এক মণ ধানেও মিলছে না একজন কামলা!

ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে ২০১৮ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

এক মণ ধানেও মিলছে না একজন কামলা!

আব্দুল্লাহ আল নোমান, টাঙ্গাইল ৫:৫৬ অপরাহ্ণ, মে ১৭, ২০১৮

print
এক মণ ধানেও মিলছে না একজন কামলা!

টাঙ্গাইলে এবার বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। ধানের বাম্পার ফলন হলেও কৃষকের মাথায় হাত। মাঠে মাঠে পাকা ধান থাকলেও শ্রমিকের মজুরি বেশি থাকায় ধান কাটা নিয়ে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। এক মণ ধানের দামেও মিলছে না একজন শ্রমিক। শ্রমিকদের জনপ্রতি মজুরি দিতে হচ্ছে ৬৫০ থেকে ৭৫০ টাকা। সঙ্গে তিনবেলা খাবার। এতে গৃহস্থের শুধু ধান কাটতেই মণপ্রতি খরচ পড়ছে ৮৫০ থেকে ৯০০ টাকা। অন্যান্য খরচ তো (জমি চাষ, সেচ, চারাম সার, কীটনাশক, শ্রমিক) আছেই।

বর্তমানে কালিহাতীর হাট-বাজারে প্রতি মণ ধান বিক্রি হচ্ছে ৫৮০ থেকে ৬২০ টাকায়। ধানের মূল্য কম থাকায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন কৃষকরা।

সরেজমিনে দেখা যায়, জেলার দিগন্তজোড়া ধানের সমারোহ। মাথার ঘাম পায়ে ফেলে ফলানো কৃষকের স্বপ্নমাখা সোনার ফসল কৃষকের ঘরে উঠতে শুরু করেছে। এখন পুরোদমে বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। এ বছর শ্রমিকের মজুরি বৃদ্ধি থাকায় অনেক স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা ধান কাটার কাজ করছেন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে বোরো ধানের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ লাখ ৬৬ হাজার হেক্টর। আবাদ হয়েছে ১ লাখ ৭০ হাজার ৬২৩ হেক্টর। এখন পর্যন্ত ৪৫ ভাগ ধান কাটা হয়েছে।

কালিহাতী উপজেলার কামার্থী গ্রামের কৃষক জাহিদ হোসেন বলেন, আমি এ বছর ২শ’ শতাংশ জমিতে ধান চাষ করেছিলাম। এখন সেই জমিগুলোর ধান কাটতেছি, যে ধান পামু তাতে আমার বহুত লোকসান যাবো। এভাবে চলতে থাকলে ধান চাষীরা না খেয়ে মারা যাবে।

কৃষক নুরুল ইসলামের ভাষায়, এ বছর কামলার(শ্রমিকের) যে দাম, এত টেহা দিয়া কামলা নিয়া ধান কাটলে সামনে বছর পর্যন্ত কৃষক বাঁচবো কিনা সন্দেহ রয়েছে।

কৃষক জোয়াহের আলী, অলিদ, হাসমতসহ অনেকেই বলেন, বর্তমানে ধান কাটা একজন শ্রমিকের মূল্য ৭শ’ টাকা। আর এক মণ ধানের মূল্য ৬০০ টাকা। এক মণ ধানের টাকায়ও একজন শ্রমিক মিলছে না। ফলে আমরা জমির পাকা ধানগুলো কেটে ঘরে তুলতে পারছি না।

একই অভিযোগ করলেন উপজেলার পৌজান গ্রামের কৃষক আজমত আলী।

তিনি বলেন, আমি এবার ৫শ’ শতাংশ জমিতে বোরো ধান আবাদ করেছি। বাজারে ধানের চাহিদা ও বাজারমূল্য অনেক কম থাকায় আমাকে লোকসান গুনতে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, জেলায় এবার বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে ধান কাটার শ্রমিকদের কামলার দাম বেশি থাকায় কৃষকরা কিছুটা বিপাকে পড়েছেন। তবে আমরা মেশিন দিয়ে ধান কাটার চিন্তাভাবনা করছি। এছাড়া কৃষকদের বিভিন্নভাবে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে।

এএএন/বিএইচ/

 
.

Best Electronics Products



আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad