ইউনাইটেডের ৩৫০ মিলিয়ন ইউরো জলে!

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ২০১৮ | ৭ আষাঢ় ১৪২৫

ইউনাইটেডের ৩৫০ মিলিয়ন ইউরো জলে!

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:১৯ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৪, ২০১৮

print
ইউনাইটেডের ৩৫০ মিলিয়ন ইউরো জলে!

বিলিয়ন ডলার খরচ করে দল গড়েও পারেনি পিএসজি। রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেই শেষ ষোল থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে। পারল না হোসে মরিনহোর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডও। ইংলিশ জায়ান্টদেরও সেই শেষ ষোলতেই বিদায়ঘণ্টা বাজল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ইউনাইটেডের বিদায়ঘণ্টা বাজিয়ে দিল সেভিয়া। প্রথম লেগে গোলশূন্য ড্রয়ের পর মঙ্গলবার ফিরতি লেগে ইউনাইটেডের মাঠে গিয়ে ইউনাইটেডকে ২-১ গোলে হারিয়ে দিয়েছে স্প্যানিশ ক্লাবটি। দুই লেগ মিলিয়ে ২-১ অগ্রগামিতায় উঠে গেছে কোয়ার্টার ফাইনালে। সেভিয়ার কাছে এই হারের মধ্যদিয়ে জলে গেল ইউনাইটেডের ৩৫০ মিলিয়ন ইউরো!

না, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পুরো দল গড়তে এই ৩৫০ মিলিয়ন ইউরো খরচ হয়নি। দলের শক্তিবৃদ্ধির আশায় ইউনাইটেড এই টাকা ঢেলেছে গত দুই মৌসুমে। কোচ হোসে মরিনহোর পছন্দের খেলোয়াড়দের পেছনে। মানে, ৩৫০ মিলিয়ন ইউরোর সঙ্গে কোচ হোসে মরিনহোর একটা যোগসূত্র আছে। আসলে কোচ মরিনহোকে ধুয়ে দিতেই এই ৩৫০ মিলিয়ন ইউরোর বিষয়টি আলাদা করে আলোচনায়!

স্যার অ্যালেক্স ফারগুসন সরে দাঁড়ানোর পর থেকেই খাবি খাচ্ছে ইউনাইটেড। ইংল্যান্ডের সবচেয়ে সফল ক্লাবটি ২০১৬ সালে মরিনহোকে কোচ হিসেবে ভাড়া করে আনে দলকে নবরূপে জাগিয়ে তোলার জন্য।

কোচ হয়ে আসার পর মরিনহোও মনোযোগী হন শক্তিবৃদ্ধির দিকে। একের পর এক কিনতে থাকেন পছন্দের খেলোয়াড়। দায়িত্ব নেওয়ার পরপরই জুভেন্টাস থেকে তৎকালীন রেকর্ড ১০৫ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে ফরাসি মিডফিল্ডার পল পগবাকে কিনে আনেন মরিনহো।

এরপর একে একে কিনেন হেনরিখ মখাতারিয়ান (৪২ মিলিয়ন ইউরো), এরিক বেইলি (৩৮ মিলিয়ন ইউরো), রোমেলু লুকাকু (৮৫ মিলিয়ন ইউরো), নেমানিয়া মাতিচ (৪৫ মিলিয়ন ইউরো) ও ভিক্টর ল্যান্ডলফকে (৩৫ মিলিয়ন ইউরো)। এবং সর্বশেষ গত জানুয়ারিতে আর্সেনাল থেকে দলে টেনেছেন অ্যালেক্সিস সানচেজকে। চিলিয়ান এই ফরোয়ার্ডকে ইউনাইটেড অবশ্য দলে ভিড়িয়েছে হেনরিখ মখাতরিয়ানের সঙ্গে বিনিময় চুক্তির ভিত্তিতে। সঙ্গে কিছু নগদ টাকাও দিতে হয়েছে।

কিন্তু যে জন্য এতো বিনিয়োগ, সেই সাফল্য পেতেই ব্যর্থ। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা আশা বলতে গেলে আগেই মিলিয়ে গেছে। লিগ কাপের শিরোপা আশাও অনেক আগেই শেষ। একমাত্র আশা ছিল উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। কিন্তু মরিনহোর দলের সেই শেষ আশাটুকুও কেড়ে নিল সেভিয়া।

এই জয়ের মধ্যদিয়ে সেভিয়া আসলে ইউনাইটেড কোচ হোসে মরিনহোকে ফেলে দিয়েছেন সমালোচনার তপ্ত কড়াইয়ের মধ্যে। ইউরোর বড় বড় সব ক্লাবই দলবদলের বাজারে দুহাতে টাকা ঢালে। দুই মৌসুম নয়, শুধু এবারের মৌসুমেই নতুন খেলোয়াড় ক্রয়ের পেছনে পিএসজি, বার্সেলোনা, ম্যানচেস্টার সিটির মতো ক্লাবগুলো খরচ করেছে ৩৫০ মিলিয়ন ইউরোর বেশি।

তারপরও মরিনহোর খরচ করা ৩৫০ মিলিয়ন ইউরো বিশেষভাবে আলোচনায়। কারণ, মরিনহো যাদের পেছনে এই টাকা ঢেলেছেন, তাদের কেউই প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেননি। সমালোচকদের মতে, মরিনহো আসলে টাকা ঢেলেছে অপাত্রে! শক্তিবৃদ্ধি হয়নি, দল আরও খারাপ হয়েছে!

কেআর

 
.




আলোচিত সংবাদ