চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলকে কটিন পরীক্ষায় রাখল অ্যাতলেতিকো
Back to Top

ঢাকা, রবিবার, ৫ এপ্রিল ২০২০ | ২২ চৈত্র ১৪২৬

চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলকে কটিন পরীক্ষায় রাখল অ্যাতলেতিকো

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:২৬ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০

চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলকে কটিন পরীক্ষায় রাখল অ্যাতলেতিকো

দীর্ঘ দুই মাসের বিরতির পর গতকাল রাতে আবার ফিরেছে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের রোমাঞ্চ। শুরু হয়েছে নকআউপপর্ব তথা শেষ ষোল’র দ্বৈরথ। নকআউটপর্বের প্রথম দিনেই কাল চমক দেখিয়েছে দুই স্বাগতিক দল।

অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ তাদের ঘরের মাঠে ১-০ গোলে হারিয়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলকে। অন্য ম্যাচে তারকাখচিত পিএসজিকে ২-১ গোলে হারিয়েছে তরুণ্য নির্ভর বরুসিয়া ডর্টমুন্ড।

লিভারপুল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। দলে তারকার মেলা। আক্রমণে মোহাম্মেদ সালাহ, রবার্তো ফিরমিনো, সাদিও মানের মতো ফর্মে থাকা তিন তুর্কি। তাদের কল্যাণে লিভারপুল রয়েছেও দুর্দান্ত ফর্মে।

বিপরীতে অ্যাতলেতিকো সাম্প্রতিক সময়ে খাবি খাচ্ছে মাঠে। আক্রমণ ভাগ নিয়েও চরম অস্বস্তিতে অ্যাতলেতিকো। চোট কাটিয়ে ফিরলেও আক্রমণ ভাগের প্রধান অস্ত্র দিয়েগো কস্তাকে মাঠে নামতে হয়েছে বদলি হিসেবে। আরেক ফরোয়ার্ড হুয়াও ফেলিক্স নতুন ক্লাবে এখনো নিজেকে খুঁজে পাচ্ছেন না।

সব মিলে কালকের শেষ ষোল’র প্রথম লেগে লিভারপুলই ছিল পরিস্কার ফেভারিট। অ্যাতলেতিকোর ভরসা ছিল দুটো। প্রথমত ম্যাচটি ছিল তাদের ঘরের মাঠ এস্তাদিও মেট্টোপলিতানোতে।

দ্বিতীয়ত, তাদের লড়াকু মানসিকতা। শেষ পর্যন্ত অ্যাতলেতিকোর এই দুটিরই জয় হয়েছে। সালাহ, ফিরমিনো, সাদিও মানের সমন্বয়ে গড়া লিভারপুলের আক্রমণভাগে দুর্দান্তভাবে রুখে দিয়েছে অ্যাতলেতিকোর রক্ষণ সেনানীরা।

তারই ফল পেয়েছে তারা। সল নিগুয়েজের একমাত্র গোলে এগিয়ে থেকেই প্রথম লেগ শেষ করেছে অ্যাতলেতিকো। যা চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলকে ঠেলে দিল কঠিন পরীক্ষায়। কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে হলে নিজেদের ঘরের মাঠের ফিরতি লেগে অল-রেডদের জিততে হবে অন্তত ২-০ ব্যবধানে। লড়াইটাকে টাইব্রেকে নিতে হলেও জিতলে হবে অন্তত ১-০ গোলে।

লিভারপুল তা পারবে কিনা জানা যাবে আগামী ১১ মার্চ। লিভারপুলের মাঠ অ্যানফিল্ডে ফিরতি লেগটি সেদিনই। এক অর্থে প্রতিপক্ষের মাঠ থেকে ১-০ গোলে পিছিয়ে থেকে ফেরাটা খুব খারাপ কিছু নয়। ঘরের মাঠে এই ঘাটতি পূরণ করার যথেষ্ট সম্ভাবনা তাদের আছে।

গত মৌসুমের সেমিয়াইনালে যেমন বার্সেলোনার মাঠ থেকে প্রথম লেগে ৩-০ গোলে হারের পরও নিজেদের ঘরের মাঠের ফিরতি লেগে ৪-০ গোলে জিতে পা রেখেছিল ফাইনালে। এবং শেষ পর্যন্ত জিতেছিল শিরোপা।

সেই স্মৃতি নিশ্চিতভাবেই অনুপ্রেরণা জোগাবে লিভারপুলকে। তবে এবারের প্রতিপক্ষ অ্যাতলেতিকো বলে ভয়ও আছে। কারণ, লিড কিভাবে ধরে রাখতে হয়, অ্যাতলেতিকো তা ভালো করেই জানে।

নিজেদের এই দক্ষতার প্রমাণ কালও দিয়েছে অ্যাতলেতিকো। কারণ, কাল একমাত্র গোলটা অ্যাতলেতিকো পেয়ে যায় ম্যাচের ৪ মিনিটেই। ম্যাচ শুরু হওয়ার পরপরই স্বাগতিক অ্যাতলেতিকোকে এগিয়ে দেন সল নিগুয়েজ।

গোল পরিশোধের জন্য ম্যাচের বাকি ৮৬ মিনিট প্রানপণ চেষ্টা করেছে লিভারপুল। বল দখলে রাখা, আক্রমণ গড়া-সব দিক দিয়েই মাঠে রাজত্ব করেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের লিভারপুল। কিন্তু শত চেষ্টা করেও সালাহ, সাদিও মানেরা দিয়েগো সিমিওনের অ্যাতলেতিকোর রক্ষণ ভাঙতে পারেননি।

১১ মার্চ অ্যানফিল্ডে গিয়েও যে দিয়েগো সিমিওনের শিষ্যরা লিড ধরে রাখার কঠিন চেষ্টাই করবে, সেটি অনুমিতই।

কেআর

 

খেলাধুলা: আরও পড়ুন

আরও