ফাগুণে চাই আগুনরাঙা শাড়ি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | ৯ ফাল্গুন ১৪২৪

ফাগুণে চাই আগুনরাঙা শাড়ি

পরিবর্তন ডেস্ক ২:৫৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০১৮

print
ফাগুণে চাই আগুনরাঙা শাড়ি

থাক তব ভুবনের ধুলিমাখা চরণে মথা নত করে রব, বসন্ত এসে গেছে......।

বসন্ত এসে গেছে আর বাসন্তী রঙের শাড়ি হবে না এটা কীভাবে হয়? আজকাল বাজারে নানা রঙ ও ডিজাইনের শাড়ি পাওয়া যায় পহেলা ফাল্গুন উপলক্ষ্যে। তবে যে যেটাই বলুক আমি কিন্তু সময়ের রঙকে ধরে রাখাকে পছন্দ করি। কারণ আপনার গায়ের পোশাকই বলে দিবে এখন কিসের উৎসব চলছে। আপনি যদি ফাল্গুনের সময় লাল-সবুজ, নিল-সাদা, লাল-সাদা পরে ঘুরে বেড়ান তাহলে, যে বা যারা আমাদের ফাল্গুল সম্পর্কে ভালোভাবে জানেন না তারা কিন্তু জগাখিচুড়ি পাকিয়ে দিবেন। তাই সময়ের রঙকে ধরে রাখুন। আর আপনি আপনার ভিন্ন রুচি বা ক্রিয়েটিভিটি দেখাতে চাইলে এই রঙয়েই দেখান। কাঁঠালি, বাসন্তী ও হলুদ রঙ দিয়েই তৈরি করুন নানা রঙের পোশাকের ডিজাইন। 

ফাল্গুনের শুরুতে শীত তেমন থাকে না, তাই সুতির শাড়ি পরেও আরাম পাবেন। তাঁত, কোটা বা জামদানি শাড়ির পাশাপাশি পরতে পারেন সিল্ক, হাফ সিল্ক, শিফন এমনকি কাতানের শাড়িও। 

আপনার যেমন শাড়ি পরতে ভালো লাগে তেমন কিছুই পরতে পারেন। ট্রাডিশনাল লুক চাইলে কাতানের বিকল্প নেই। তাছাড়া নিজেও কাস্টোমাইজ শাড়ি তৈরি করিয়ে নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে গজ কাপড় কিনে তাতে কয়েক ধরনের লেইস লাগিয়ে নিতে পারেন কিংবা করিয়ে নিতে পারেন এমব্রয়েডারি বা কাট ওয়ার্কের কাজ।

করাতে পারেন বাটিক বা টাইডাই এর কাজও। চাইলে হাতের কাজও করিয়ে নিতে পারেন কিংবা বসাতে পারেন এপ্লিক। এছাড়া ২ রকম কাপড় কিনে কুচি স্টাইলেও তৈরি করে নিতেন আপনার পছন্দের শাড়িটি।

কুচি ও আঁচলের কাপড়ের ভিন্নতা আপনার শাড়িটিকে অদ্বিতীয় লুক এনে দেবে; যা থাকবে অন্য সবার থেকে ভিন্ন। গজ কাপড় হিসেবে প্রিন্টেড জর্জেট বা শিফন, সুতি, কোটা, মসলিন, সিল্ক, ধুপিয়ান, ইন্ডি কাপড় বেছে নিতে পারেন।

যদি এক রঙের শাড়ি পরতে চান এর আঁচল, পাড় এবং ব্লাউজে আনতে পারেন অভিনবত্ব। ফাল্গুনের কোনো একটা শেড এর কন্ট্রাস্ট ব্লাউজ আপনাকে দিতে পারে স্বস্তির অনুভূতি।

শাড়িটি এক রঙা হলে বেছে নিতে পারেন প্রিন্টেড ব্লাউজ। এথনিক টাচ চাইলে কাতান কাপড় দিয়ে ভরাট গলার ডিজাইনে বানান ব্লাউজ। শাড়িটিতে যদি কারুকাজ বেশি থাকে তবে সিম্পল ব্লাউজ নিন।

স্লিভলেস বা ফুল স্লিভ যাই হোক না খেয়াল রাখুন তা যেন আপনার শাড়িটির সাথে মানানসই হয়।

সারাদিন বাইরে ঘোরাঘুরির প্ল্যান থাকলে পিঠ খোলা ব্লাউজ এড়িয়ে যেতে পারেন। কেননা রোদ যত মিষ্টিই হোক না কেন, ইউভি রে সব সময়ই ক্ষতিকর।

এক রঙা ব্লাউজে এমব্রয়ডারী করানো যেতে পারে, সেই সাথে করাতে পারেন জারদৌসি ওয়ার্কও। ফেব্রিক নির্বাচনে খেয়াল রাখুন, তা যেন অবশ্যই ভালো কোয়ালিটির হয়। আপনার শাড়িটি যত সাধারণই হোক না কেন এমন একটি ব্লাউজ অনায়াসে পরতে পারেন আর হয়ে উঠতে পারেন সকলের মধ্যমণি।

ইসি/

 
.

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad