রমজানে ত্বকের সুস্থতায় কিছু টিপস

ঢাকা, শুক্রবার, ২৫ মে ২০১৮ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

রমজানে ত্বকের সুস্থতায় কিছু টিপস

পরিবর্তন ডেস্ক ১:২৪ অপরাহ্ণ, মে ১৬, ২০১৮

print
রমজানে ত্বকের সুস্থতায় কিছু টিপস

রমজান মাসে রোজা রাখার কারণে আমাদের স্বাস্থ্যের কোনো ক্ষতি হয় না। তবে ঠিক মতো পুষ্টিকর খাবার ও পানির অভাবে ত্বকের আর্দ্রতা কমে গিয়ে ত্বক কিছুটা প্রাণহীন ও নিস্তেজ হয়ে পরে। এছাড়া বেশি ভাজা পোড়া খাবার খাওয়ার কারণে ত্বকে ব্রণের উপদ্রব বেড়ে যায়। এই সময়ে ত্বকের একটু যত্ন নিলে ত্বক থাকবে সতেজ ও সজীব।

আজ আমরা আপনাকে জানাচ্ছি কিভাবে রজান মাসে ত্বকের যত্ন নিবেন।

রোজায় ত্বকের যত্ন নেওয়ার জন্য রাসায়নিক কসমেটিক সামগ্রীর চেয়ে বেছে নিতে পারেন প্রাকৃতিক উপায়। বিভিন্ন ধরনের প্রাকৃতিক ফেসপ্যাক এই সময়ে আপনার ত্বকের যত্নে ভালো ভূমিকা রাখতে পারে। টমেটো, শসা, পেঁপে, কলা, লেবুর রস আর বরফ কুচি দিয়ে আপনি তৈরি করতে পারেন এই সকল প্রাকৃতিক ফেসপ্যাক।

১. রমজানে নিয়মিত ত্বককে পরিষ্কার রাখতে ১ টেবিল চামচ পাকা পেঁপে ভালোভাবে চটকে নিয়ে তার সঙ্গে এক টেবিল চামচ পাতিলেবুর রস এবং প্রয়োজন অনুযায়ী কিছু চালের গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি মুখসহ পুরো গলায় ২০ থেকে ২৫ মিনিট ম্যাসাজ করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

২. পানিশূন্য ত্বকে নিয়মিত কাঠবাদাম বাটা, ঠাণ্ডা দুধ এবং গোলাপ জল দিয়ে তৈরি ফেসপ্যাক ব্যবহার করুন। এটি শুষ্ক পানিশূন্য ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। এছাড়া এটি ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করে ত্বককে রাখবে ঝলমলে।

৩. সপ্তাহে ৩ দিন ১ টেবিল চামচ কাঁচা হলুদের গুঁড়ো ও ১ টেবিল চামচ চন্দন কাঠের গুঁড়োর সঙ্গে গোলাপ জল মিশিয়ে পেষ্ট তৈরি করে ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের ব্রণ দূর কারার পাশাপাশি ব্রণের দাগ দূর করবে।

৪. যাদের ত্বক বেশি শুষ্ক তারা টমেটো, কলা, শশা একসঙ্গে মিলিয়ে প্যাক তৈরি করে ইফতারের ঘণ্টাখানেক পর ত্বকে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এই প্যাকটি ব্যবহারে ত্বকের শুষ্কতা দূর হবে।

যাদের ত্বক শুষ্ক তারা নিয়মিত ত্বকে ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করতে পারেন। এতে ত্বকের শুষ্কতা দূর হওয়ার পাশাপাশি ত্বক সজীব হবে।

যাদের ত্বক সাধারণ বা তৈলাক্ত তারা ওয়াটার বেইজড ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এছাড়া যাদের ত্বক শুষ্ক তারা অবশ্যই রমজান মাসে সব রকমের টোনার জাতীয় প্রসাধনী এড়িয়ে চলবেন। টোনার জাতীয় প্রসাধনী ত্বককে আরো শুষ্ক করে তোলে।

রমজানে শরীরে পানিশূন্যতার অভাবে অনেকের ঠোঁট ফেটে যায়। যাদের ঠোঁট ফেটে যায় তারা রাতে ঘুমাবার আগে ঠোঁটে ভালো করে ভ্যাসলিন বা পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে ঘুমাবেন।

প্রতিদিন চার থেকে পাঁচবার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ত্বক ভালো রাখতে ইফতারিতে ভাজাপোড়া জাতীয় খাবার কম খেয়ে ঘরে তৈরি জুস খাবেন।

অবশ্যই সেহরি ও ইফতারে রাখুন শাক সবজি, ফলমূল, আর বেশি পরিমানের পানি, সরবত, খাওয়ার চেষ্টা করুন। এবং পর্যাপ্ত ঘুম অবশ্যই দরকার আছে।

ইসি/এএসটি

 
.

Best Electronics Products



আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad