করে আমার ভালো লেগেছে। ভালো না লাগলে কোনো কাজ করেও শান্তি পাওয়া যায় না।

অনেকদিন পর নিজের লেখা গান সব চুপ-এ কণ্ঠও দিলেন...

এটা একদম একান্তই ব্যক্তিগত ভালোলাগা থেকে কাজটা করা। ব্যক্তিগত অনুভূতি। আমি গান নিয়মিত লিখি না। ব্যক্তিগত অনুভূতির জায়গা থেকে দীর্ঘদিন পর কোনো গান লিখলাম। আশা করছি শ্রোতাদের ভালো লাগবে। আর প্রত্যাশা তো অনেক রকম থাকে। এখন অনেকেই তো ভিউয়ার দিয়ে বিচার করে। ফলে অনেকের গান বের হতে হতেই কোটি ভিউ পেয়ে যায়। সেসব দিয়েই বিবেচনা করে। এসবের সঙ্গে আমি যাই না। আমি চাই, মানুষ ভালো গান শুনুক। ভালো গানের সঙ্গে থাকুক। এটাই আমার প্রত্যাশা। 

দলছুট থেকেও নতুন অ্যালবাম আসছে...

হ্যাঁ, কাজ চলছে। এ বছরের শেষ নাগাদ অ্যালবামটি বাজারে আসবে। ইনফ্যাক্ট তিনটি গানের রেকর্ডিং ইতিমধ্যে হয়ে গেছে। গানগুলো লিখেছেন শাহান কবন্ধ। ভিন্ন কিছু হবে আশা করছি। পুরোটাই ম্যানুয়াল প্লেয়িংয়ের উপর হবে। ব্যান্ডের সবারই অংশগ্রহণ থাকবে। ভালো একটি কাজ হবে বলে মনে করছি।

আপনার সুর-সংগীতে হৈমন্তী রক্ষিতের দেয়াল কাহিনী গান বেরিয়েছে...

এটা আগামীকাল (সোমবার) বের হচ্ছে। ও ভীষণ ভালো গান করে। আমার খুব পছন্দ ওর গান। আর একটা জিনিস খেয়াল করেছি, গানের ব্যাপারে হৈমন্তী আমার মতই সবসময় ভীষণ চুজি। ফলে এই অ্যালবামটি করার সময় আমাদের দুজনকেই অনেক চিন্তা ভাবনা করতে হয়েছে। হৈমন্তী বরাবরই ভালো গায়। এই অ্যালবামেও তার স্বাক্ষর রেখেছে। আশা করছি গানগুলো সবার ভালো লাগবে।

আপনি নতুন কোনো গান যখন তৈরি করেন, কোন বিষয়টি মাথায় রাখেন?

প্রথম কথা হচ্ছে গানটা তো আমার নিজের ভালোলাগার জিনিস। আমার গানের যে ধরন, আমি যে টাইপের গান করি, তাতে আমার নিজের সন্তুষ্টি প্রথমে পায়োরিটি পায়। আমার কাজে নিজেই যদি সন্তুষ্ট না হই, শ্রোতারাও হয়ত সন্তুষ্ট হবেন না -এটা আমি মাথায় রাখি। গান তো এখন আর শোনার বিষয় নয়, দেখারও বিষয় হয়ে গেছে। সেই কারণে এখন সবাই গান করার সঙ্গে সঙ্গে ভিডিও বিষয়টা চিন্তা করে। মানুষের রুচি পাল্টেছে। কাজেই গানের ভিডিওনির্ভরতা বেড়েছে। এটা ডিমান্ডও করে। কিন্তু আমি সবসময়ই আমি মনে করি, গানটা যদি ভালো হয়, সেই গান শ্রোতারা নিশ্চয়ই পছন্দ করবে।

এখন নতুন যারা গান করছেন, আপনার নিজের অনুভূতি ও বিবেচনা কী?

তরুণরা অনেকেই ভালো গান করার চেষ্টা করছেন। ভালো কাজ হচ্ছে কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু আমার বিবেচনা হচ্ছে গানের কথার দিকে আর একটু জোর দিতে হবে। তাহলে আরও ভালো কিছু সম্ভব হবে।

একজন বাপ্পা মজুমদারকে অসংখ্য মানুষ আলাদা করে চেনে ও পছন্দ করে, এটা ভেবে কী অনুভূতি হয়?

খুবই ভালোলাগে। আমাকে ভীষণ অনুপ্রাণিত করে। মানুষের ভালোবাসা পাওয়াটা অনেক বড় ব্যাপার। আমি এটা অন্তর দিয়ে অনুভব করি।

সাক্ষাৎকার : মাসউদ আহমাদ

 
.

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad