কে মুসলিম, কে হিন্দু দেখার সময় এখন নয়: শোয়েব
Back to Top

ঢাকা, সোমবার, ১ জুন ২০২০ | ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

কে মুসলিম, কে হিন্দু দেখার সময় এখন নয়: শোয়েব

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৩১ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৪, ২০২০

কে মুসলিম, কে হিন্দু দেখার সময় এখন নয়: শোয়েব
করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কাঁপছে পুরো দুনিয়া। মরণঘাতী এই ভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে শরীক বিশ্ব সেলিব্রেটি। পিছিয়ে নেই বিশ্ব ক্রীড়া তারকারাও। যে যেভাবে পারছেন সতর্ক করছেন ভক্ত-সমর্থক, দেশবাসী তথা সারা দুনিয়ার মানুষকে। এবার এই তালিকায় শরীক হলেন পাকিস্তানের সাবেক ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতারও। আবেগঘন এক মানবিক বার্তায় সতর্ক করলেন পাকিস্তান তথা বিশ্ববাসীকে।

৪৪ বছর বয়সী শোয়েবের আহ্বান, কে মুসলিম, কে হিন্দু সেটা দেখার সময় এখন নয়। তার দাবি, সময় এখন জাতি-ধর্ম, জাত-পাত, ভেদাভেদ ভুলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করার। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে এক আবেগঘন বার্তায় সবাইকে করোনা সম্পর্কে সচেতন থাকার আহ্বান জানিয়ে শোয়েব আখতার লিখেছেন, ‘বিশ্বজুড়ে আমার সকল ভক্ত-অনুসারিদের কাছে অনুরোধ, করোনা এখন গোটা বিশ্বের জন্য সঙ্কট। সুতরাং জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে আমাদের সবাইকে এ বিষয়টি নিয়ে ভাবতে হবে।’

করোনার ভয়াব ছোবলে লকডাউন হয়ে যাচ্ছে একের পর এক দেশ, একের পর এক শহর। চরম উদেত্বগের এই বিষয়টি উল্লেখ করে শোয়েব লিখেছেন, বিভিন্ন দেশ, বিভিন্ন শহর লকডাউন হচ্ছে, যাতে করোনা সর্বত্র ছড়িয়ে না পড়ে। কিন্তু তোমরা যদি প্রকাশ্যে একে অন্যের সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ করতে থাকো, যোগাযোগ অব্যাহত রাখো, তাহলে উদ্দেশ্য সফল হবে না। সুতরাং আমাদের সবার উচিত ঘরে থাকা।’

ভয়ঙ্কর এই পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বড় সমস্যায় পড়েছেন দিন এন দিন খাওয়া মানুষেরা। হত-দরিদ্র এই মানুষদের কথা মাথায় রেখে ব্যবসায়ীদের প্রতিও মানবিক আহ্বান জানিয়েছেন শোয়েব। কালোবাজারিদের অনুরোধ করেছেন, নিত্য প্রয়োজনীয় পণ মজুদ না করতে, ‘এমন সঙ্কটের সময় ‘দিনে এন দিনে’ খাওয়া মানুষদের কথা মাথায় রাখুন।

যারা কালোবাজারির মাধ্যমে পণ্য মজুদ করে এই দুঃসময়ের সুবিধা নিতে চাচ্ছে, তাদেরকে করোনার ভয়াবহত স্মরণ করিয়ে দিয়ে শোয়েব বলেছেন, ‘দোকান-পাটে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য পাওয়া যাচ্ছে না। আপনি যে তিন মাস পর বেঁচে থাকবেন তার কী নিশ্চয়তা আছে? তাই গরীবের কথা ভাবুন। মানুষের কথা ভাবুন। সময় এসেছে জাতি-ধর্ম ভুলে, হিন্দু-মুসলিম ভুলে একে অপরকে সাহার্য করার। সুতরাং মজুদ নয়, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ সংগ্রহ করুণ। দয়া করে পশুর মতো আচরণ করবেন না। পণ্য মজুদ করবেন না। মানুষ হয়ে বাঁচতে শিখুন। আমাদের মানুষ হয়ে বাঁচতে হবে।’

শোয়েব আখতারের এই আহ্বান স্বার্থান্বেষী, সুযোগসন্ধ্যানী ব্যবসায়ী মহলের কানে পৌঁছাবে? পৌঁছালে তাদের বিবেকের দরজার খুলবে?

কেআর

 

: আরও পড়ুন

আরও