সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তির বিলাসবহুল গাড়ি উন্মোচন তুরস্কের

ঢাকা, সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৪ ফাল্গুন ১৪২৬

সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তির বিলাসবহুল গাড়ি উন্মোচন তুরস্কের

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৪২ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৯

সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তির বিলাসবহুল গাড়ি উন্মোচন তুরস্কের

সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি বিলাসবহুল গাড়ি উন্মোচন করেছে তুরস্ক। বিদ্যুৎচালিত বিলাসবহুল এই গাড়ি নির্মাণে বিদেশি কোনো যন্ত্র বা যন্ত্রাংশ ব্যবহার করা হয়নি।

গত শুক্রবার তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান গাড়িটি উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বছরে এক লাখ ৭৫ হাজার গাড়ি তৈরির লক্ষ্যমাত্রার কথা জানান এরদোয়ান। এক্ষেত্রে আগামী ১৩ বছরে দুই হাজার ২০০ কোটি লিরা বা ৩৭০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করার কথাও ঘোষণা করেন তিনি।

চ্যানেল নিউজ এশিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান তার দল একে পার্টির দীর্ঘমেয়াদি লক্ষ্যমাত্রার অংশ হিসেবে এ প্রকল্প চালু করলেন। এটিকে দেশটির ক্রমেই শক্তিশালী হওয়া অর্থনৈতিক শক্তির প্রদর্শনী বলে মনে করা হচ্ছে।

গাড়িটির উম্মোচন অনুষ্ঠানে এরদোগান জানান, এ গাড়ি শুধু দেশেই নয়, বিদেশেও বিক্রি করা হবে। ইউরোপ থেকে এ প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানান তিনি।

এরদোয়ান বলেন, এর মাধ্যমে তুরস্কের ৬০ বছরের স্বপ্ন বাস্তবে পরিণত হয়েছে। অতীতে অভ্যন্তরীণভাবে গাড়ি উৎপাদনের পরিকল্পনা করা হলেও তা ব্যর্থ হয়েছে। এ গাড়ি বিশ্বজুড়ে সড়কে দেখা যাবে এমন আশাবাদও ব্যক্ত করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে গাড়িটির একটি লাল রঙের ও আরেকটি ধূসর সেডান মডেল প্রদর্শন করা হয়। ‘টগ’ প্রতীক ব্যবহার করে যৌথ উদ্যোগে গাড়িটি বাজারজাত করা হবে।

এরদোয়ান জানান, ২০২২ সালের মধ্যে দেশজুড়ে বৈদ্যুতিক গাড়ির চার্জিং অবকাঠামো নিশ্চিত করা হবে।

তুরস্ক এরই মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে বড় গাড়ি রপ্তানিকারকদের একটি দেশে পরিণত হয়েছে। তবে ফোর্ড, ফিয়াট, রেনল্ট, টয়োটা ও হুন্দাইয়ের মতো বৈদেশিক ব্র্যান্ডগুলোর গাড়ি তুরস্কে তৈরির পর সেগুলো রপ্তানি করা হয়।

নতুন এই প্রকল্প করছাড়, কারখানা তৈরির সুযোগসহ সরকারি নানা সুবিধা পাবে। দেশটির সরকারি গেজেটে প্রেসিডেন্টের এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে।

এমএফ/

 

আন্তর্জাতিক: আরও পড়ুন

আরও