মাইলফলক থেকে ৩টি ডিসমিসাল দূরে ইনজুরড মুশফিক

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | ১০ ফাল্গুন ১৪২৪

মাইলফলক থেকে ৩টি ডিসমিসাল দূরে ইনজুরড মুশফিক

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:১৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮

print
মাইলফলক থেকে ৩টি ডিসমিসাল দূরে ইনজুরড মুশফিক

নিজেকে বাংলাদেশের সেরা উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে অনেক আগেই প্রতিষ্ঠা করেছেন মুশফিকুর রহীম। খালেদ মাসুদ পাইলটের অবসরের পর সে জায়গায় এসে তাকে যেমন ছাপিয়ে গেছেন, তেমনি তরুণ উইকেটকিপারদের জন্য বাংলাদেশের ক্রিকেটে নতুন মানদন্ড এসেছে মুশফিকের গ্লাভসজোড়াতেই। টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টিতে দেশের সর্বোচ্চ ডিসমিসাল নিয়ে মিস্টার ডিপেন্ডেবল দাঁড়িয়ে আছেন একটি মাইলফলকের সামনে। টি-টুয়েন্টিতে ক্যাচ-স্টাম্পিং মিলিয়ে তার মাত্র ৩টি ডিসমিসাল প্রয়োজন ৫০ ডিসমিসালের রেকর্ড ছুঁতে। ৪৭ ডিসমিসাল নিয়ে তিনি ইতোমধ্যে টি-টুয়েন্টির সেরা উইকেটকিপারদের তালিকায় পঞ্চম স্থানে আছেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের দুই ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজ। যদিও কব্জিতে আঘাতের কারণে সংশয় রয়েছে মুশফিকের খেলা নিয়ে। শেষপর্যন্ত তিনি খেললে সম্ভবনা রয়েছে এই সিরিজেই মাইলফলকটি ছোঁয়ার।

 

বাংলাদেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মুশফিকের অভিষেক হয় ২০০৫ সালে, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে। ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টিতে তিনি দেশের প্রতিনিধিত্ব শুরু করেন ২০০৬ সাল থেকে। নিজের প্রথম টি-টুয়েন্টি ম্যাচেই উইকেটকিপারের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এরপর ওয়ানডে ও টেস্ট ম্যাচেও গ্লাভসজোড়া হাতে উইকেটের পেছনে দাঁড়ানোর পর থেকে আর ঘুরে তাকাতে হয়নি মুশফিককে।

টেস্টে পাইলটের ৮৭ ডিসমিসাল (ক্যাচ ৭৮, স্টাম্পিং ৯) ও ওয়ানডেতে ১২৬ (ক্যাচ ৯১, স্টাম্পিং ৩৫) ছিল বাংলাদেশের সর্বোচ্চ। তা কাটিয়ে মুশফিকের টেস্টে এখন ডিসমিসাল সংখ্যা ১১১টি (৯৮ ক্যাচ, ১৩ স্টাম্পিং) ও ওয়ানডেতে ১৮৭ (ক্যাচ ১৪৬, স্টাম্পিং ৪১)। আর টি-টুয়েন্টিতে ৪৭ ডিসমিসাল (ক্যাচ ২৩, স্টাম্পিং ২৪) নিয়ে তো আছেন বিশ্বেরই সেরা পাঁচে।

বিশ্বের সেরা এই তালিকায় সবার উপরে আছেন ভারতীয় উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মহেন্দ্র সিং ধোনি। ৮৬ ম্যাচে তার ডিসমিসাল সংখ্যা ৭৬টি (ক্যাচ ৪৭, স্টাম্পিং ২৯)। এরপর আছেন পাকিস্তানের কামরান আকমল, আফগানিস্তানের মোহাম্মদ শাহজাদ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের দিনেশ রামদিন। ৬১ ম্যাচে ৪৭ ডিসমিসাল নিয়ে এদের পরেই আছেন ৩০ বছর বয়সী মুশফিক। ৫০ ডিসমিসাল হলে তিনি রামদিনের সাথে যৌথভাবে বসবেন এই তালিকার চতুর্থ স্থানে।

টি-টুয়েন্টিতে অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের সাথে জুটি সবচেয়ে ভাল জমে মুশফিকের। এই দুজনের একসাথে খেলা ১১ ম্যাচে সাকিবের বলে ১৪ জন ব্যাটসম্যানের ক্যাচ ধরে বা স্টাম্পিং করে সাজঘরে পাঠিয়েছেন মুশফিক।

এছাড়া টি-টুয়েন্টিতে অন্তত ২৫টি ডিসমিসাল ও ৫০০ রানের ডাবলধারী উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানদের তালিকায় অষ্টম স্থানে আছেন মুশফিক। ৬১ ম্যাচে ৪৭ ডিসমিসালের পাশাপাশি তার রান ৭৪১। এ তালিকায় শীর্ষে নিউজিল্যান্ডের ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। ৭১ ম্যাচে ৩২ ডিসমিসালের সাথে ২১৪০ রানও আছে তার।

 

এসএম

      

 
.

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad