দেশে শিশু কিডনী রোগীদের চিকিৎসার সুযোগ অপ্রতুল

ঢাকা, রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ | ১০ আষাঢ় ১৪২৫

দেশে শিশু কিডনী রোগীদের চিকিৎসার সুযোগ অপ্রতুল

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০১৮

print
দেশে শিশু কিডনী রোগীদের চিকিৎসার সুযোগ অপ্রতুল

দেশের মেডিক্যাল কলেজগুলোতে শিশু কিডনী রোগীদের চিকিৎসা প্রদানের সুযোগ-সুবিধা এখনো অপ্রতুল। বিভিন্ন সরকারি মেডিক্যাল কলেজে শিশু কিডনী রোগ বিষয়ে মোট ৪৩টি পদ রয়েছে। কিন্ত প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা ছাড়া প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া সম্ভব নয়। এমন তথ্য জনানো হয় শিশু কিডনী রোগ বিষয়ে চতুর্থ আন্তর্জাতিক বৈজ্ঞানিক সম্মেলনে।

সোমবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত শিশু কিডনী রোগ বিষয়ে দুইদিন ব্যাপী সম্মেলনের শেষদিনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়। সম্মেলন ইউরোপ, এশিয়া ও অস্ট্রেলিয়া মহাদেশ থেকে নয়জন বিশ্ব বিখ্যাত শিশু কিডনী রোগ বিশেষজ্ঞ যোগদান করেন।

তারা বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক নিবন্ধন উপস্থাপন করেন। এছাড়া এই বৈজ্ঞানিক সম্মেলনে সারা দেশ থেকে পাচঁ শতাধিক শিশুরোগ ও শিশু কিডনী রোগ বিশেষজ্ঞ যোগদান করেন।

সম্মেলনে জানানো হয়, ২০০৪ সালে পেডিয়াট্রিক নেফ্রোলজি সোসাইটি অব বাংলাদেশ (পিএনএসবি) প্রতিষ্ঠার পর থেকে বাংলাদেশে শিশুদের কিডনী রোগ সম্বন্ধে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্যে বিশেষ ভূমিকা রেখে আসছে। পিএনএসবির সুপারিশক্রমে বাংলাদেশে প্রথম ২০০০ সালে পেডিয়াট্রিক নেফ্রোলজি বিষয়ে এমডি ডিগ্রি প্রদানের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন প্রদান করে। এই প্রেক্ষিতে কার্যক্রম শুরু করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমইউ)।

পিএনএসবির যুগান্তকারী পদক্ষেপের কারণে পেডিয়াট্রিক নেফ্রোলজি বিষয়ে এমডি ডিগ্রিপ্রাপ্ত প্রায় বিশজন চিকিৎসক সারাদেশে শিশু কিডনী রোগীদের সুনামের সাথে চিকিৎসা প্রদান করে আসছেন। যদিও এই সংখ্যা ও দেশের সকল মেডিক্যাল কলেজে শিশু কিডনী রোগীদের চিকিৎসা প্রদানের সুযোগ-সুবিধা এখন পর্যন্ত অপ্রতুল।

সম্মেলনে আরো জানানো হয়, এ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় শিশু কিডনী বিভাগের তত্ত্বাবধানে ১০টি শিশু কিডনী প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। তাই পিএনএসবি আশা করে অদূর ভবিষ্যতে শিশু কিডনী রোগীদের বিদেশমুখীতা শূন্যতে হ্রাস পাবে।

প্যাডিয়াট্রিক নেফ্রোলজি সোসাইটি অফ বাংলাদেশ (পিএনএসবি)’র উদ্যোগে ১১ ও ১২ মার্চ আয়োজিত এই আন্তর্জাতিক বৈজ্ঞানিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান।

পিএনএসবি’র সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হানিফের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন বিএমডিসির সভাপতি ও বিপিএর সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ সহিদুল্লা, পিএনএসবির মহাসচিব অধ্যাপক মো. হাবিবুর রহমান, বাংলাদেশ প্যাডিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব অধ্যাপক এমএকে আজাদ চৌধুরী, অধ্যাপক রণজিত রঞ্জন রায় প্রমুখ। 

কেএইচ/এসবি

 
.




আলোচিত সংবাদ