‘বিড়াল’ কাণ্ডে মরিনহোর উপরে চটেছিলেন বেনজেমা!

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

‘বিড়াল’ কাণ্ডে মরিনহোর উপরে চটেছিলেন বেনজেমা!

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:০৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০১৭

print
‘বিড়াল’ কাণ্ডে মরিনহোর উপরে চটেছিলেন বেনজেমা!

হোসে মরিনহো কোনো প্রশ্নের উত্তরই সহজভাবে দেন না! নিন্দুকদের সমালোচনার জবাব কিংবা দলের খেলোয়াড়দের পারফরম্যানন্স বিশ্লেষণ, সব বিষয়েই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড হাঁটেন উল্টো পথে। কূটনৈতিক ভঙ্গিতে উত্তর দিতে গিয়ে ব্যবহার করেন বাহারী সব উপমা। এমনকি তুলনা করতে গিয়ে টেনে আনেন পশু-প্রাণীও! আর এসব করতে গিয়ে নিন্দুকদের তো বটেই, অনেক সময় নিজ দলের খেলোয়াড়দেরও তোপের মুখে পড়েন। রিয়াল মাদ্রিদের কোচ থাকাকালে একবার যেমন তার উপর বেজায় চটেছিলেন করিম বেনজেমা। চটবেন না, মরিনহো বেনজেমাকে যে তুলনাটা করেছিলেন বিড়ালের সঙ্গে!

.

২০১০ থেকে ২০১৩, তিন বছর রিয়ালের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন মরিনহো। তো মরিনহোর ওই তিন বছরে বেনজেমা কখনো যেমন আলো ছড়িয়েছেন, কখনো আবার দুঃসময়েরও মুখোমুখি হয়েছেন। সে রকমই বেনজেমার এক দুঃসময়ের ঘটনা। ম্যাচের পর ম্যাচ খেলেও গোলের দেখা পাচ্ছিলেন না রিয়ালের ফরাসি ফরোয়ার্ড।

তার দল রিয়ালও পাচ্ছিল না কাঙ্খিত ফল। ফলে হতাশ হয়ে একবার বেনজেমার কড়া সমালোচনা করেন সদা সাফল্যপিপাসু মরিনহো। গোল তো পানইনি, ম্যাচে বেনজেমার শরীরি ভাষাতেই কোনো আগ্রাসী মনোভাব ছিল না। 

বেনজেমার খেলা দেখে কোচ মরিনহো এতোটাই বিরক্ত হন যে, ম্যাচ শেষে বেনজেমাকে তুলনা করেন বিড়ালের সঙ্গে! তাকে ইঙ্গিত করে বলেন, মাঠে রিয়ালের কোনো কোনো খেলোয়াড়ের মনোভাব ছিল বিড়ালের মতো। ‘মিউ মিউ’ টাইপের!

দুনিয়াতে এতো কিছু থাকতে, বিড়ালের মতো একটা দুর্বল প্রাণীর সঙ্গে তুলনা! ব্যাপারটা ভীষণ কষ্ট দেয় বেনজেমাকে। তিনি এতোটাই ক্ষুদ্ধ হন যে, নিজের মেজাজটাই হারিয়ে ফেলে কোচ মরিনহোর উপর চড়াও হন। কড়া ভাষায় মুখের উপর কোচকে শুনিয়ে দেন কিছু উপদেশ বাণী!

এতোদিন পর সেই ঘটনা ফাঁস করেছেন বেনজেমা নিজেই। ফ্রান্সের ক্যানাল প্লাসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রিয়ালের ২৯ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড বলেছেন, ‘আমাদের সম্পর্কটা এমনিতে ভালোই ছিল। কিন্তু তিনি যখন কিছু প্রবাদ ব্যবহার করা এবং বাজে মন্তব্য করা শুরু করলেন, মেজাজ ঠিক রাখা কঠিন ছিল। এমনিতে তার প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধাই ছিল আমার। কিন্তু যখন বুঝতে পারলাম তিনি আমাকে হাস্যকর বানাচ্ছেন, ওই মুহূর্তে আমি আমার মেজাজ হারিয়ে ফেলি।’

তা মেজাজ হারিয়ে কী উপদেশ দিয়েছিলেন কোচকে? শুনুন বেনজেমার কণ্ঠেই, ‘আমি তাকে বলি, আমাদের কিছু বিষয় নিয়ে কথা বলা দরকার। ওই বৈঠকটা ছিল এক ঘণ্টার। আমি তাকে বলি, আমি একজন ফুটবলার। আপনি আমাদের কোচ। আমি আপনাকে সম্মান করি। একজন ফুটবলার হিসেবে আমাকেও আপনার সম্মান করা উচিত।’

বেনজেমার দাবি, তার ওই চক্ষু গরম করা উপদেশ কোচ মরিনহো রেখেছিলেন, ‘ওই ঘটনার পর বিড়াল, কুকুর বা অন্য কোনো প্রাণীর গল্প হয়নি। এমনিতে আমি হয়তো কিছুটা ভীতু প্রকৃতির। কিন্তু যখন আপনি আমাকে নিয়ে হাসাহাসি করবেন, হাস্যকর বানাবেন, আমি তার প্রতিক্রিয়া জানাবই।’

কেআর

 

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad