শীতে চোখের নিন বাড়তি যত্ন

ঢাকা, বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

শীতে চোখের নিন বাড়তি যত্ন

পরিবর্তন ডেস্ক ১:২২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১২, ২০১৭

print
শীতে চোখের নিন বাড়তি যত্ন

আমরা টের না পেলেও কিন্তু আমাদের ত্বক ঠিকই টের পাচ্ছে যে শীত চলে এসেছে। কারণ এখন হাত পায়ের ত্বকে টান লাগা, ফেটে যাওয়, খুব রুক্ষ ভাব অনুভব করা শুরু হয়ে গিয়েছে। আর আপনার শীতের সময় দেহের সকল দিকে নজর দিলেও চোখের দিকে কিন্তু তেমন একটা নজর দেই না। কারণ আমরা অনেকেই ববুঝতেই পারিনা যে শীত চুপি চুপি আমাদের চোখের কতো ক্ষতি করে দিচ্ছে। কারণ এ সময় ধুলোবালি এবং শুষ্ক বাতাস বইতে থাকে। যা চোখকে শুষ্ক করে ফেলে। আবহাওয়ার পরিবর্তনের কারণে চোখের আর্দ্রতা এবং তৈলাক্ততা কমে যায়। যা চোখের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। আর্দ্রতার ঘাটতি চোখের জ্বালা-পোড়ারও জন্য দায়ী।

.

বিশেষজ্ঞদের মতে, এ কারণে শীতে আলাদাভাবে চোখের যত্ন নেওয়া দরকার। কারণ শীতকালে ঠাণ্ডা লাগা থেকে হয়ে যেতে পারে নানা রকম সমস্যা। কখনো ফুসফুসে সংক্রমণ থেকে সর্দি, কাশি, জ্বর, আবার কখনো সংক্রমণের কারণে ত্বক বা চোখে বড় ধরনের ইনফেকশনের সমস্যা হতে পারে।

শীতে অনেকের চোখে খুশকি হয়। সে জন্য চোখের পাতা নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে। চোখের উপযোগী লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করুন। খুশকির সমস্যা অনেক সময় গুরুতর আকার ধারণ করে, তাহলে অবহেলা না করে চিকিৎসকের সাহায্য নিন।

হাইড্রেটেড থাকুন : শীতকালে চোখের শুষ্ক ভাব কাটাতে বেশি করে ফ্লুইড খান। পানি খাওয়ার পাশাপাশি গরম স্যুপ খেলে শরীর গরম থাকবে, চোখ শুষ্কও হবে না।

সানগ্লাস পরুন : শীতকালে রাস্তায় বের হলে সানগ্লাস ব্যবহার করুন। যদি ঠাণ্ডা হাওয়া দেয়, তাহলে অবশ্যই সানগ্লাস পরুন। এমন সানগ্লাস বেছে নিন যাতে চোখের পাশ, বাইরের দিক ঢাকা থাকে।

খাদ্যতালিকায় ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড : শীতকালে মাছের তেল খান। এর মধ্যে থাকা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড শুষ্ক চোখের সমস্যা দূর করে চোখের পানি ধরে রাখতে সাহায্য করে।

আই ড্রপ ব্যবহার করুন : যদি বারবার শুষ্ক চোখের সমস্যা হয় তাহলে নিয়মিত আই ড্রপ ব্যবহার করুন। তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শে।

এসব ছাড়াও এ সময় চোখ ভালো রাখতে আরো কিছু পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। সবসময় একদৃষ্টিতে তাকিয়ে না থেকে মাঝে মাঝে চোখের পাতা পড়তে দিন। এতে চোখ পরিষ্কার ও পিচ্ছিল থাকবে। এর জন্য আপনার ঘরকে উষ্ণ রাখুন।

সকালে ঘুম থেকে উঠে চোখে প্রথমে ২০ বার কুসুম গরম ও পরে ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিন। আর রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ঠাণ্ডা ও পরে হালকা গরম পানির ঝাপটা দিন। শীতে বিভিন্ন ধরনের শাক-সবজি ও ফলমূল পাওয়া যায়। যা চোখের জন্য ভালো। চোখের যত্নে প্রচুর পরিমাণে এসব মৌসুমি ফল ও শাকসবজি খেতে পারেন।

তথ্য সূত্র : এইচবি

ইসি/

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad