দাড়ি কামালেই এড়ানো যাবে করোনার ঝুঁকি?
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই ২০২০ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৭

দাড়ি কামালেই এড়ানো যাবে করোনার ঝুঁকি?

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:৫৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০২০

দাড়ি কামালেই এড়ানো যাবে করোনার ঝুঁকি?
বর্তমানে সারা বিশ্ব জর্জরিত করোনাভাইরাসের আতঙ্কে। সারা বিশ্বে লক্ষাধিক মানুষ আক্রান্ত এই ভাইরাসে। এই আতঙ্কের আবহে হঠাৎ করেই একটি খবর বা বলা ভালো করোনাভাইরাস থেকে বাঁচার উপায় ভাইরাল হয়ে যায়। জানেন কী সেই উপায়? একদম পরিষ্কার করে কামিয়ে ফেলতে হবে দাড়ি! একেবারে ঝকঝকে করে দাড়ি কামালেই নাকি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে নিজেকে বাঁচানো সম্ভব!

কোথা থেকে জানা গেল এই অদ্ভুত উপায়? মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ সংস্থা সিডিসি (Centers for Disease Control and Prevention)-এর একটি সচিত্র নির্দেশিকার (গ্রাফিকাল ইনস্ট্রাকশন) ছবি সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর এই নির্দেশিকা অনুযায়ী, দাড়ি কামিয়ে ফেলতে শুরু করেন আফ্রিকা মহাদেশের বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার মানুষ। প্রসঙ্গত, প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় সঠিকভাবে গ্যাস মাস্ক পরার জন্য হিটলারকেও তার লম্বা দাড়ি কেটে ফেলতে হয়েছিল। ফলে গ্যাস মাস্কের জন্যই হারিয়ে গিয়েছিল হিটলারের দাড়িওয়ালা মুখের ছবি!

কিন্তু দাড়ি কামিয়ে ফেললেই কি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব হবে? কেনো এমন অদ্ভুত নির্দেশিকা জারি করেছিল সিডিসি? জানা গিয়েছে, ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসের একটি পোস্টে সম্পূর্ণভাবে দাঁড়ি-গোঁফ কামিয়ে নেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। মূলত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার মাধ্যমে ব্যাক্টেরিয়া, ছত্রাক ও ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল ওই সচিত্র নির্দেশিকা। তবে এই তথ্যটি ভুল। কিন্তু এই উপায়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানো কোনোভাবেই সম্ভব নয়। এমনটাই মত বিশেষজ্ঞদের। এ কথা সরকারিভাবে ঘোষণাও করে দেওয়া হয়েছে আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে। এই করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে তাই যে যে নিয়মগুলো অনুসরণ করতে বলেছেন চিকিত্সকেরা সেইগুলো যথাযথভাবে পালন করা জরুরি।

এখনো পর্যন্ত এই ভাইরাসের ওষুধ বা প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি। কিন্তু কিছু নিয়ম বা সাবধানতা যদি আমরা প্রতিনিয়ত অনুসরণ করি, তাহলে হয়তো এই রোগ থেকে রক্ষা পেতে পারি। আসুন সেগুলি সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড ধরে ভালো করে হাত ধুতে হবে। ভালো করে হাত না ধুয়ে চোখে, মুখে বা নাকে হাত দেওয়া যাবে না। অসুস্থ থাকলে বাড়িতেই থাকার চেষ্টা করুন এবং চিকিত্সকের পরামর্শ মেনে চলুন। হাঁচি-কাশি বা সর্দির সময় রুমালের বদলে টিস্যু ব্যবহার করুন। নিজেকে সব সময় পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করুন। উপযুক্ত মাস্ক ব্যবহার করুন।

ইসি

 

: আরও পড়ুন

আরও