রাকায়েতকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮ | ১১ বৈশাখ ১৪২৫

রাকায়েতকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:৩৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৮

print
রাকায়েতকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

বিশিষ্ট নাট্যশিল্পী গাজী রাকায়েত সোশ্যাল মিডিয়ায় যৌন নিপীড়নের ভিকটিমের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন। এই মামলা ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রত্যাহারের আল্টিমেটাম দিয়েছেন ‘নিপীড়নের বিরুদ্ধে শাহবাগ’ ব্যানারে আয়োজকরা। অন্যথায় গাজী রাকায়েত এই শাহবাগে ক্ষমা চেয়েও পার পাবে না বলে হুমকি দেন তারা।

কাজী রাকায়েতকে অবিলম্বে গ্রেফতার করার আহ্বান জানানো হয়েছে এই সমাবেশ থেকে। আজ বিকেলে শাহবাগের জাতীয় জাদুঘরের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হয়।

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মামলা প্রত্যাহার না করলে আগামী ৩১ মার্চ শাহবাগে প্রতিবাদকারীরা সমাবেশ করবেন বলে জানানো হয়।

এদিকে, অভিযোগ তদন্তাধীন সময়ে কিভাবে গোপনে মামলায় রূপান্তর করা হয়েছে সেটি নিয়েও প্রশ্ন তুলেন বক্তারা। তারা বলেন, মামলা করে কাউকে হয়রানি করা গাজী রাকায়েতের এই দুঃসাহস কেমন করে হয়, তাও তাদের বোধগম্য নয়। সরকারের ঘোষণা ছিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতিক্রমে ৫৭ ধারার মামলা নেয়ার জন্য। তাহলে গাজী রাকায়েত কি এতোই পাওয়ারফুল যে অন্যায় করেও ভিকটিমের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

ঘটনা ঘটার পর রাকায়েত বলেছিলেন তার মোবাইল হ্যাক করা হয়েছে। আবার কখনও বলেছেন তার স্টুডেন্টরা এটি করেছে। সেটাই যদি হয় তাহলে কেন আপনার স্টুডেন্টকে হাজির করছেন না। উল্টো ভিকটিমের বিরুদ্ধে মামলা করে রাকায়েতের আসল চরিত্র ফুটে উঠেছে যে, তিনিই সেই কাজটি করেছিলেন।

বক্তারা বলেন, যদি আপনার স্টুডেন্টরা কাজটি করে থাকে তাহলে ভিকটিম সঙ্গীতার বিরুদ্ধে মামলা কেন?

যৌন ও বিকৃত রুচিহীন মন্তব্য করার কারণে রাকায়েতকে আইনের আওতায় আনার আহ্বান জানান বক্তারা। ৫৭ ধারায় মামলা করে তিনি পুরুষ হয়ে নারীর উপর হেডাম বলেও মন্তব্য করেন তারা।

মিডিয়ায় কাজ করে যারা নারীকে প্রচীনকালের ভোগ্যপণ্য হিসেবে মনে করে, তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, যারা এরকম কাজ করে যাচ্ছে, সমাজে তাদেরকে বয়কট করতে হবে। গাজী রাকায়েতের বিভিন্ন নাটক ও ছবি বয়কট করার আহ্বান জানান বক্তারা।

বক্তারা বলেন, রাকায়েত সাহেব আপনার গল্প পুরনো হয়ে গেছে। রাতের বেলায় আপনি নারীকে যৌন নিপীড়নের কথা বলতে পারেন। তার মানে সমাজে আপনার যে সম্মানী মুখ দেখা যাচ্ছে, তার ভদ্র মুখোশের আড়ালে এমন রাকায়েতকে টেনেহিঁচড়ে নিচে নামানোর জন্য সমাজে সঙ্গীতার পাশে পুরো দেশ আছে। আর যারা শিল্পী সমাজে রাকায়েতের মতো নারী লোভী নোংরা মানুষের পাশে আছেন তাদেরও রেহাই নেই। রাকায়েতের মতো অমানুষকে বয়কটের আহ্বান জানান বক্তারা। গাজী রাকায়েত তার ঘৃণ্য অপরাধের জন্য ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মামলা প্রত্যাহার না করলে অন্যথায় পালানোর সময় পাবে না বলে উল্লেখ করেন বক্তারা।

অনুষ্ঠানের মূল উদ্যোক্তা আকরামুল হক ছাড়াও বক্তব্য রাখেন রবিন আহসান (প্রকাশক), ব্লগার আরিফ জেবতিক, ছাত্রনেতা আসাদুজ্জামান মাছুম, নেত্রী লাকি আক্তার, সাংবাদিক অঞ্জন রায়, জাকিয়া শিশির, তরুণ নির্মাতা শাহাদাৎ রাসেল, সাংবাদিক ইশরাত জাহান উর্মিসহ গণজাগরণ মঞ্চের কামাল পাশা।

এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, বিভিন্ন মিডিয়া কর্মী, গণজাগরণ মঞ্চের কর্মী ও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ব্যক্তি এই সমাবেশ উপস্থিত ছিলেন। 

এমকে/এএল
আরও পড়ুন...
‘আজ রাতটা আমার সাথে ফ্রী হও না’

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad