রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অন্তঃসত্ত্বা নারী খুন

ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে ২০১৮ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অন্তঃসত্ত্বা নারী খুন

টেকনাফ প্রতিনিধি ২:১৫ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২৭, ২০১৮

print
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অন্তঃসত্ত্বা নারী খুন

টেকনাফ নয়াপাড়া নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে আনছার বেগম (৪০) নামে এক অন্তঃসত্ত্বা নারীর খুন হয়েছে। এঘটনায় শিশুসহ আহত হয়েছেন ৫ জন।

বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের আলী হোসেন সড়ক মোড়ে ডি-ব্লকে এঘটনা ঘটে। টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ এঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ৬ জনকে আটক করেছে।

আটককৃতরা হলেন- ছালেহ আহমদ, তার স্ত্রী দিলবাহার,পুত্র মো. ইব্রাহীম, ইউসুফ, ছৈয়দ আহমদ ও তাঁর ছেলে মো. হোছন। এদিকে আহতদের ৩ জনকে কক্সবাজার হাসপাতালে ও অপর ৩ জনকে টেকনাফ মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বিকালে টেকনাফের হ্নীলার নয়াপাড়া নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের ডি ব্লকে মুদির দোকান করে আসছিল নিহত আনছার বেগমের (এমআরসি নং- ৩৩৩৩৫, ডি-ব্লক ৭৩২/৭) পরিবার। তাদের দোকানের সামনে আরেক রোহিঙ্গা বশির আহমদের পরিবার নতুন একটি দোকান নির্মাণ করতে চাইলে এনিয়ে দুই পক্ষ কথাকাটাকাটি ও ঝগড়া হয়। এসময় উভয় পক্ষ ক্ষুব্ধ হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে ছুরিকাঘাত হয়ে আনছার বেগম মাটিতে পড়ে। পরে তার চিৎকার শুনে পাশের লোকজন রোহিঙ্গা নারীকে উদ্ধার করে শরণার্থী শিবিরের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ওই নারীকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে নয়াপাড়া ক্যাম্প পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আনছার বেগমের মৃতদেহ উদ্ধার করে।

এদিকে নিহতের বোন দেলোয়ারা জানান, আনছার বেগম ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ও ৫ সন্ত্রানের জননী ছিলেন। নয়াপাড়া ক্যাম্প পুলিশ ইনচার্জ কবির আহমদ পরিবর্তন ডটকমকে জানান, এঘটনায় ৬ জনকে আটক করে পুলিশ।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

জেএম/এএস

 
.

Best Electronics Products



আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad