‘আয়নাবাজি’র তেলেগু সংস্করণ ঢালিউডের জন্য মাইলফলক

ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে ২০১৮ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

‘আয়নাবাজি’র তেলেগু সংস্করণ ঢালিউডের জন্য মাইলফলক

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮

print
‘আয়নাবাজি’র তেলেগু সংস্করণ ঢালিউডের জন্য মাইলফলক

বাংলাদেশের জনপ্রিয় সিনেমা ‘আয়নাবাজি’ তেলেগু ভাষায় মুক্তি পেল ‘গায়ত্রী’ নামে। নতুন এ সংস্করণে চঞ্চল চৌধুরীর শরাফত করিম আয়নার স্থানে রয়েছেন মোহন বাবু। পাশাপাশি খানিকটা বদলে গেছে গল্প ও গল্প বলার ঢং।

দক্ষিণ ভারতে ৯ ফেব্রুয়ারি ছবিটি মুক্তি পায়। সেখানেও দর্শকদের মাঝে সাড়া পড়েছে ব্যাপক।

এ প্রসঙ্গে ‘আয়নাবাজি’র প্রযোজক গাউসুল আলম শাওন বলেন, ‘এতদিন ধরে শুধু শুনেছি আমরা ভারতের সিনেমার আদলে সিনেমা বানাই। কিন্তু এইবার আমাদের সিনেমার গল্প নিয়ে তারা সিনেমা বানালো। এটা বাংলাদেশি সিনেমার জন্য একটা নতুন মাইলফলক।’

রিমেক এই সিনেমায় মঞ্চাভিনেতা মোহন বাবু বিপত্মীক। তার একটি মেয়ে রয়েছে। অর্থের বিনিময়ে বিভিন্ন অপরাধী চরিত্রের রূপ ধারণ করেন এবং তাদের হয়ে জেল খাটেন।

এখানে বাবা ও মেয়ের আবেগের এক অসাধারণ রসায়ন ফুটে উঠেছে। আর সিনেমার প্রতিটি ধাপেই টানটান উত্তেজনা বোধ করেছেন দর্শকরা। যা ভারতের তেলেগু ভাষাভাষী মানুষকে দিয়েছে সিনেমায় সত্যিকারের এক রহস্যময় চরিত্রকে দেখার সুযোগ।

বাংলাদেশে ‘আয়নাবাজি’র সফলতার পর ভারতীয় চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শ্রী লক্ষ্মীপ্রসন্ন পিকচার্স ২০১৭ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে তামিল ও তেলেগু ভাষায় নির্মাণের জন্যে ‘আয়নাবাজি’র স্বত্ব কিনে নেয়। এরপর ‘গায়ত্রী’ শিরোনামে সিনেমাটি পুনরায় নির্মাণ করা হয়।

সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন ম্যাডান রামিজানি। ‘আয়নাবাজি’র ছায়া থেকে নতুনভাবে ‘গায়ত্রী’র চিত্রনাট্য করেছেন ডায়মন্ড রত্ম বাবু।

অমিতাভ রেজা চৌধুরী নির্মিত ‘আয়নাবাজি’ ২০১৬ সালে বাংলাদেশে মুক্তি পায়। চঞ্চল চৌধুরী-নাবিলা জুটির এই সিনেমা ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়। বিশেষ করে চঞ্চল চৌধুরীর অভিনয় বেশ প্রশংসিত হয়েছিল তখন।

ডব্লিউএস

 
.

Best Electronics Products



আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad