গ্যাসহীন মিরপুরের বৃহত্তর এলাকা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৭ | ১৪ বৈশাখ ১৪২৪

গ্যাসহীন মিরপুরের বৃহত্তর এলাকা

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১:১৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২১, ২০১৭

print
গ্যাসহীন মিরপুরের বৃহত্তর এলাকা

রাজধানীর মিরপুরের বৃহত্তর এলাকায় শুক্রবার সকাল থেকে গ্যাস নেই। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন মিরপুরবাসী। মেট্রোরেলের কাজের জন্য গ্যাস লাইন সংস্কারের অংশ হিসেবে সকাল থেকে গ্যাস বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রোকেয়া সরণি, শেওড়াপাড়া, কাজীপাড়া, মিরপুর ১, ২, ৭, ৯, ১০, ১১, ১৩, ১৪, পল্লবী, কালশী, ইব্রাহিমপুর, কাফরুল প্রভৃতি এলাকায় সকাল থেকে গ্যাস নেই।

ভুক্তভোগীরা বলছেন, গত ছয় মাস ধরে মাঝেমধ্যে এভাবে গ্যাস বন্ধ রাখা হচ্ছে। গ্যাস বন্ধ রাখার ঘোষণা কখনো প্রচার করা হচ্ছে, কখনো হচ্ছে না। পূর্বঘোষণা না থাকায় চরম ভোগান্তী পোহাতে হচ্ছে তাদের।

মিরপুর-১ নম্বর এলাকার বাসিন্দা সামিয়া ইয়াসমিন টুম্পা ও রোহান পরিবর্তন ডটকমকে জানান, পূর্বঘোষণা ছাড়াই তাদের এলাকায় গ্যাস নেই। বৃহস্পতিবার রাতেও গ্যাস ছিল। কিন্তু শুক্রবার সকাল থেকে গ্যাস নেই। দুপুর ১টা পর্যন্তও গ্যাস আসেনি।

মিরপুর-১০ এর বাসিন্দা জুয়ের রানা পরিবর্তন ডটকমকে জানান, বুধবার তাদের এলাকায় মাইকিং করা হয় বৃহস্পতিবার গ্যাস থাকবে না। কিন্তু বৃহস্পতিবার সারাদিন ঠিকই গ্যাস ছিল। তবে শুক্রবার সকাল থেকে কোনো গ্যাস নেই। ঘোষণা অনুযায়ী উল্টাপাল্টা হওয়ায় তারা সেভাবে প্রস্তুতি নিতে পারেননি। এখন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

শেওড়াপাড়ার বাসিন্দা আলীরাজ জানান, গ্যাস থাকবে না—এমন কোনো মাইকিং তাদের এলাকায় করা হয়নি। গ্যাস না থাকায় সকালে রান্না করতে পারেননি তার স্ত্রী।

মিরপুর-১৪ নম্বরের বাসিন্দা মিলন জানান, গ্যাস না থাকায় হোটেল থেকে খাবার সংগ্রহ করতে হয়েছে। সেখানেও দীর্ঘ সারি। আবার খাবারের দামও রাখা হচ্ছে বেশি।

মিরপুর-১৩ নম্বর এলাকার বাসিন্দা শিমুল জানান, গ্যাস না থাকার বিষয়টি জানলে রাতেই সব রান্না করে ফ্রিজে রেখে দিতাম। স্ত্রী-সন্তান নিয়ে এতটা বিড়ম্বনায় পড়তে হতো না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিতাসের পরিচালক (অপারেশন) এইচ এম আলী আশরাফ গণমাধ্যমকে জানান, পাঁচটি এলাকায় সংস্কারকাজের জন্য গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাতে গ্যাস বন্ধ করা হয়। রাতেই কাজ শেষ করার কথা ছিল। কিন্তু তা সম্ভব হয়নি। তবে আজ দ্রুত গ্যাস চলে আসবে। গ্যাস বন্ধ থাকার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট এলাকায় মাইকিং করার জন্য বলা হয়েছিল। কাজটি ঠিকভাবে করা হয়েছে কি না—তার খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে।

মেট্রোরেলের কাজের জন্য লাইন সংস্কার করতে গিয়ে বারবার গ্যাস সংযোগ বন্ধ করতে হচ্ছে বলেও জানান তিতাসের এ কর্মকর্তা।

ওএস/এনডিএস

print
 

আলোচিত সংবাদ