সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এএসআইয়ের পেনশন নিয়ে পরিবারে গণ্ডগোল

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এএসআইয়ের পেনশন নিয়ে পরিবারে গণ্ডগোল

আসাদুজ্জামান লিমন, মানিকগঞ্জ ৫:২৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০২০

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এএসআইয়ের পেনশন নিয়ে পরিবারে গণ্ডগোল

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার হামজা গ্রামে স্বামীর পেনশন গ্রহণের অভিভাবক নিযুক্তিতে প্রতারণা করার প্রতিবাদ করায় শাশুড়ী, দেবর ও ননদের হামলার শিকার হয়েছেন বিধবা জাহানারা আক্তার।

হামলায় আহত জাহানারা সাটুরিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ওই ভুক্তভোগী নারী প্রতারণার ব্যাপারে সিআইডির এডিশনাল আইজি বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সাটুরিয়া উপজেলার বরাইদ ইউনিয়নের হামজা গ্রামের মৃত আব্দুস সালামের বড়পুত্র ও জাহানারা আক্তারের স্বামী মো. আনোয়ার হোসেন ঢাকার মালিবাগে এএসআই হিসেবে সিআইডিতে কর্মরত থাকাবস্থায় গত ২০১৯ সালের ৭ আগষ্ট তারিখে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান। মৃত্যুকালে আনোয়ার হোসেন প্রথম স্ত্রীর ঘরে অপ্রাপ্ত বয়স্ক ২ ছেলে শাহ জালাল পিয়াস (১১) ও শাহ পরান রাজ (৭) এবং ২য় স্ত্রী জাহানারা আক্তারকে (৩৩) রেখে যান। মৃত্যুজনিত কারণে পেনশন গ্রহণের অভিভাবক নিযুক্তির চেয়ারম্যান প্রদত্ত প্রত্যয়নপত্রে জাহানারা আক্তারের শাশুড়ী মমতাজ বেগমকে অভিভাবক মনোনীত করে জাহানারা আক্তারকে তা না জানিয়ে ও প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে দেবর ওয়াশিমুর রহমান স্বাক্ষর নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনা জানার পর জাহানারা আক্তার গত ২০১৯ সালের ২ ডিসেম্বর সিআইডির এডিশনাল আইজি বরাবর স্বামী মৃত্যুর আনুতোষিক ও অবসর ভাতা উত্তোলন করার ক্ষমতা অর্পন নিজনামে প্রাপ্তির আবেদন করেছেন এবং প্রতারণা করে শাশুড়ীকে অভিভাবক নিযুক্তির প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

এ ঘটনা নিয়ে গত ২৫ জানুয়ারি শনিবার বিকালে জাহানারা আক্তারকে তার দেবর ওয়াশিমুর রহমান, ২ ননদ ও শাশুড়ী মারধোর করে আহত করে ও ঘর থেকে বের করে দেয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সাটুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এখনো তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী জাহানারা আক্তার জানান, প্রতারণা করে অভিভাবক নিযুক্তির ব্যাপারে প্রতিবাদ করায় আমার দেবর ওয়াশিমুর রহমান, দুই ননদ এবং শাশুড়ী মিলে আমাকে গত শনিবার বিকালে বেদম মারধর করে এবং টেনে হিঁচড়ে ঘর থেকে আমাকে বের করে ঘরে তালা ঝুলিয়ে দেয়।

এ বিষয়ে সাটুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা: মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জানান, আহত রোগী জাহানারা আক্তারের চিকিৎসা সঠিকভাবে চলছে। শরীরে জখম না থাকলেও বেশ আঘাত পেয়েছেন। আরও ২/৩ দিন হাসপাতালে ভর্তি থাকতে হবে।

এএসটি/

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও