ডেকে নিয়ে বন্ধুদের সহায়তায় প্রেমিকাকে গণধর্ষণ
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০ | ২০ চৈত্র ১৪২৬

ডেকে নিয়ে বন্ধুদের সহায়তায় প্রেমিকাকে গণধর্ষণ

সাভার প্রতিনিধি ৩:২২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০

ডেকে নিয়ে বন্ধুদের সহায়তায় প্রেমিকাকে গণধর্ষণ

ঢাকার আশুলিয়ায় পোশাক কারখানার এক নারী কর্মীকে কৌশলে ডেকে নিয়ে বন্ধুদের সহায়তায় গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশ দুইজনকে গ্রেফতার করলেও প্রেমিক সামিউল ইসলাম পলাতক রয়েছেন।

গত রোববার রাতে ধর্ষণের ঘটনার পর সোমবার রাতে নরসিংহপুর এলাকা থেকে প্রেমিকের দুই ধর্ষক বন্ধুকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মঙ্গলবার সকালে ১৯ বছর বয়সী সেই তরুণী বাদী হয়ে প্রেমিক সামিউল ইসলামসহ তিনজনের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগে আশুলিয়ায় থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকার মৃত জলিল সরকারের ছেলে রানা সরকার (২৫) ও একই এলাকার মৃত জামাল মোল্লার ছেলে আরিফ হোসেন (২৯)।

পলাতক সামিউল ইসলাম মৃধা ওরফে সোহান (২২) আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকার মঞ্জুরুল ইসলামের বাড়ির ভাড়াটিয়া। তার বাড়ি নাটোর জেলার লালপুরে।

মামলার বিবরণ থেকে জানা গেছে, আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকার একটি পোশাক কারখানার কর্মী ওই তরুণীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে আরেক কারখানার কর্মী সামিউল ইসলামের। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি  ওই তরুণী নরসিংহপুর এলাকায় তার বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে যায়। পরে রাত ৮টার দিকে বাসায় ফেরার পথে প্রেমিক সামিউল তাকে নরসিংহপুর এলাকায় তার ভাড়া বাসায় ডেকে নেয়। এরপর কৌশলে ওই তরুণীকে নিজ কক্ষে নিয়ে দরজা আটকে দেয় সামিউল।

এসময় কক্ষে আগে থেকেই সামিউলের বন্ধু আরিফ ও রানা অবস্থান করছিল। পরে প্রেমিক সামিউল, তার বন্ধু আরিফ ও রানা ওই তরুণীকে জোরপূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এসময় ওই তরুণী চিৎকারের চেষ্টা করলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় তারা। পরে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই নারীকে কক্ষ থেকে বের করে দেয়া হলে পরদিন এ ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী।

আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (ইন্টিলিজেন্স) ফজলুল হক জানান, ভুক্তভোগী নারীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

এসএ/এএসটি

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও