ইডেনে বাংলাদেশের টেস্ট ঘিরে সাজসাজ রব
Back to Top

ঢাকা, রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০ | ২৮ আষাঢ় ১৪২৭

ইডেনে বাংলাদেশের টেস্ট ঘিরে সাজসাজ রব

পরিবর্তন ডেস্ক ১:২১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৮, ২০১৯

ইডেনে বাংলাদেশের টেস্ট ঘিরে সাজসাজ রব

উপমহাদেশের প্রথম দিবারাত্রির টেস্ট নিয়ে ইডেনে যেন চলছে বিয়েবাড়ির আয়োজন। শুধু ইডেন কেন পুরো কলকাতায় চলছে সাজসাজ রব।

শুক্রবার ইডেন গার্ডেন্সে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ভারত। এই প্রথমবারের মতো গোলাপি বলে খেলবে তারা। আর ঐতিহাসিক এই মুহূর্ততে স্মরণীয় করতে আয়োজনের কমতি রাখছেন না ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গল (সিএবি) ও বিসিসিআই।

বিসিসিআইর প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলীর নিজের শহর কলকাতা। তাই ইডেন টেস্ট ঘিরে তার বিপুল আগ্রহ। এই টেস্টের শুরুর দিন তিনি আমন্ত্রণ জানিয়েছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনা সেই আমন্ত্রণে সারা দিয়ে সেইদিন উপস্থিত থাকবেন।

প্রধানমন্ত্রী কলকাতা টেস্ট দেখতে আমন্ত্রণ পত্র পাঠিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। ইডেন টেস্টের প্রথম দিন শেখ হাসিনা ছাড়াও থাকবেন ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। থাকবেন আরো অনেক রথী মহারথী।

এই টেস্ট উপলক্ষ্যে কলকাতা শহরকে গোলাপি রঙের আলোকসজ্জায় সাজানো হয়েছে। প্রথম দিনের খেলা শেষে থাকছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। যেখানে গান গাইবেন বাংলাদেশের কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লা।

এই টেস্ট ঘিরে দর্শকদের আগ্রহও তুঙ্গে। এরই মধ্যে অন লাইনে ছাড়া ৪২ হাজার টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। টিকিটের জন্য হাহাকার বেড়েই চলছে।

সৌরভ গাঙ্গুলীও নিশ্চিত করেছেন টেস্টের প্রথম তিন দিনের সব টিকিট বিক্রি হয়ে গিয়েছে। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘ক্রিকেট প্রেমীদের কথা ভেবে খারাপ লাগছে। কিন্তু টিকিট যদি বিক্রি হয়ে যায়, তা হলে তো আসন সংখ্যা বাড়ানো যাবে না! টেস্ট শুরুর আগেই প্রথম তিন দিনের টিকিট সব বিক্রি হয়ে গিয়েছে। শুনে ভালই লাগছে।’

টেস্ট ক্রিকেটে গ্যালারি শূন্য থাকে। দর্শক টানতে তাই অনেক দেশই দিবারাত্রির টেস্টে ঝুঁকেছে। কিন্তু ভারত এতদিন ফ্লাডলাইটের আলোয় খেলতে আগ্রহী ছিল না। গাঙ্গুলী ভারতীয় বোর্ডের নেতৃত্বে আসার পর বদলে যায় পরিস্থিতি। বিরাট কোহলিদের রাজি করান গোলাপি বলের টেস্ট খেলতে।

ফলে এটা একটা চ্যালেঞ্জও গাঙ্গুলীর জন্য, ‘এবারের ইডেন টেস্ট একটা বড় পরীক্ষা। কারণ, এটা উপমহাদেশের প্রথম গোলাপি বলে দিনরাতের টেস্ট। টেস্ট ক্রিকেটকে পুনরুজ্জীবিত করতে এই পদক্ষেপের প্রয়োজন ছিল।’

পিএ

 

: আরও পড়ুন

আরও