করোনা নিয়ে বিশ্ববাসীকে যে বার্তা দিলেন মেসি
Back to Top

ঢাকা, শনিবার, ৪ এপ্রিল ২০২০ | ২১ চৈত্র ১৪২৬

করোনা নিয়ে বিশ্ববাসীকে যে বার্তা দিলেন মেসি

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৫০ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৫, ২০২০

করোনা নিয়ে বিশ্ববাসীকে যে বার্তা দিলেন মেসি

সব খারাপ-এর মধ্যে নাকি কিছু ভালো দিকও থাকে। ভয়ঙ্কর করোনা ভাইরাসের এই মহামারিতেও লিওনেল মেসি খুঁজে বের করলেন একটা ভালো দিক।

বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন সুপারস্টারের মতে করোনা শুধু মানব জীবনকে দুর্বিসহ করে তুলেনি, করোনা বরং মানুষকে দারুণ একটা সুযোগও এনে দিয়েছে! ঘরে থেকে আপনজনদের সঙ্গে সময় কাটানো এবং ভালোবাসার সুযোগ!

সর্বোপুরি মেসি মনে করেন, করোনা মহামারি গতিময় বাণিজ্যিক জীবনে মানুষকে সুযোগ করে দিয়েছে আপনজনদের সঙ্গে সময়টা উপভোগ করার!

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে স্থবির হয়ে পড়েছে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গন। সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সব ক্রীড়া টুর্নামেন্ট। খেলা ছেড়ে বিশ্বখ্যাত তারকারা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমেছেন।

ক্রিকেটার বিরাট কোহলি থেকে শুরু করে ফুটবলার ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, পল পগবা, নেইমার, রবার্ট লেভান্ডভস্কিরা বিশ্ববাসীকে করোনা সম্পর্কে সতর্ক করেছেন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে। ভয়াবহ করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মেসিও বেছে নিয়েছেন একই পথ।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে এক পোস্টের মাধ্যমে ৬ বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী বিশ্ববাসীকে পরামর্শ দিয়েছেন ঘরে থাকার। আহ্বান জানিয়েছেন সমাগম এড়িয়ে পরিবারের মানুষদের সঙ্গে সময় কাটানোর। যে সুযোগ সব সময় মেলে না। ফুটবলকে ছুটি দিয়ে মেসি নিজেও এখন স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে একান্ত সময় কাটাচ্ছেন।

ছোট দুই ছেলের সঙ্গে ফুরফুরে মেজাজে আছেন, এমনটা ছবি নিজের ইনস্টাগ্রাম ও ফেসবুকে পোস্ট করেছেন মেসি। ছবির নিচে বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্তদের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়ে লিখেছেন, ‘আমাদের সবার জন্যই সময়টা খুব কঠিন। যা ঘটছে, তা নিয়ে আমাদের সবারই উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় দিন কাটছে। আমাদের মধ্যে অনেকেই খুব কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন। বিশেষ করে যারা করোনায় আক্রান্ত। যারা সবচেয়ে কঠিন অবস্থায় আছেন, তাদের জায়গায় নিজেদের কল্পনা করে সবাইকে সাহায্য করতে চাই আমরা। হয়তো কেউ নিজে আক্রান্ত, কারো হয়তো পরিবারের সদস্য বা বন্ধু আক্রান্ত। সুতরাং সবাই মিলেই লড়াইটা করতে হবে।’

মেসি মনে করেন, কঠিন এই সময়ে বাইরে না বেরিয়ে ঘরে থাকাটাই হচ্ছে সবচেয়ে বড় লড়াই।

করোনা আক্রান্তদের বাঁচাতে লড়াই অনেকেই করছেন। তবে প্রত্যক্ষ সেবাদানের মাধ্যমে সবচেয়ে কঠিন লড়াইটা করছেন চিকিৎসকরা।

চিকিৎসকদের প্রতি কৃজ্ঞতা জানিয়ে মেসি লিখেছেন, ‘কঠিন এই সময়ে অনেকেই সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে লড়াই করে যাচ্ছেন, হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে ক্লান্তিহীন সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। সৃষ্টি কর্তার কাছে প্রার্থনা, তাদেরকে আরও শক্তি দিন।’

কঠিন এই পরিস্থিতিতে মানুষের কী করা উচিত, সে সম্পর্কে সচেতন করে লিখেছেন, ‘এই সময়টাতে আমাদের সবার বিবেচ্য বিষয় হওয়া উচিত স্বাস্থ্য। কারণ, সময়টা অন্য রকম। কঠিন এই সময়ে আমাদের অবশ্যই স্বাস্থ্য সংস্থা এবং সরকারি নির্দেশনাগুলো শতভাগ মেনে চলা উচিত। তা মেনে চললেই কেবল ভয়ঙ্কর এই করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে আমরা যথাযথভাবে লড়াইটা করতে পারব।’

মেসি সব শেষে সবাইকে যে বার্তাটি দিয়েছেন, তা হলো করোনা সুযোগ করে দিয়েছে সময়টা উপভোগ করার, ‘সময় এসেছে আমাদের আরও দায়িত্বশীল হওয়ার। কঠিন এই সময়টাতে সবাই বাড়িতে থাকুন। এটা ভালোবাসার মানুষদের সঙ্গে সময়টা উপভোগ করার দারুণ একটা সুযোগ। যে সুযোগ আপনার ব্যস্ত জীবনে সব সময় আসে না। সবাইকে অভিনন্দন। আশা করি দ্রুতই এই কঠিন পরিস্থিতি কাটিতে উঠতে পারব।’

উল্লেখ্য, বিশ্বের অন্যান্য দেশের লিগের মতো স্পেনের লা লিগাও সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। মেসির ক্লাব বার্সেলোনাও তাদের ক্রীড়া কার্যক্রম আগামী ১৫ দিনের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে।

মেসির দেশ আর্জেন্টিনাও সব খেলাধুলা এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ করে দিয়েছে। বাতিল করেছে আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচ। চরম ব্যস্ততার এই সময়ে অনাকাঙ্খিতভাবে পাওয়া এই ছুটিটা মেসি তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করছেন নিজের পরিবারের সঙ্গে।

কেআর

 

খেলাধুলা: আরও পড়ুন

আরও