নিজেকে অল-রাউন্ডার প্রমাণের চ্যালেঞ্জ!

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

নিজেকে অল-রাউন্ডার প্রমাণের চ্যালেঞ্জ!

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৮:২০ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০১৭

print
নিজেকে অল-রাউন্ডার প্রমাণের চ্যালেঞ্জ!

বাংলাদেশ দলে তার অভিষেকটা ব্যাটসম্যান হিসেবেই। তবে মাঝে মধ্যে বোলিংও করেন। বাঁহাতি মিডিয়াম পেসার। ঘরোয়া ক্রিকেটে এক সময় নিয়মিত বোলিংই করতেন। বাংলাদেশ দলে গত কয়েক বছরে পেসারদের ধারাবাহিক সাফল্যের কারণে এখন আর তেমন বল করা হয় না। তবে নিয়মিত অনুশীলনটা ঠিকই চালিয়ে যান সৌম্য সরকার। সুযোগ পেলেই নিজেকে বোলার হিসেবেও প্রমাণ করার চ্যালেঞ্জটা নিয়েছেন ২৪ বছর বয়সী এ তরুণ তারকা।

.

বল হাতে একেবারে যে সুযোগ পাননি সৌম্য, এমনটা নয়। বাড়তি পেসারের প্রয়োজন অনুভব করলেই অধিনায়করা ডাকেন তাকে। তবে জ্বলে উঠতে না পারায় নিয়মিত তার হাতে বল ওঠে না। অপেক্ষায় আছেন ভালো কিছু করে নিজেকে প্রমাণ করার, ‘অনুশীলনে সব সময় বোলিং করে যাচ্ছি। যেদিন আমি সুযোগ পাবো চেষ্টা করবো বোলিং দিয়ে কিছু করে দেখাতে। বোলিং দিয়ে এখনো আমি নিজেকে প্রমাণ করতে পারিনি। বোলিং দিয়ে নিজেকে প্রমাণ করাই এখন আমার চ্যালেঞ্জ।’

ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বোলিংটা নিয়মিত করতেন সৌম্য। তাকে প্রথম জাতীয় দলে টানার সময় নির্বাচকরা মিডিয়াম পেসের ক্ষমতার কথাটাও মাথায় রেখেছিলেন। তবে আজকাল ঘরোয়া ক্রিকেটেও তেমন বোলিং করেন না সৌম্য। এখন দলে অনেক বেশি পেসার খেলে বলেই তেমন সুযোগ হয় না বলেই মনে করেন এ বাঁহাতি, ‘কেউ দেখছেন কিনা। আমি নিয়মিত নেটে বোলিং করি। আগে বাংলাদেশ দলে একটা কিংবা দুইটা পেসার খেলতো। এখন তিনটা পেস বোলার খেলে। সবসময় আমাদের দেশে স্পিন আক্রমণই বেশি ছিলো। এখন চার নম্বর পেস বোলার হিসেবে এসে শেষ মুহূর্তে কিছু করা কঠিন হয়ে যায়।’

তবে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বোলিং করাটা একটু কঠিন যে কোনো ক্রিকেটারের জন্য। তাই অল-রাউন্ডার হিসেবে নিজেকে গড়তে ফিটনেস নিয়ে বাড়তি কাজ করছেন সৌম্য। পাশাপাশি ভারসাম্য রেখেই ব্যাটিং ও বোলিং অনুশীলন করেন তিনি, ‘দুটি কাজ একসঙ্গে করা কিছুটা কঠিন। এর জন্য ফিটনেসটা ভালো থাকা লাগে। তারপরও আমাকে করতে হবে কারণ আমি অল-রাউন্ডার। ভারসাম্য রেখেই অনুশীলন করি। যেদিন ব্যাটিংয়ে বেশি সময় দেই, সেদিন বোলিংয়ে কিছুটা কম সময় দেই। এভাবে অনুশীলন চালাতে হয়।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বল হাতে ততটা উজ্জ্বল নয় সৌম্যর পারফরম্যান্স। ক্যারিয়ারে মাত্র ১টি উইকেট পেয়েছেন তিনি, তাও টেস্ট ম্যাচে। ২০১৫ সালে ঘরের মাঠে পাকিস্তানের আজহার আলির উইকেটটি পেয়েছিলেন তিনি। ওয়ানডে ১৩ ওভার ও টি-টুয়েন্টিতে ৩ ওভার বল করে উইকেটশূন্য আছেন সৌম্য। তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে তার বোলিং রেকর্ড একেবারে খারাপ নয়। ৪৪টি প্রথম শ্রেণীর ম্যাচে ৫৩ ইনিংসে বল করে ১৯টি ও ৮৫টি লিস্ট এ ম্যাচের ৪১টি ইনিংসে বল করে ২২টি উইকেট পেয়েছেন এ সম্ভাবনাময় অল-রাউন্ডার।

আরটি/ক্যাট

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad