আমরি বাংলা ভাষা…
Back to Top

ঢাকা, শনিবার, ৪ এপ্রিল ২০২০ | ২১ চৈত্র ১৪২৬

আমরি বাংলা ভাষা…

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:১৬ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০

আমরি বাংলা ভাষা…

আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি/আমি কি ভুলিতে পারি। কীভাবে ভুলব আমরা? এটা তো কখনোই ভোলা সম্ভব না। বাঙালি জাতির এক বড় অর্জন একুশে ফেব্রুয়ারি। এই গৌরবের অংশীদার হতে ভাষা আন্দোলন ও ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে প্রতিবছর একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস পালন করছে গোটা বিশ্ব।

দিবসটি ঘিরে আমাদের দেশে হয়ে থাকে নানা আয়োজন। বাদ যায় না সাজ-পোশাকও। এই দিনের সাজ ও পোশাকে প্রাধান্য পেয়ে থাকে সাদা-কালো ও লাল রঙ।

সাজ:

সাজের ক্ষেত্রে আলাদাভাবে বলার কিছুই নেই। কারণ, আপনি নিশ্চই জানেন, এই দিনে সাজার তেমন কোনো বাহার নেই। শুধু নিজের ত্বক ঠিক রাখার জন্য যা যা করা দরকার করে নিতে পারেন। তা অবশ্যই হতে হবে ন্যাচারাল লুক।

শুধু চোখ সাজান গাঢ় করে। তাও আবার শুধু কালো বেইজ রেখে। সবচাইতে ভালো হয় মোটা করে কাজল টেনে নিলে। আর ঠোঁটে থাকুক হালকা রঙের কোনো লিপিস্টিক।

তবে আপনার ত্বক যদি তৈলাক্ত হয়ে থাকে তাহলে কাজল স্মাচ-ফ্রি ব্যবহার করুন। আর তা না হলে ম্যাট আইলাইনার ব্যবহার করুন। কপালে দিতে পারেন কালো অথবা লাল টিপ।

চুল সামনের দিকে হালকা পাফ করে পেছনে করুন হাত খোঁপা। চাইলে বন খোঁপাও করতে পারেন। এছাড়া সামনে পাফ রেখে এক সাইড করে হালকা করে ফ্লাফি বেণী করে নিতে পারেন। চাইলে খোঁপা ও বেণীতে দিতে পারেন কাঠগোলাপের সাদার মায়া।

পোশাক:

এবারো পোশাকের বিভিন্ন দোকান ও বুটিকগুলো অমর একুশকে সামনে রেখে তৈরি করছে নতুন নতুন নকশার রকমারি পোশাক। এসব পোশাকে ব্যবহৃত রং, কাপড়, নকশায় উজ্জ্বল হয়ে রয়েছে ভাষা আন্দোলনের মহিমা।

এছাড়া পোশাকে যুক্ত হয়েছে একুশের গান, কবিতা, স্লোগান ও বাংলা ভাষায় রচিত বিভিন্ন পংক্তিমালা। ফলে এসব পোশাকে ফুটে উঠেছে বাঙালির নিজস্ব ইতিহাস ও ঐতিহ্য।

এর বাইরে শহীদ মিনার, মানচিত্র, পতাকাসহ একুশের বিভিন্ন চিত্রের নান্দনিক প্রকাশও ঘটেছে এবারের একুশের পোশাকে।

যেখানে পাবেন:

প্রগতি স্মরণির যমুনা ফিউচার পার্ক, শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেট, কাওরান বাজারের বসুন্ধরা সিটির ফ্যাশন হাউসগুলো ঘুরে দেখা গেল, দেশি ফ্যাশন হাউসগুলো একুশের চেতনায় উজ্জীবিত নানা ধরনের পোশাক নিয়ে এসেছে এবারের এই বিশেষ দিবসের জন্য তৈরিকৃত পোশাকে। লাল, সাদা, কালো রং দিয়ে তৈরি হয়েছে শাড়ি, পাঞ্জাবি, কামিজ, টি-শার্ট এবং বিভিন্ন ধরনের শিশুদের পোশাক।

এছাড়া গজ কাপড়ের মধ্যেও বৈচিত্র্যময় বাংলা ভাষার বিভিন্ন বর্ণ দিয়ে ছাপ দেয়া হয়েছে। আপনি চাইলে গজ কাপড় কিনে তৈরি করে নিতে পারেন আপনার পছন্দ মতো পোশাক। রঙ ও নকশায় পুরোটা করে নিতে পারেন আপনার মনের মতো।

এবারও আমরা চাই একুশে ফেব্রুয়ারিতে আপনার সাজ-পোশাকে যেন ফুটে ওঠে ভাষার জন্য আপনার ভালোবাসা।

ইসি

 

জীবনযাত্রা: আরও পড়ুন

আরও