‘কয়েকজনের তো এখনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা উচিৎ’

ঢাকা, বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮ | ১২ বৈশাখ ১৪২৫

‘কয়েকজনের তো এখনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা উচিৎ’

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:১৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৭

print
‘কয়েকজনের তো এখনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা উচিৎ’

গত দুই তিন বছরে আমূল বদলে গেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ধারাবাহিক পারফর্ম করে রীতিমতো জায়ান্ট দলই তারা। দেশের ক্রিকেটের পাইপলাইনও এখন বেশ মজবুত। হরহামেশাই উঠে আসছেন তরুণ খেলোয়াড়রা। পারফর্মও করছেন নজর কাড়া। বাংলাদেশ ক্রিকেটের বদলে যাওয়ার পেছনে তাদেরও রয়েছে দারুণ ভূমিকা। আর দেশের ক্রিকেটে এখন অনেক প্রতিভাই রয়েছে বলে মনে করেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অস্ট্রেলিয়ান কোচ ডেমিয়েন রাইট। এসব প্রতিভার বেশ কিছু খেলোয়াড়ের এখনই জাতীয় দলে খেলা উচিৎ বলে মনে করেন ৪২ বছর বয়সী এ কোচ।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে যুবাদের অনুশীলনের ফাঁকে ডেমিয়েন বললেন, ‘বিকেএসপিতে প্রস্তুতিটা খুবই ভালো হয়েছে। আমরা খুব ভাগ্যবান যে আমরা বেশ মানসম্মত দলের বিপক্ষে খেলার সুযোগ পেয়েছি। বিসিবি এবং গেম ডেভেলপমেন্ট আমাদের বেশ কিছু খেলোয়াড় দিয়েছে যাদের অনেকেই প্রথম শ্রেণীর সাবেক খেলোয়াড় এবং কিছু বর্তমান খেলোয়াড়ও আছে। তাদের মধ্যে এমন কিছু খেলোয়াড় আছে যাদের এখনই জাতীয় দলে খেলা উচিৎ। আমরা খুব ভাগ্যবান যে আমরা খুবই প্রতিদ্বন্দ্বীপূর্ণ ক্রিকেট খেলতে পেরেছি।’

বাংলাদেশের পাইপলাইন দেখে দারুণ খুশি ডেমিয়েন। নিজের দল নিয়েও দারুণ সন্তুষ্ট। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অনেক খেলোয়াড়কে আগামীতে জাতীয় দলের জার্সিতে দেখছেন এ অস্ট্রেলিয়ান। বিশেষ করে যুবা দলের সহ-অধিনায়ক আফিফ হোসেনের উচ্ছ্বসিত প্রশংসাই করলেন তিনি, ‘আমরা খুবই ভালো খেলেছি। আমার মনে হয় আফিফ খুবই আলোচনায় এসেছে। সে দারুণ একটি বিপিএলের ক্যাম্পেইন কাটিয়ে এসেছে। আমাদের প্রথম ম্যাচে ১৩০ বলে ১৪০ রানের একটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছে। এবং সেই ম্যাচে আমরা জিতেছি। দ্বিতীয় ম্যাচ টাইয়ে শেষ করেছি। এশিয়া কাপের পরে আমাদের খুব ক্যাম্পেইনটা ভালোই হয়েছে।’

সদ্য শেষ হওয়া বিপিএলে দারুণ খেলেছে দেশের কিছু তরুণ খেলোয়াড়রা। তাদের অনেককেই মনে ধরেছে ডেমিয়েনের। জাতীয় দলের মতো খেলার সামর্থ্য থাকলেও তাদের জায়গা নিয়ে সংশয় দেখছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের অন্যতম নির্বাচক হাবিবুল বাশার। এইতো সেদিন বিপিএলে ঝলক দেখানো খেলোয়াড়দের নিয়ে বলেছিলেন, ‘আরিফুলদের জায়গা কোথায়? জায়গা তাদের নিজেদেরই করে নিতে হবে।’ আর বলবেনই না কেন? বিসিবি হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ইউনিটের কিছু খেলা চলছে তবে বাংলাদেশ এ দলের কার্যক্রম প্রায় বন্ধ। আর গত কয়েক বছর থেকে দারুণ খেলা জাতীয় দলটাও প্রায় সেট। খুব বেশি পরীক্ষা নিরীক্ষা করার জায়গাই বা কোথায়?

আরটি/টিএআর

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad