হালান্ডের কাছে ধরা খেল নেইমার-এমবাপেদের পিএসজি
Back to Top

ঢাকা, রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০ | ১৫ চৈত্র ১৪২৬

হালান্ডের কাছে ধরা খেল নেইমার-এমবাপেদের পিএসজি

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৩৩ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০

হালান্ডের কাছে ধরা খেল নেইমার-এমবাপেদের পিএসজি

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগকে পাখির চোখ করেই বস্তায় বস্তায় টাকা ঢেলে দলে তারার মেলা বসিয়েছে পিএসজি। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলতে উঠলেই কি যেন হয়ে যায় পিএসজির! সর্বশেষ তিন মৌসুমেই পিএসজির চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা স্বপ্ন গুঁড়িয়ে গেছে শেষ ষোলতে।

এবারও সেই শেষ ষোলতেই তারকাখচিত পিএসজির স্বপ্ন শেষ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনার রাস্তা তৈরি! কাল শেষ ষোলর প্রথম লেগে যে পিএসজিকে ২-১ গোলে হারিয়ে দিয়েছে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড।

নেইমার-এমবাপেদের এই ধাক্কাটা কাল দিয়েছে আরলিন হালান্ড নামের ১৯ বছরের এক তরুণ। তার জোড়া গোলেই নিজেদের ঘরের মাঠে ২-১ গোলের জয় পেয়েছে ডর্টমুন্ড। পিএসজির একমাত্র গোলটা করেছেন নেইমার।

বর্তমানে বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে বিস্ময়কর নাম হালান্ড। ইংল্যান্ডে জন্ম নেওয়া নরওয়েজিয়ান তরুণ মাঠে নামলেই পাচ্ছেন গোল। বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে উড়ছেন।

এই জার্মান ক্লাবটির হয়ে মাত্র ৭ ম্যাচেই করেন ১১ গোল। এই পথে হালান্ড বদলি হিসেবে নেমে হ্যাটট্রিক করার কীর্তিও দেখিয়েছেন। তবে ফুটবল দুনিয়ায় অন্য রকম হইচই ফেলে দেওয়া হালান্ড নিজের আসল জাদুটা দেখালেন কাল, বিশ্ব তারকার খেতাবধারী নেইমার-এমবাপেদের।

দলীয় শক্তিমত্তার মাপকাঠিতে নেইমার, এমবাপে, অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়াদের পিএসজিই ছিল পরিস্কার ফেভারিট। তবে ডর্টমুন্ডের আছেন একজন হালান্ড। একের পর এক গোল করায় যাকে নিয়ে ডর্টমুন্ডের কোচ এবং সমর্থকদের প্রত্যাশা ছিল তুঙ্গে। জোড়া গোলে কোচ-সমর্থকদের সেই প্রত্যাশা দুর্দান্তভাবেই মিটিয়েছেন ১৯ বছরের তরুণ।

কাল ডর্টুমন্ডের মাঠ সিগনাল ইদুনা পার্কে ম্যাচের ৩টি গোলই হয়েছে দ্বিতীয়ার্ধে। স্বাগতিক ডর্টমুন্ডের সমর্থকদেরই প্রথম আনন্দে ভাসান হালান্ড। ম্যাচের ৬৯ মিনিটে দুর্দান্ত এক গোল করে দলকে এগিয়ে দেন তিনি।

তবে ম্যাচে দুর্দান্ত খেলতে থাকা নেইমার এই গোলটা শোধ করে দেন ৭৬ মিনিটে। কিন্তু পিএসজি নেইমারের এনে দেওয়া এই সমতায় দুই মিনিটও ধরে রাখতে পারেনি।

ম্যাচের ৭৭ মিনিটের শেষ দিকেই আবার হালান্ড জাদু। অসাধারণ এক ফিনিশিংয়ের মাধ্যমে ডর্টমুন্ডকে আবার এগিয়ে দেন তিনি। শেষ পর্যন্ত এই ২-১ গোলের লিড নিয়েই মাঠ ছেড়েছে তারা।

অবশ্য নেইমার আবারও সুযোগ পেয়েছিলেন পিএসজিকে সমতায় ফেরানোর। কিন্তু দুরুহ কোণ থেকে নেওয়া তার শট প্রতিহত হয় পোস্টে!

ম্যাচের প্রথম আর্ধেও একবার আক্ষেপে পুড়তে হয়েছে নেইমারকে। ব্রাজিলিয়ান তারকার বাঁক খাওয়ানো ফ্রি কিক শট ডর্টমুন্ডের ক্রসবারে বাতাস লাগিয়ে চলে যায় উপর দিয়ে।

ফলে ১৯ বছরের হালান্ডের জাদুর কাছে হারই মানতে হয়েছে তাকে। শুধু নেইমার একা নন, হালান্ডের কাছে হেরে গেছে পুরো পিএসজিই।

অবশ্য এই ঘাটতি পুষিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠার সম্ভাবনা এখনো ভালো মতোই আছে পিএসজির। পিছিযে থাকলেও পিএসজি ডর্টমুন্ডের মাঠ থেকে মহামূল্যবান একটা অ্যাওয়ে গোল নিয়ে ফিরেছে। ফলে আগামী ১১ মার্চ নিজেদের ঘরের মাঠ পার্স ডি প্রিন্সেসের ফিরতি লেগে ১-০ গোলে জিততে পারলেই শেষ আটের টিকিট পেয়ে যাবে নেইমার-এমবাপেদের পিএসজি।

কেআর

 

খেলাধুলা: আরও পড়ুন

আরও