কর্মক্ষমতা বাড়াতে প্রয়োজন প্রকৃতির সান্নিধ্য

ঢাকা, সোমবার, ২৮ মে ২০১৮ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

কর্মক্ষমতা বাড়াতে প্রয়োজন প্রকৃতির সান্নিধ্য

পরিবর্তন ডেস্ক ২:০৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৪, ২০১৮

print
কর্মক্ষমতা বাড়াতে প্রয়োজন প্রকৃতির সান্নিধ্য

প্রকৃতির কাছাকাছি থাকলে মানুষের মন প্রফুল্ল থাকে। আপনি যদি বন্ধুদের সঙ্গে প্রাকৃতিক কোনো জায়গা থেকে ঘুরে আসেন, অনেক অভিজ্ঞতা অর্জনের পাশাপাশি অন্যান্য সময়ের তুলনায় মন অনেক প্রফুল্ল থাকবে।

এক গবেষণায় দেখা গেছে, প্রকৃতির সান্নিধ্য মানুষের মনে প্রশান্তি এনে দেয় এবং তার কর্মক্ষমতা অনেক বেড়ে যায়।

বাড়িতে বা কর্মস্থলে অনেকে প্রশান্তি পাওয়ার জন্য টপে গাছপালা রাখেন। কিন্তু আমরা অনেকেই হয়তো জানি না প্রকৃতির এই সান্নিধ্যে থাকার ফলে অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতাও পাওয়া যায়।

কর্মক্ষেত্রে যদি আরো মনোযোগী ও উদ্ভাবনশীল হতে চান, তাহলে প্রাকৃতিক কোনো পরিবেশে সময় কাটিয়ে আসুন। আর তা সম্ভব না হলে অফিসের ছাদেই প্রচুর গাছপালা লাগিয়ে প্রকৃতিক আবহ তৈরি করে নিন।

সম্প্রতি ইউনিভার্সিটি অব মেলবোর্নের এক গবেষণায় দেখা গেছে, যে কর্মীরা প্রকৃতির কাছাকাছি থাকেন( কর্মস্থলের ছাদে বাগান) তারা কাজে বেশি মনোযোগী হন।

১৫০জন শিক্ষার্থীর উপর এই স্টাডি পরিচালনা করা হয়। দুই দলে ভাগ করে তাদেরকে কম্পিউটারে বিরক্তিকর এবং কঠিন একটি কাজ করতে দেওয়া হয়। কাজের মাঝখানে তাদের ৪০ মিনিটের জন্য বিরতি দেওয়া হয় এক গ্রুপকে ফাঁকা ছাদে ঘুরাঘুরি করতে এবং আরেক দলকে দেওয়া হয় বাগানভর্তি ছাদে সময় কাটানোর জন্য।

গবেষণায় দেখা গেছে, যারা প্রকৃতির সান্নিধ্য পেয়েছেন তারা মনোযোগ দিয়ে খুব দ্রুত কাজটি সম্পন্ন করতে পেরেছেন।

গবেষণায় নেতৃত্ব দানকারী ড. ক্যাট লি’র মতে,  আমরা যখন কোনো মানসিক চাপের মধ্যে থাকি তখন প্রকৃতির পরশ পাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ড. লি’র মতে, কাজের চাপে যখন ক্লান্ত হয়ে পড়েন, কিছু সময়ের জন্য সবুজের সান্নিধ্য ক্লান্তি দূর করতে সাহায্য করে। তাই উদ্ভাবনশীল হওয়ার টিকিট হিসেবে ডেস্কে রাখতে পারেন গাছের টপ। এতে আপনার মন যেমন ভালো থাকবে, তেমনি কর্মক্ষমতাও বেড়ে যাবে।

বিএইচ/

 
.




আলোচিত সংবাদ