রিমান্ড শেষে শরিয়ত বয়াতি কারাগারে
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই ২০২০ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৭

রিমান্ড শেষে শরিয়ত বয়াতি কারাগারে

আবুল্লাহ আল নোমান, টাঙ্গাইল ৬:২৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

রিমান্ড শেষে শরিয়ত বয়াতি কারাগারে

টাঙ্গাইলে মহানবী (সা.) ও ইসলাম ধর্ম নিয়ে আপত্তিকর শব্দ ব্যবহারের অভিযোগের মামলায় গ্রেফতারকৃত শরিয়ত বয়াতিকে ৩দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর আমলী আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আকরামুল ইসলাম এ রায় দেন।

গত শনিবার (১১ জানুয়ারি) ভোরে ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার বাশিল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ওইদিন পুলিশ তার ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠালে বিচারক তিনদিনের রিমাণ্ড মঞ্জুর করেন।

শরিয়ত বয়াতি টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর উপজেলার জামুর্কী ইউনিয়নের আগধল্যা গ্রামের পবন মিয়ার ছেলে।

গত ৯ জানুয়ারি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মির্জাপুর থানায় শরিয়ত বয়াতির বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন একই উপজেলার আগধল্যা দারুসসুন্নাহ ফোরকানিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক মাওলানা মো. ফরিদুল ইসলাম।

আসামি পক্ষের আইনজীবি জিনিয়া বক্স বলেন, ‘মহানবী (সা.) ও ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগে শরিয়ত বয়াতির বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।

তিনদিনের রিমান্ড শেষে মঙ্গলবার দুপুরে তাকে আদালতে উঠালে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বিচারক আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি এই মামলার পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করেছেন। ওইদিন শরিয়ত বয়াতির জামিন আবেদন করা হবে। আশা করছি ওইদিন তার জামিন মঞ্জুর হবে।’

এজাহারে অভিযোগ করা হয়, শরিয়ত সরকার ২০১৯ সালের ২৪ ডিসেম্বর ঢাকা জেলার ধামরাই থানার রোহারটেক এলাকায় পালাগানের একটি অনুষ্ঠানে মহানবী (সা.), মসজিদের ইমাম ও ইসলামের নানা বিষয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন। পরে তাকে গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে ফুঁসে ওঠে স্থানীয় মুসলিম জনতা। তারা মানববন্ধন ও সমাবেশ করেন।

এএসটি/

 

: আরও পড়ুন

আরও