'নিঃস্বার্থ' সৌম্যকে মাশরাফির 'কুর্নিশ'

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ এপ্রিল ২০১৮ | ৬ বৈশাখ ১৪২৫

'নিঃস্বার্থ' সৌম্যকে মাশরাফির 'কুর্নিশ'

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৮:১৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮

print
'নিঃস্বার্থ' সৌম্যকে মাশরাফির 'কুর্নিশ'

আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের কারণেই বাংলাদেশ জাতীয় দলে অভিষেক হয়েছিল সৌম্য সরকারের। শুরুতে তিনে ব্যাটিং করতেন। এরপর ওপেনিংয়ে নিজের জায়গা পাকাপোক্ত করেন। টেস্টে ব্যাটিং করেছেন সাত নম্বরেও। তবে শেষ পর্যন্ত ফর্মহীনতায় হারিয়েছেন জায়গা। কিন্তু বরাবরই দলের প্রয়োজনেই খেলেছেন ব্যাটসম্যান। একটু ধীরে খেলে নিজের ইনিংসকে লম্বা করতে পারতেন হয়তো, কিন্তু দলের কথা ভেবে তা করেননি বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। আর তাই এ ব্যাটসম্যানকে 'স্যালুট' দিয়েছেন অধিনায়ক।

 

কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের প্রিয় শিষ্যই ছিলেন সৌম্য। কিন্তু এ কোচের পদত্যাগের পরই বদলে যায় দলের পরিস্থিতি। দল থেকে বাদ পড়েছেন সৌম্য, এই সিরিজেই। বাদ পড়েছেন তাসকিন আহমেদও। গত ক'বছর নিয়মিত এ দুই সতীর্থকে ড্রেসিং রুমে দেখেছেন মাশরাফি। হঠাৎ তাদের না থাকায় খারাপ লেগেছে অধিনায়কের, ‘সৌম্য এবং তাসকিনের জন্য কিছুটা হলেও খারাপ লাগছে।’

শেষ দিকের সময়টা ভালো না গেলেও গত বছরের অন্যতম সেরা পারফর্মারই ছিলেন বাঁহাতি ড্যাশিং ব্যাটার সৌম্য। তারপরও বাদ পড়তে হয়। মূলত দলের কথা ভেবে খেলতে গিয়েই বাদ পড়েছেন বলে রোববার ব্যাখ্যা দিলেন মাশরাফি, ‘দলের জন্য খেলতে গিয়ে পারফর্ম করতে পারেনি বলে তারা আজ দলের বাইরে। অধিনায়ক হিসেবে সৌম্যকে আমি স্যালুট দেব যে, ও কোনো সময় স্বার্থপর ছিল না। এবং কঠিন সময়ে সে দলের জন্য খেলেছে। সে যদি দেখেন প্রথম দশ ওভারে কিভাবে খেলতে হবে সেটা মানিয়ে নিয়েছিল। এরকম কঠিন পরিস্থিতিতে অনেক সময় অনেকে চিন্তা করে যে আমি আমার খেলাটা কিছুক্ষণ খেলি। ও কিন্তু এই টাইপের ছিল না। ও কিন্তু টিমের জন্য খেলতে গিয়ে পারফর্ম করতে পারেনি। এ কারণে বাইরে।’

তবে গত বছরে মাঠে পারফরম্যান্সটা ভালো ছিলো না তাসকিনের। অথচ দারুণ সম্ভাবনা নিয়েই জাতীয় দলে এসেছিলেন এই ফাস্ট বোলার। ওয়ানডে অভিষেকেই পাঁচ উইকেট। এরপর টানা দুই বছর দলের অন্যতম প্রধান খেলোয়াড় হিসেবেই খেলেছেন। তবে আবারো ২২ বছরের আগ্রাসী বোলার ফিরবেন বলে আশাবাদী মাশরাফি, ‘তাসকিনের ওপর দিয়ে কঠিন সময় গিয়েছে। আমাদের অনান্য ফাস্ট বোলারদেরও যায়। আমাদের কোচিং স্টাফের সাথে ওদের কথা হয়েছে। বিশেষ করে সুজন ভাই কথা বলেছেন দল থেকে বাদ পড়ার পর। ওরা ফাস্ট ক্লাস ক্রিকেট খেলছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সেখানে পারফর্ম করে আবার দলের সাথে আসতে পারে। তাদেরকে হানড্রেড পারসেন্ট ব্যাক করতে হবে। এখনও তাদেরকে ব্যাক করছি।’

সৌম্যর বাদ পড়াটা কিছুটা দুর্ভাগ্যজনক। কারণ বিগ থ্রি -তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহীমের পর গত বছর সবচেয়ে বেশি রান করেছিলেন সৌম্যই। তিন সংস্করণ মিলে ৯২৯ রান করেছিলেন ২০১৭ সালে। তবে টি-টুয়েন্টি ও টেস্টের মতো ততটা ধারাবাহিক ছিলেন না ওয়ানডেতে। ১২টি ওয়ানডে ম্যাচে ১১ ইনিংস ব্যাট করে ২৪.৩০ গড়ে করেছিলেন ২৪৩ রান। আর সেটাই কাল হয়েছে ২৪ বছরের বাঁহাতি ওপেনার সৌম্যর জন্য।

তবে তাসকিনের বাদ পড়াটা অনেকটা অনুমিতই ছিলই। গত বছরেই টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। এর মধ্যেই খেলেছেন ৫টি টেস্ট। কিন্তু ৯৭.৪২ গড়ে উইকেট পেয়েছেন মাত্র ৭টি। আর ৯টি ওয়ানডেতে ৬.৬০ ইকোনমি রেটে উইকেট পেয়েছেন ১০টি। আর ৪টি টি-টুয়েন্টি ম্যাচ খেলে ১টি উইকেট পেয়েছেন। ওভার প্রতি রান দিয়েছেন ১১.১৫।

আরটি/ক্যাট

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad