রিয়ালকে ছাপিয়ে উজ্জ্বল লিভারপুল-পোর্তো-টটেনহাম

ঢাকা, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭ | ১ পৌষ ১৪২৪

রিয়ালকে ছাপিয়ে উজ্জ্বল লিভারপুল-পোর্তো-টটেনহাম

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:৩১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৭, ২০১৭

print
রিয়ালকে ছাপিয়ে উজ্জ্বল লিভারপুল-পোর্তো-টটেনহাম

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপপর্বের ঝামেলা চুকিয়ে ফেলতে বুধবার এক যুগে মাঠে নেমেছিল ৪ গ্রেুপের ১৬টি দল। গ্রুপপর্বের শেষ দিনটিতে এক রাশ হতাশাতাই জুটেছে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে ম্যানচেস্টার সিটির ভাগ্যে। আগের ৫ ম্যাচেই জিতে আগেই শেষ ষোল নিশ্চিত করে ফেলা সিটিকে ২-১ গোলে হারিয়ে দিয়েছে ইউক্রেনিয়ান ক্লাব শাখতার দোনেৎস্ক। তবে সিটি বাদে প্রত্যাশিত জয় পেয়েছে সর্বশেষ দুবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদসহ সব বড় দলই। তবে রিয়ালকে ছাপিয়ে বুধবার বেশি উজ্জ্বল ছিল লিভারপুল, এফসি পোর্তো ও টটেনহাম।

.

নিজেদের মাঠে রিয়াল ৩-২ গোলে হারিয়েছে আগেই শেষ ষোলর আশা শেষ হয়ে যাওয়া বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে। এই হারের মধ্য দিয়ে ব্যর্থতার ষোলকলাই পূর্ণ হলো ডর্টমুন্ডের। রিয়াল জিতলেও বুধবার সবচেয়ে বেশি আলো ছড়িয়েছে লিভারপুল। নিজেদের ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ডে ইংলিশ ক্লাবটি ৭-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে রাশিয়ান ক্লাব স্পার্তাক মস্কোকে।

বিশাল এই জয়ে ই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই শেষ ষোলতে পা রাখল ৫ বারের চ্যাম্পিয়নরা। ই গ্রুপ থেকে শেষ ষোলতে লিভারপুলের সঙ্গী স্প্যানিশ ক্লাব সেভিয়া। যারা মরিবরের সঙ্গে ড্র করেছে ১-১ গোলে। গ্রুপপর্বের শেষ দিনটিতে লিভারপুলের পর সবচেয়ে বেশি আলো ছড়িয়েছে পর্তুগিজ ক্লাব এফসি পোর্তো। নিজেদের মাঠে তারা ৫-২ গোলে হারিয়েছে ফরাসি ক্লাব মোনাকোতে।

দারুণ এই জয়ে জি গ্রুপ থেকে শেষ ষোলও নিশ্চিত করেছে পর্তুগিজ ক্লাবটি। তবে তারা হয়েছে গ্রুপ রানার্সআপ। গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলতে তুরস্কের ক্লাব বেসিকতাস। যারা লিপজিগকে হারিয়েছে ২-১ গোলে।

আগেই শেষ ষোল নিশ্চিত করা টটেনহাম ৩-০ গোলে হারিয়েছে সাইপ্রাসের ক্লাব অ্যাপোয়েল নিকোসিয়াকে। দারুণ এই জয়ে এইচ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই শেষ ষোলতে টটেনহাম। রেকর্ড ১২ বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়ালকে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে রানার্সআপ হয়েই।

লিভারপুলের বিশাল জয়ে হ্যাটট্রিক করেছেন ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার ফিলিপে কুতিনহো। সেইদো মানে করেছেন জোড়া গোল। এফসি পোর্তোর হয়ে জোড়া গোল করেছেন আবুবকর। কিন্তু কুতিনহো, সেইদো মানে, আবুবকরদের ছাপিয়ে ব্যক্তিগতভাবে বুধবারের নায়ক ছিলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো।

রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ সুপার স্টার গোল করেছেন মাত্র একটা। তারপরও হ্যাটট্রিককারী কুতিনহো, জোড়া গোল করা সেইদো মানে, আবুবকরদের আড়াল করে তার নায়ক বনে যাওয়ার কারণ কী?  কারণ, এই গোলের মধ্য দিয়ে রোনালদো ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে গড়েছেন গ্রুপপর্বের ৬ ম্যাচেই গোল করার অনন্য রেকর্ড।

কেআর

 

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad