'গুরু' হাথুরুসিংহেকে মাশরাফির 'স্যালুট'

ঢাকা, সোমবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৮ | ৯ মাঘ ১৪২৪

ত্রিদেশীয় সিরিজ ২০১৮

'গুরু' হাথুরুসিংহেকে মাশরাফির 'স্যালুট'

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৪:৩১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮

print
'গুরু' হাথুরুসিংহেকে মাশরাফির 'স্যালুট'

চন্ডিকা হাথুরুসিংহে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন ২০১৪ সালের মে মাসে। তখন টাইগাররা হারের বৃত্তেই ঘুরপাক খাচ্ছিল। বাজে অবস্থা খুব। তবে ওই বছরের শেষ দিকে মুশফিকুর রহীমকে সরিয়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দলের নেতৃত্বের ভার দেওয়া হয় মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। আর এরপর থেকেই বদলে যেতে থাকে বাংলাদেশ দল। একের পর এক সিরিজ জিতে রীতিমতো জায়ান্ট দলে পরিণত হয় টাইগাররা। মাঠে নেতৃত্বের কাজটা করেছিলেন মাশরাফিরা। পরিকল্পনার সঠিক বাস্তবায়ন করে নিজেদের সেরাটা দিয়েছেন বলেই হাথুরুসিংহে বড় কোচ হয়েছেন। তবে গুরুর কৃতিত্বকে খাটো করে দেখছেন না মাশরাফি। 'স্যালুট' দিয়েই তাকে সম্মান জানালেন অধিনায়ক।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শনিবার অনুশীলন করতে আসে বাংলাদেশ দল। অনুশীলনের আগে সংবাদ সম্মেলনে আসেন মাশরাফি। সেখানেই মাত্র সাবেক হওয়া গুরুর শ্রীলঙ্কা দলের বিপক্ষে সামনে খেলার প্রসঙ্গ টানেন একজন। এরই এক ফাঁকে হাথুরুসিংহের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে অধিনায়ক বললেন, ‘বাংলাদেশের ড্রেসিং রুমে যারা খেলোয়াড় আছে, তারা অনেক বড় মানসিকতা নিয়ে ঘোরে। খেলোয়াড়দের হয়ে আমি হাথুরুসিংহকে স্যালুট জানাই। অবশ্যই তার অধীনে খেলে আমরা ভালো ফল পেয়েছি। অবশ্যই কৃতিত্ব তাকে দিতে আমাদের বিন্দুমাত্র সঙ্কোচ নেই। আমরা এমন না যে তাকে কৃতিত্ব দিতে চাই না।’

এখানে একটা মজা আছে অবশ্য। হাথুরুসিংহে তার আমলে খেলোয়াড়দের চেয়ে বড় হয়ে উঠেছিলেন। মাঠে খেলোয়াড়দের সাফল্যের চেয়ে বাইরে কোচের পরিকল্পনার সাফল্যকেই মূল কথা ভেবে নেন। তার অবদানকেই বেশি বড় করে দেখার মানুষ অনেক। এটাকে স্বাভাবিকভাবেই নিয়েছেন মাশরাফি। তবে হাথুরুসিংহের বড় কোচ হয়ে ওঠার পেছনে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের অবদানের কথাই বার বার মনে করিয়ে দিয়ে গেলেন মাশরাফি। বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্ত হবার আগে হাথুরুসিংহেকে ভালো কোচ হিসেবে চিনতা না ক্রিকেট বিশ্ব। আর ক্রিকেট জীবনে বড় করে উল্লেখ করার মতোও কিছু ছিল না তখনো। তাই হাথুরুসিংহেকে কুর্নিশ জানিয়ে নিজেদের দিকেই ফেরেন মাশরাফি। মাঠের যোদ্ধা খেলোয়াড়দের কথাই সবচেয়ে বড় করে দেখেন।

‘বাইশ গজে আমরা প্রয়োগ করেছি। আমাদের তামিমের রেকর্ড, মুশফিকের রেকর্ড শেষ বছরে যদি দেখেন...সাকিবের পুরো ক্যারিয়ার দেখেন, মুস্তাফিজও আছে। বাইশ গজে তাদের কেউ বিশেষ কিছু করে দেয়নি। তাদের নিজেদের এটা করে নিতে হয়েছে। মূল চাপ তাদের নিতে হয়েছে। এবং তারা করে নিয়েছে। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ যখন একশ মারে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তখন আমার কাছে মনে হয়নি কেউ ওখানে গিয়ে তাদেরকে আলাদা করে ধরে খেলিয়ে দিয়ে আসছে। সে তার সামর্থ্য অনুযায়ী খেলার চেষ্টা করেছে। এবং পারফরম্যান্স করেছে। এটাই…আমি যেটা মনে করি যেই কোচ থাকুক তাকে শতভাগ আমরা খেলোয়াড়রাও ব্যাক করেছি।’ - স্পষ্ট জানিয়ে দেন এমনটাই বললেন মাশরাফি।

টাইগারদের সাফল্যে বড় কোচের স্বীকৃতি পেয়েছেন হাথুরুসিংহে। সেটা মেনে নিয়ে খেলোয়াড়দের মনস্তাত্বিক ও পেশাদার নৈপুণ্যের এবং তাদের ক্ষুধাটাকেও গুরুত্বের সাথে তুলে ধরেন মাশরাফি। ‘(হাথুরুসিংহের অবদান) আমাদের বলতে সেটা দ্বিধা নেই। আবার কৃতিত্ব ছেলেদের দিতে হবে যেভাবে তারা খেলেছে…’। মাশরাফি এর সাথে যোগ করে দিচ্ছেন, বর্তমান কোচিং স্টাফরাও টাইগারদের শতভাগ সাহায্যই করছেন আর তারাও এর প্রতিদান দেবেন, ‘আমার বিশ্বাস এখন যারা কোচিং স্টাফ আছেন, হ্যালসাল, সুজন চাচা আছেন, আমরা ওনাদেরও শতভাগ ব্যাক আপ দেওয়ার চেষ্টা করবো। এবং তারাও আমাদের শতভাগ ব্যাকআপ করছে। অবশ্যই পেশাদারিত্ব দেখিয়ে সবকিছু চলবে। এবং চলছে। গুড লাক টু হাথু। আমরা আমাদেরটা নিয়ে বেশি চিন্তা করছি।’

আরটি/ক্যাট

print
 
.

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad