তামিমের বিশ্ব রেকর্ড

ঢাকা, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | ৭ ফাল্গুন ১৪২৪

তামিমের বিশ্ব রেকর্ড

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৩৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০১৮

print
তামিমের বিশ্ব রেকর্ড

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচেই ৮৪ রানের ইনিংস খেলেছেন তামিম। প্রথমবার অপরাজিত থাকলেও দ্বিতীয় ম্যাচে আউট হয়ে যান এই বাঁহাতি ওপেনার। তবে পরের ইনিংসটি একটা বিশ্ব রেকর্ডের খুব কাছে নিয়ে যায় তাকে। সেটা ওয়ানডেতে এক ভেন্যুতে সর্বোচ্চ রানের। এই রেকর্ডটির মালিক ছিলেন সাবেক লঙ্কান ওপেনার কিংবদন্তি বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান সনাথ জয়াসুরিয়া। তাকে টপকে শীর্ষে উঠে যেতে এদিন মিরপুরে তামিমের প্রয়োজন ছিল আর ৪২ রান। মঙ্গলবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ব্যক্তিগত ৪২ রানের মাথায় জয়াসুরিয়াকে ছাড়িয়ে বিশ্ব রেকর্ডটা গড়েই ফেললেন বাংলাদেশের ইতিহাসের সেরা ব্যাটসম্যান। মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে ওয়ানডেতে সবচেয়ে বেশি রানের মালিক আগেই ছিলেন, এখন মাঠকেও তামিম বানিয়ে দিলেন অসাধারণ এক বিশ্ব রেকর্ডের মালিক। 

২৮ বছরের ড্যাশিং ব্যাটসম্যান তামিমের রেকর্ড গড়ার ম্যাচে দারুণ ব্যাট করছে বাংলাদেশ। তবে নিজের ফিফটি করার পর উইকেট হারিয়েছেন সাকিব। সিকান্দার রাজার বলে স্টাম্পিংয়ের শিকার হওয়ার আগে তিনি ৮০ বলে ৫১ রানের ইনিংস খেলেছেন। টানা দ্বিতীয় ফিফটি করে ফিরেছেন। তামিমের সাথে দ্বিতীয় উইকেটে তিনি যোগ করেন ১০৬ রান। আর তাতে ২৭.১ ওভারে বাংলাদেশের স্কোর দাঁড়িয়েছে ২ উইকেটে ১১২ রান। তামিম ৪৯ রানে ব্যাট করছেন। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে নেমেছেন মুশফিকুর রহীম।

এক মাঠে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়তে এই সিরিজেই দুজন ক্রিকেট গ্রেটকে কাটিয়েছেন তামিম। একজন তো শীর্ষে থাকা জয়াসুরিয়া, অন্যজন দ্বিতীয় স্থানে থাকা সাবেক পাকিস্তানি অধিনায়ক ইনজামাম-উল-হক।

জয়াসুরিয়া ১৯৯২ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত কলম্বোর আর.প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে ৭১ ম্যাচের ৭০ ইনিংসে ৩৮.৬৭ গড়ে করেছিলেন ২৫১৪ রান। এই মাঠে তিনি ৪টি সেঞ্চুরি ও ১৯টি হাফসেঞ্চুরিও করেছেন। আর তার পরের অবস্থানে থাকা ইনজামাম শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ১৯৯৩ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত খেলেছেন ৫৯ ম্যাচ। ৫৯ ইনিংসে ৫০.২৮ গড়ে তার সংগ্রহ ছিল ২৪৬৪ রান। এই মাঠে তিনি ৪টি সেঞ্চুরি ও ১৭টি হাফসেঞ্চুরি করেছেন।

শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম সাক্ষাতের ম্যাচে জয়াসুরিয়ার রেকর্ড কাটাতে তামিমের প্রয়োজন ছিল ১২৬ রান। আর ইনজামামের রেকর্ড থেকে তার দুরত্ব ছিল ৭৬ রানের। সে ম্যাচে ৮৪ রান করা তামিম জয়াসুরিয়াকে কাটাতে না পারলেও ইনজিকে পিছে হটিয়ে দেন।

জয়াসুরিয়ার রেকর্ড ভাঙতে মঙ্গলবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আর ৪২ রান প্রয়োজন ছিল তামিমের। শুরু থেকেই ভাল ব্যাটিং করতে থাকা এই ব্যাটসম্যান সিকান্দার রাজার করা ২৪তম ওভারের চতুর্থ বলে একটি সিঙ্গেল নিয়ে ভেঙে দেন জয়াসুরিয়ার এক ভেন্যুতে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। ৪২ রান করার পর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে ৭৪ ম্যাচের ৭৩ ইনিংসে তামিমের রান হয় ২৫১৫। এই ম্যাচে রেকর্ডটাকে কতদূর নিতে পারেন তা জানার তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে বাংলাদেশের ইনিংসের শেষ পর্যন্ত।

এক ভেন্যুতে সর্বোচ্চ রানের তালিকায় তামিমের খুব বেশি পেছনে নেই সাকিবও। এখন তিনি ইনজামামের ঠিক পিছনে, চার নম্বরে আছেন। মঙ্গলবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫১ রানে আউট হওয়ার পর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ৭৬ ম্যাচের ৭৩ ইনিংসে তার সংগ্রহ ২৩৬৯ রান। সাকিবে ব্যাটিং গড় ৩৯.৪৮, সাথে রয়েছে ২টি সেঞ্চুরি ও ২০টি ফিফটি। তালিকায় ৬ নম্বরে আছেন মুশফিক। তিনি মিরপুরে তার ৮১ তম ম্যাচে ব্যাট করছেন। ম্যাচ চলাকালীন অবস্থায় তার সংগ্রহ ২১৭০ রান।

এসএম/ক্যাট

 
.

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad