‘সনদ সর্বস্ব জ্ঞান উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে না’
Back to Top

ঢাকা, সোমবার, ৬ জুলাই ২০২০ | ২১ আষাঢ় ১৪২৭

‘সনদ সর্বস্ব জ্ঞান উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে না’

শাবি প্রতিনিধি ৬:০২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ০৮, ২০২০

‘সনদ সর্বস্ব জ্ঞান উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে না’

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘কেবল সনদ স্বর্বস্ব জ্ঞান দিয়ে কেউ নিজের ও দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে না। এর জন্য প্রয়োজন অন্তর্গত প্রেরণা ও সুগভীর দেশ প্রেম।

বুধবার বিকেলে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য় সমর্বাতন অনুষ্ঠানে সভাপতির ভাষণে এসব কথা বলেন তিনি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, নিজেকে, নিজের শিক্ষাকে দেশ ও দশের কল্যাণের জন্য উৎসর্গ করার মানসিকতা তোমাদের অর্জন করতে হবে। অর্জন করতে হবে মানবিক মূল্যবোধ। প্রথমে স্থান দিতে হবে দেশের সাধারণ মানুষের স্বার্থকে, যাদের শ্রমের জোরে দেশ প্রাণবান হয়, জীবনের চাকা ঘোরে তবেই তোমাদের অর্জিত শিক্ষা সফল হবে।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর বুকে শান্তিপূর্ণ উন্নয়নশীল একটি দেশ। দারিদ্র্য নিরসনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে উন্নয়নে বর্হিবিশ্বে দেশটি এখন রোল মডেল। বিশ্ব দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। বর্তমানে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার ৮ শতাংশের উপরে। অর্থনীতিবিদদের ধারণা ২০২৪ সাল নাগাদ এ হার হবে ১০ শতাংশের উপরে।’

আবদুল হামিদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এখন সময় মুক্তিযোদ্ধার চেতনায় এগিয়ে যাওয়ার। সময় এখন বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার, পথ চলবার। বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ও অগ্রযাত্রায় নারী পুরুষ নির্বিশেষে দেশের সর্বস্তরের মানুয়ের অবদান খুবই প্রশংসনীয়। এ দেশের দৃঢ় প্রতিজ্ঞ, পরিশ্রমী, উদ্যমী, লড়াকু ও সংবেদনশীল জনগণের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ উন্নয়ন ও অগ্রগতির কাঙ্খিত লক্ষ্য অর্জনের সফল হবে।’

গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘যেকোনো দেশের উন্নয়ন ও ইতিবাচক পরিবর্তনে তরুণ সমাজ-ই মূল চালিকা শক্তি হিসেবে কাজ করে থাকে। আমাদের দেশও তার ব্যতিক্রম নয়। সুতরাং আজ তোমরা যারা গ্র্যাজুয়েট হলে আমার সামনে এই যে তরুণ প্রজন্ম তোমরা এক একটি আলোর প্রদীপ। তোমাদের সকলকে দেশের সার্বিক উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় এগিয়ে আসতে হবে। কাঁধে নিতে হবে দেশ ও জাতির দায়ভার। আমি মনে করি, তোমাদের মেধা ও শ্রমেই গড়ে ওঠবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত এ সমবার্তনে বক্তব্য রাখেন- কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে স্নাতকে ৪ হাজার ৬১৭ জন, স্নাতকোত্তরে ১ হাজার ১২৭ জন, পিএইচডি ২ জন, এমবিবিএস ৮৭৮ জন, এমএস ও এমডি ডিগ্রিধারী ৬ জন এবং নার্সিংয়ের ১২০ জন শিক্ষার্থীকে আনুষ্ঠানিকভাবে ডিগ্রি প্রদান করেন রাষ্ট্রপতি।

এছাড়াও স্নাতকে সর্বোচ্চ ফলাফলধারী ১২ শিক্ষার্থী ও স্নাতকোত্তরে ৮ শিক্ষার্থীকে রাষ্ট্রপতি স্বর্ণপদক প্রদান করেন তিনি।

এসবি

 

: আরও পড়ুন

আরও