সৌহার্দ্য আর হৃদ্যতায় চলছে শিশুদের ভোটযুদ্ধ!
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০ | ২০ চৈত্র ১৪২৬

সৌহার্দ্য আর হৃদ্যতায় চলছে শিশুদের ভোটযুদ্ধ!

রাজবাড়ী প্রতিনিধি ১১:৫১ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০

সৌহার্দ্য আর হৃদ্যতায় চলছে শিশুদের ভোটযুদ্ধ!

রাজবাড়ীতে উৎসবমুখর পরিবেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

শিশুদের মধ্য থেকে নেতৃত্বের বিকাশ, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ, ঝরে পড়া রোধ ও শিক্ষা সহায়ক কার্যক্রমে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার পদক্ষেপ হিসেবে সারা দেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

নির্বাচন কমিশনের পোলিং ও প্রিজাইডিং অফিসার এবং নিরাপত্তা কর্মী হিসেবেও দায়িত্বপালন করছে শিক্ষার্থীরাই।

রোববার সকাল থেকে সারা দেশের মতো এক যোগে তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা ৭টি পদে পছন্দের প্রার্থীদের ভোট হচ্ছে। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত চলবে এই ভোটগ্রহণ। তবে কিছু বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র থাকায় সেগুলোতে বেলা ২টা থেকে শুরু হবে বলে জানা গেছে।

এ সময় শিশুদের মধ্যে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ সৃষ্টির লক্ষে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা গেছে। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা বিদ্যালয় আঙ্গিনায় হাতে লেখা পোস্টার সাঁটিয়েছে এবং প্রার্থীরা সহপাঠীদের কাছে ভোট প্রার্থনা করছে।

এদিন সকালে উপজেলার বিভিন্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরেজমিন ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। নির্বাচনে নিরাপত্তা দায়িত্ব পালন করতে শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে আনসার ও পুলিশ নিয়োগ করা হয়। এছাড়া নির্বাচন কমিশনার, প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসারের দায়িত্ব শিক্ষার্থীরাই পালন করে।

রাজবাড়ী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্র জানা গেছে, সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত একযোগে রাজবাড়ীর ৫টি উপজেলার ৪৮২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তৃতীয় শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা এ নির্বাচনে ভোট প্রদান করছে। তবে কিছু কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষা থাকায় সেগুলোতে বেলা ২টা থেকে শুরু হবে।

বালিয়াকান্দি উপজেলার রামদিয়া বালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচনে সাতটি পদে ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। এ বছর নির্বাচনে আমার বিদ্যালয়ে ১৬৬ জন ভোটার তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুকুল কুমার সাহা জানান, তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণি থেকে সাতজন প্রার্থী জয়ী হবে। তারা স্বাস্থ্য, বন ও পরিবেশ বিষয়ক, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, আপ্যায়ণসহ সাতটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করবে। গত বছরের মেতো এবারও উৎসব মুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। শিক্ষার্থী ছাড়াও অভিভাবকদের মধ্যে অনেক উৎসাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে।

রামদিয়া বালিকা স. প্রা. বিদ্যালয়ের নির্বাচন কমিশনার আর্শিবাদ সাহা চন্দ্র বলেন, সকাল থেকেই সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণের কাজ চলছে আশা করি শেষ পর্যন্ত ভালোভাবে সম্পন্ন হবে। নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সানজিদা ইয়াসমিন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। জয়-পরাজয় যাই হোক তা আনন্দের সঙ্গে মেনে নেব বলে জানায় সে।

৫ম শ্রেণির ভোটার মুন্নি আক্তার বলেন, ১৮ বছরের কম বয়সী কেউ ভোট দিতে পারেন না সেখানে আমরা শিশুকালে জাতীয় নির্বাচনের মতো ভোট দিচ্ছি খুব আনন্দ লাগছে। লাইনে দাড়িয়ে আমি সাড়ে ৯টার পর আমার ভোটটি পছন্দের প্রার্থীকে দিয়েছি। আশা করছি সে বিজয়ী হবে।

বালিয়াকান্দি মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চাঁদ সুলতানা জানান, আমাদের বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র থাকায় বেলা ২টা থেকে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন শুরু হবে।

বালিয়াকান্দি উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আশরাফুল হক বলেন, বালিয়াকান্দি উপজেলাতে ৯৯টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সকাল ৯টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত একযোগে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও কিছু কিছু বিদ্যালয়ে এসএসসি কেন্দ্র থাকায় সেগুলো ২টার পর থেকে শুরু হবে। শিশুদের মধ্যে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ গড়ে তোলার জন্যই এই নির্বাচনের আয়োজন করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শিশুকাল থেকে শিক্ষার্থীদের মনে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ সৃষ্টির লক্ষ্যে ২০১০ সাল থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন সফলভাবে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।

এইচআর

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও