ইনিংস ও ১০৬ রানে জিতল বাংলাদেশ
Back to Top

ঢাকা, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০ | ২০ চৈত্র ১৪২৬

ইনিংস ও ১০৬ রানে জিতল বাংলাদেশ

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৫৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০

ইনিংস ও ১০৬ রানে জিতল বাংলাদেশ

ঢাকার আকাশে মেঘের ছায়া। কোথাও কোথাও থেমে থেমে হচ্ছে গুড় গুড়ি বৃষ্টিও। মিরপুরে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের টেস্টেও বাগড়া দিতে পারত বেরসিক বৃষ্টি। তবে নাঈম হাসান ও তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণির জাদুতে বৃষ্টির আগেই ইনিংস জয়ের উল্লাসে মাতে বাংলাদেশ। সিরিজের একমাত্র টেস্টটি ইনিংস ও ১০৬ রানে জিতেছে মুমিনুল হকের দল।

জিম্বাবুয়ে তাদের প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে যায় ২৬৫ রানে। জবাবে বাংলাদেশ ৬ উইকেটে ৫৬০ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে। তখন সফরকারীদের সামনে ২৯৫ রানের বোঝা। সেই বোঝার নিচে চাপা পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ১৮৯ রানেই গুটিয়ে যায় সফরকারীরা। 

এই ইনিংসে পাল্লা দিয়ে উইকেট নিয়েছেন নাঈম ও তাইজুল। এই দুই স্পিনারের সাফল্যে আবু জায়েদ রাহী ও এবাদত হোসেনরা এ ইনিংসে ছিলেন অনেকটাই বেকার। দ্বিতীয় ইনিংসে জিম্বাবুয়ে টিকতে পারে ৫৭.৩ ওভার। এর মধ্যে রাহী ও এবাদত বল করার সুযোগ পান মোট ৯ ওভার।

কেভিন কাসুজাকে আউট আজ করে দিনের শুরুটা করেন তাইজুল। এরপর নাঈম-তাইজুলের যুগল ঘূর্ণিতে একে একে আত্মসমর্পণ করেন জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা। ৮২ রান খরচায় নাঈম নিয়েছেন ৫ উইকেট। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো ইনিংসে ৫ উইকেট নেয়ার কীর্তি দেখালেন এই স্পিনার। অন্যদিকে তাইজুল ৭৮ রান খরচায় নিয়েছেন ৪ উইকেট। দুই ইনিংস মিলিয়ে নাঈম নিয়েছেন ৯ উইকেট। তাইজুল ৬টি। এছাড়া রাহী নিয়েছেন ৪ উইকেট।

এই ইনিংসেও জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছেন ক্রেইগ এরভিন। আগের ইনিংসে সেঞ্চুরি করা এরভিন এবার করেছেন ৪৩ রান। এছাড়া টিমিকেন মারুমা ৪১, সিকান্দার রাজা ৩৭ রান করেছেন।

এই টেস্টের আগে সর্বশেষ খেলা ৬ টেস্টের মধ্যে ৫টিই ইনিংস ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। ফলে আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার জন্য বড় জয়ের জন্য মুখিয়ে ছিল দল। মিরপুরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এই উদযাপনটা সেরে রাখল তারা।

টেস্টে এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ইনিংস ব্যবধানে জিতল বাংলাদেশ। এর আগে ২০১৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইনিংস ও ১৮৪ রানে জেতে টাইগাররা। এপ্রিলে আবার পাকিস্তান সফরে যাবে মুমিনুল হকের দল। তার আগে এই জয় নিঃসন্দেহে টাইগার শিবিরে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাবে।

দুর্দান্ত এই জয়ের রূপকথার গল্পটা শুধু নাঈম-তাইজুলের নয়। তাদের জন্য ব্যাট হাতে ক্ষেত্রটা তো গড়ে দিয়েছেন মুশফিক-মুমিনুলরা। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে অপরাজিত ২০৬* রানের এক মহাকাব্য লিখেছেন মুশি। সেঞ্চুরি করেন মুমিনুলও (১৩২)। সঙ্গে ছিল নাজমুল হোসেন শান্তর ৭১ ও লিটনের ৫৩ রানের ভূমিকাও।

সব মিলিয়ে বহুদিন পর ব্যাটে, বলে ও আগ্রাসী ক্রিকেটের নৈপূণ্যে এক স্বপ্নময় পারফরম্যান্স দেখা গেল টাইগারদের কাছ থেকে।

 

পিএ

 

খেলাধুলা: আরও পড়ুন

আরও