ধর্ষকের বিচারের দাবিতে আজও উত্তাল ঢাবি

ঢাকা, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১২ ফাল্গুন ১৪২৬

ধর্ষকের বিচারের দাবিতে আজও উত্তাল ঢাবি

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১:৪৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ০৭, ২০২০

ধর্ষকের বিচারের দাবিতে আজও উত্তাল ঢাবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনার বিচার চেয়ে দ্বিতীয় দিনের মতো রাজু ভাস্কর্যে অনশন করছেন শিক্ষার্থীরা।

দর্শন বিভাগের ২০১৩-১৪ সেশনের কয়েকজন শিক্ষার্থী ধর্ষকের বিচারের দাবিতে সোমবার এখানে অনশন শুরু করেন।

মঙ্গলবারও দ্বিতীয় দিনের মতো অনশন পালন করছেন তারা।

অনশনে বসা শিক্ষার্থীদের মধ্যে রয়েছেন ডাকসুর সদস্য এবং তথ্য ও প্রযুক্তি ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী মোস্তাফিজুর রহমান, সিফাতুল ইসলাম, মৃত্তিকা এবং পানি ও পরিবেশ বিভাগের সাইফুল ইসলাম রাসেল।

সিফাতুল ইসলাম বলেন, আমাদের বোন ধর্ষণের শিকার হয়েছে। তার প্রতিবাদে আমরা দ্বিতীয় দিনের মতো অনশন পালন করছি। আমরা দ্রুত ধর্ষকের গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি।

এদিকে মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে প্রতিবাদের অংশ হিসেবে রোকেয়া হলের সামনে থেকে রাজু ভাস্কর্য পর্যন্ত আলপনা আঁকার কর্মসূচি শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ।

ছাত্রলীগের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে বিভিন্ন হলের নেতাকর্মীরা এতে অংশগ্রহণ করেছেন। চারুকলার অনুষদের শিক্ষার্থীদের সহায়তায় এ আলপনা আঁকা হচ্ছে।

অপরদিকে ধর্ষণের প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মো. আখতারুজ্জামানের কাছে স্মারকলিপি দেন তারা।

সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আহ্বায়ক রাকিবুল ইসলাম রাকিব ও সদস্য সচিব আমানউল্লাহ আমানের নেতৃত্বে সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

স্মারকলিপি দেওয়ার পর রাজু ভাস্কর্যের পাশে তারা এক সমাবেশের আয়োজন করেন।

এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের  উদ্যোগে প্রতিবাদের অংশ হিসেবে মৌন মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়। এতে বিভাগের বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

গত রোববার কুর্মিটোলা এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয় বাস থেকে নামার পর ধর্ষণের শিকার হন ঢাবি শিক্ষার্থী। তিনি বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ক্ষণিকা’ নামের দোতলা বাসে (ঢাবি-টঙ্গী রুট) বাড়ি ফিরছিলেন। সন্ধ্যায় কুর্মিটোলায় বাস থেকে নেমে যাওয়ার পর তাকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়। ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলার এজাহারে ওই ছাত্রীকে একজন ধরে নিয়ে ধর্ষণ করে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

ধর্ষণের ঘটনায় সোমবার সকাল থেকে উত্তাল হয়ে ওঠে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। দুপুরে শাহবাগ মোড় অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ, ডাকসু ভিপি মানববন্ধন করেন।

ধর্ষণে জড়িতদের গ্রেফতারে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেন ভিপি নুরুল হক নূর। ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করে দ্রুত বিচারের দাবিতে সোমবার রাতেও ক্যাম্পাসে সরব দেখা গেছে আন্দোলনকারীদের।

সন্ধ্যার পর ক্যাম্পাসে মশাল মিছিল, রাজু ভাস্কর্যে প্রতিবাদী গান-কবিতার সমাবেশ এবং মোমবাতি মিছিল নিয়ে শহীদ মিনারে অবস্থান নিতে দেখা যায় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের।

সবার একটাই দাবি, ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় যারাই জড়িত থাকুক, তাদের চিহ্নিত করে দ্রততম সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

পিএসএস/এসবি
আরও পড়ুন...
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলা ডিবিতে
ট্রমা ও শ্বাসকষ্টে ভুগছেন ধর্ষণের শিকার ঢাবি ছাত্রী
ফরেনসিক টেস্টে ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণের আলামত মিলেছে
ছাত্রী ধর্ষণকে কেন্দ্র করে উত্তাল ঢাবি

 

শিক্ষাঙ্গন: আরও পড়ুন

আরও