সতর্কবার্তা সত্ত্বেও গ্রেগ চ্যাপেলে ভরসা রেখেছিলেন সৌরভ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ২০১৮ | ৭ আষাঢ় ১৪২৫

সতর্কবার্তা সত্ত্বেও গ্রেগ চ্যাপেলে ভরসা রেখেছিলেন সৌরভ

পরিবর্তন ডেস্ক ১:১০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৮

print
সতর্কবার্তা সত্ত্বেও গ্রেগ চ্যাপেলে ভরসা রেখেছিলেন সৌরভ

ভাল খেলোয়াড় মাত্রই যে ভাল কোচ হতে পারেন না তার সবচেয়ে বড় উদাহরণ অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট গ্রেট গ্রেগ চ্যাপেল। চ্যাপেল ভাইদের এই মেজজন ভারতে এসে দলটির তৎকালীন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলীর সাথে বেশ ঝামেলায় জড়ান। অনেকেই সৌরভের ক্যারিয়ার দ্রুত শেষ হওয়ার পেছনে গ্রেগের অবদান দেখতে পান। অথচ এই 'দাদা'ই তাকে কোচ করে আনার পক্ষে ছিলেন। এমনকি চ্যাপেলদের বড় ভাই আরেক গ্রেট ইয়ান চ্যাপেল ও ভারতীয় কিংবদন্তি সুনীল গাভাস্কারের সতর্কবাণী সত্ত্বেও। এর সবই উঠে এসেছে সৌরভের আত্মজীবনী 'এ সেঞ্চুরি ইজ নট এনাফ' বইতে।

বইটির প্রচারণার জন্য কিছুদিন আগে একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়। যেখানে দেখা যায় সৌরভ গ্রেগ চ্যাপেলকে 'স্টুপিড' বলছেন। অথচ ভারতের কোচ হওয়ার আগে এই গ্রেটের প্রতি কি সম্মানটাই ছিল তার! ২০০৩ সালে তিনি এক গোপনীয় সফরে গ্রেগের সাথে দেখাও করেন। সৌরভ ভেবেছিলেন, ভারতকে গ্রেগ এক নম্বর দল থেকে তুলে সবাইকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয়ার মত অবস্থানে নিয়ে যাবেন। তা না পারলেও ঠিকই সৌরভকে দল থেকে ছুড়ে ফেলেন।

ভারতীয় গ্রেট গাভাস্কার সৌরভকে সতর্ক করে বলেছিলেন, 'সৌরভ, ভালমত ভাব। তিনি কোচ হিসেবে থাকলে তোমার দল পরিচালনায় সমস্যা হতে পারে। তার আগের কোচিং রেকর্ড ভাল না।' আর ইয়ানের উদ্ধৃতি দিয়ে জগমোহন ডালমিয়াও সৌরভকে সতর্ক করেছিলেন। তার ভাষ্যে, 'তিনি আমাকে সাথে গোপনীয়তার সূত্রে জানান গ্রেগের ভাই ইয়ান পর্যন্ত ভেবেছেন ভারতের জন্য গ্রেগ ভাল পছন্দ নয়। কিন্তু আমি সবকিছু উপেক্ষা করে নিজের মনের কথা শুনেছি।'

আর এরপরেই খারাপ ফর্মের কারণে সৌরভ দল থেকে বাদ পড়েন, অধিনায়কত্বও হারান। আর ভারতও ২০০৭ সালের বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয়। এরপর গ্রেগও দায়িত্ব ছাড়েন দলটির।

সূত্র : মিড-ডে।

এসএম/ক্যাট

 
.




আলোচিত সংবাদ