ফেনীতে গণস্বাক্ষর কার্যক্রম ও মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র প্রদর্শনী শুরু

ঢাকা, রবিবার, ২০ মে ২০১৮ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

ফেনীতে গণস্বাক্ষর কার্যক্রম ও মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র প্রদর্শনী শুরু

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৫:০৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮

print
ফেনীতে গণস্বাক্ষর কার্যক্রম ও মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র প্রদর্শনী শুরু

‘মানবতা বিরোধীদের প্রতিহত করি, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদকে না বলি, মুক্তিযদ্ধের চেতনায় দেশ গড়ি’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে ফেনীতে ছয় দিনব্যাপী ‘গণস্বাক্ষর কার্যক্রম ও মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র প্রদর্শনী’র আয়োজন করা হয়েছে।

সোমবার থেকে শুরু হওয়া ৬ দিনব্যাপী এ কর্মসূচির তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন নন্দিত অভিনেত্রী ও বাংলাদেশ মহিলা আ’লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া প্রাচী।

‘বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম সমন্বয় জাতীয় কমিটি’র আয়োজনে সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে ফেনী ইউনিভার্সিটিতে ‘গণস্বাক্ষর কার্যক্রম ও মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র প্রদর্শনী’র মধ্য দিয়ে শুরু হয়। এ সময় ছাত্র-ছাত্রীরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ফেনী ইউভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর সাইফ উদ্দিন শাহ ও টেজারার প্রফেসর তায়বুল হক।

এ সময় রোকেয়া প্রাচী তার বক্তব্যে বলেন, ‘আমরা ফেনীবাসী দুর্নীতির পক্ষে নই, ফেনী দুর্নীতির জেলা নয়, সন্ত্রাসের নয়, জঙ্গিবাদের নয়, যুদ্ধাপরাধের পক্ষের নয়। আমাদের ফেনীর জন্য এটা একটি উল্লেযোগ্য সময়, যখন আমরা একটি চেতনার যুদ্ধে জিততে চাই। এ যুদ্ধে জিততে হলে কোনো রাজনৈতিক দলের হতে হবে এমন নয়, শুধু দেশের পক্ষে থাকতে চাই, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে থাকতে চাই।’

আলোচনা শেষে প্রদর্শিত হয় নাসির উদ্দিন ইউসুফ পরিচালিত মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র ‘গেরিলা’।

রোকেয়া প্রাচী জানান, জেলার মোট ৬টি উপজেলার ফেনী ১, ২ ও ৩-এর সবগুলো আসনের সব উপজেলা ফেনী সদর, সোনাগাজী, দাগনভূঞা, পরশুরাম, ফুলগাজী, ছাগলনাইয়ায় ধারাবাহিকভাবে পালিত হবে এ কর্মসূচি। এর মাধ্যমে জেলার ১৬ কোটি মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ‘মানবতা বিরোধীদের প্রতিহত করি, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদকে না বলি, মুক্তিযদ্ধের চেতনায় দেশ গড়ি’ এ বিষয়ে ‘গণস্বাক্ষর নেয়া হবে।

পুরো জেলা আশ্রয় প্রকল্প, সরকারি স্কুল ও সরকারি কলেজ, প্রত্যেক স্কুল ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানসহ সকল প্রতিষ্ঠান, সকল পাড়া-মহল্লায় সর্বশ্রেণির মানুষের কাছে সব এলাকায় এই কর্মসূচি পালিত হবে।

রোকেয়া প্রাচী বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তরুণ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে ‘বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও  প্রজন্ম সমন্বয় জাতীয় কমিটি’ অতীতের মতো সবসময় এ ধরনের কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে। তারই ধারাবাহিকতায় ফেনীতে এ কার্যক্রমটি পালিত হচ্ছে।’

রোকেয়া প্রাচীর তত্ত্বাবধানে কর্মসূচির সার্বিক সহযোগিতা করছেন সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘স্বপ্ন সাজাই’।

/এএল/

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad