রাবির দশম সমাবর্তন স্থগিত

ঢাকা, সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮ | ১১ আষাঢ় ১৪২৫

রাবির দশম সমাবর্তন স্থগিত

রাবি প্রতিনিধি ১:০১ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০১৮

print
রাবির দশম সমাবর্তন স্থগিত

শিক্ষামন্ত্রীর শারীরিক অসুস্থতার কারণে স্থগিত করা হয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দশম সমাবর্তন। পরবর্তী তারিখ এখনো নির্ধারিত হয়নি। মঙ্গলবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকার। তবে সমাবর্তন স্থগিত হওয়ায় পরবর্তী তারিখ রাষ্ট্রপতির সুবিধা অনুযায়ী নির্ধারণের দাবি জানিয়েছেন নিবন্ধিত শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, সমাবর্তনের জন্য চ্যান্সেলর ও রাষ্ট্রপতি মহোদয়ের সদয় সম্মতি চেয়ে চিঠি পাঠায় রাবি প্রশাসন। তার প্রেক্ষিতে গত ১ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি তার প্রতিনিধি হিসেবে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করার নির্দেশ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করলে তিনি আগামী ২৪ মার্চ সমাবর্তন অনুষ্ঠানের জন্য কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়। সমাবর্তনে মোট ৬ হাজার ৯ জন গ্রাজুয়েট রেজিস্ট্রেশন করেছে। এবার সমাবর্তন বক্তা হিসেবে ছিলেন প্রফেসর ইমেরিটাস চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সাবেক উপাচার্য ড. আলমগীর মোহাম্মদ সিরাজউদ্দীন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকার বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের দশম সমাবর্তনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সভাপতিত্ব করবেন বলে নির্ধারিত ছিল। কিন্তু আগামী বুধবার তিনি চোখে জরুরি অপারেশন করবেন। যার কারণে তিনি সমাবর্তনে আসতে পারছেন না।’

এদিকে ১০ম সমাবর্তন স্থগিত হওয়ায় আনন্দিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নিবন্ধিত শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি ১০ম সমাবর্তনের পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ রাষ্ট্রপতির সুবিধা অনুযায়ী হলে তিনি সমাবর্তনে উপস্থিত থাকতে পারবেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ২০০৮-০৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম আরিফ বলেন, ‘১০ম সমাবর্তন স্থগিত হওয়ায় আমরা খুশি। যে কোনো মূল্যে হোক আমরা মহামান্য রাষ্ট্রপতিকে চাই, এটা আমাদের প্রাণের দাবি। আমরা শিক্ষামন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য কামনা করছি।’

ফলিত রসায়ন বিভাগের ২০০৮-০৯ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র অনুপ সরকার বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরে ১০ম সমাবর্তনের অপেক্ষায় আছি। সমাবর্তনে বিশ্ববিদ্যালয় আচার্য আসার মাধ্যমেই আমাদের এই দীর্ঘ অপেক্ষা সার্থক হবে।’

ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষার্থী দেলাওয়ার হোসেন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নিকট দাবি রাষ্ট্রপতির সুবিধা অনুযায়ী এবার সমাবর্তনের তারিখ নির্ধারণ করলে তিনি সমাবর্তনে থাকতে পারবেন।’

এ বিষয়ে জানতে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও বিশ্ববিদ্যালয় উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ফোন রিসিভ করেননি।

প্রসঙ্গত, গত প্রশাসনের আমলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দশম সমাবর্তন অনুষ্ঠানের সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয় ২০১৬ সালের ২৪ ডিসেম্বর। পরবর্তীতে সর্বশেষ চলতি বছরের ২৪ মার্চ সমাবর্তনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়।

এমএম/এসএফ

 
.




আলোচিত সংবাদ