রেকর্ড বোলিংয়ে হঠাৎ হিরো পাকিস্তানি পেসার উসমান!

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

রেকর্ড বোলিংয়ে হঠাৎ হিরো পাকিস্তানি পেসার উসমান!

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:২২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৭

print
রেকর্ড বোলিংয়ে হঠাৎ হিরো পাকিস্তানি পেসার উসমান!

উসমান খান শিনওয়ারির পাকিস্তানের হয়ে টি-টুয়েন্টিতে অভিষেক হয়েছে ২০১৩ সালে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। খুব বেশি ভাল কিছু করতে পারেননি তখন। দলে আর সুযোগও পাননি। মনে মনে বোধহয় ভেবে রেখেছিলেন আবার সুযোগ পেলে দেখিয়ে দেবেন! ৪ বছর পর আবার এলো সুযোগ। সেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে অভিষেক হলো। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে রেকর্ড গড়েই নিজের জাত চিনিয়ে দিলেন এই বাঁহাতি ফাস্ট বোলার। মাত্র ২১ বলের মধ্যে আউট করলেন ৫ শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যানকে। ওয়ানডে ইতিহাসে মাত্র দুজন বোলার তার চেয়ে কম বলে পাঁচ উইকেট পেয়েছেন।

.

২০১৩ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই টি-টুয়েন্টি, এবছর দেশের মাটিতে বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে দুই টি-টুয়েন্টি; চারবছরে মাত্র চারটি আন্তর্জাতিক ম্যাচের অভিজ্ঞতা। ম্যাচগুলোতে নজরকাড়া কোন পারফরম্যান্সও ছিল না তার। তবুও ঘরোয়া সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দারুণ বোলিংয়ের কারণে তাকে নজরেই রেখেছিলেন নির্বাচকরা। আরেক বাঁহাতি পেসার মোহাম্মদ আমিরের ইনজুরির সুযোগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চলতি সিরিজে দলে সুযোগ পেয়ে গেলেন উসমান। সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে শারজাতেই ওয়ানডে অভিষেক হয়ে গেল তার। অভিষেকে ৩৮ রানের খরচায় পেয়েছিলেন এক উইকেট।

আহামরি কিছু না! কিন্তু উসমান তো পেসারদের ঊর্বরভূমি পাকিস্তান থেকে উঠে আসা ২৩ বছরের টগবগে যুবা। সিরিজের শেষ ওয়ানডেটা শ্রীলঙ্কাকে পাকিস্তানের হোয়াইটওয়াশ করার মিশন। সেটাই বেছে নিয়ে দলের কাজটা শুরুতে কিভাবেই না সহজ করে দিলেন উসমান! প্রথম দুই ওভারে নিয়েছেন চার উইকেট। চতুর্থ ওভারে আরেকটি। এই ৫ উইকেট মাত্র ২১টি বল করে! এসময়ে রান দিয়েছেন মাত্র ১২। তার চেয়ে কম বল করে পাঁচ উইকেট নিয়েছেন লঙ্কান কিংবদন্তি চামিন্দা ভাস ও নেদারল্যান্ডসের টিম ভ্যান ডার গুটেন। ভাস বাংলাদেশের বিপক্ষে মাত্র ১৬ বলের মধ্যে পাঁচ উইকেট পেয়েছিলেন, ২০০৩ বিশ্বকাপে। আর ভ্যান ডার গুটেন ২০১৩ সালে ২০ বলে পাঁচ উইকেট নিয়েছেন কানাডার বিপক্ষে।

শ্রীলঙ্কা ব্যাটিং অর্ডারের প্রথম ছয়জনের পাঁচজনই উসমানের বাঁহাতি পেসের শিকার। তিনজন আবার ফিরেছেন শূন্য রানে।উসমানের প্রথম স্পেলটি ছিল ৫ ওভারের। নতুন বলে ম্যাচ শুরু হয় তারই হাতে। ৩.৩ ওভারে ৫ উইকেট উসমানের! ম্যাচের প্রথম ৫ উইকেটই তার। প্রথম ওভারের শেষ দুই বলে দুই উইকেট। নিজের দ্বিতীয় ও ম্যাচের তৃতীয় ওভারের তৃতীয় ও পঞ্চম বলে আরেকটি উইকেট। তৃতীয় ওভারটিতে উইকেট মেলেনি। কিন্তু চতুর্থ ওভারের তৃতীয় বলেই আরেকটি উইকেট উসমানের! শ্রীলঙ্কা তাতেই ৬.৩ ওভারে ২০ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে তাসের ঘর!

ক্যারিয়ারের মাত্র দ্বিতীয় ওয়ানডেতে প্রথমবারের মত ওপেন করতে নামা সাদিরা সামারাবিক্রমকে শূন্য রানে বোল্ড করেছেন উসমান। অন্য ওপেনার উপুল থারাঙ্গাও বোল্ড হয়েছেন তার বলে। দিনেশ চান্ডিমাল ও মিলিন্দা সিরিওয়ার্দানা উইকেটকিপার সরফরাজ খানের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেছেন সাজঘরে। আর নিরোশান ডিকবেলাকে আউট করেছেন এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলে।

শেষে কি হলো? পাকিস্তানের নতুন পেস আগুন উসমানে পুড়ে ২৬.২ ওভারেই শারজার পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডেতে ১০৩ রানে অল আউট শ্রীলঙ্কা! তাদের প্রধান হন্তারক উসমান ৭ ওভারে ৩৪ রান খরচায় ৫ উইকেট শিকার করে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কারটা খেলার মাঝপথেই বুঝি নিশ্চিত করে রাখলেন!

এসএম/ক্যাট

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad