ভোটের দিন ব্যক্তিগত গাড়ি চলবে না

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৬

ভোটের দিন ব্যক্তিগত গাড়ি চলবে না

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৯:২৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২২, ২০২০

ভোটের দিন ব্যক্তিগত গাড়ি চলবে না

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ৪০ হাজার সদস্য ভোটের মাঠে থাকবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর।

বুধবার বিকেলে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে বৈঠকে বসে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা। বৈঠক শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

ইসির সিনিয়র সচিব বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ৪০ হাজার সদস্য ভোটে মাঠে থাকবে। কেন্দ্রভিত্তিক সাধারণ কেন্দ্রে ১৬ ও গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ১৮ জন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য থাকবে। এছাড়া স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসাবে র‌্যাব, বিজিবি থাকবে। কেন্দ্রে সংখ্যা অনুযায়ী আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হবে।

তিনি বলেন, ঢাকায় ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা প্রায় ৩ লাখ। এসব গাড়ি চলাচলের অনুমতি দেওয়া হলে ট্রাফিক পুলিশের পক্ষে দায়িত্ব পালন করা কঠিন হয়ে যাবে। কারণ, তারা নির্বাচনের দায়িত্বে সম্পৃক্ত থাকবেন। এগুলো চলতে দেওয়া হলে যারা নির্বাচনের দায়িত্বে থাকবে তাদের যেমন চলাচলে সমস্যা হবে, বিভিন্ন জায়গা থেকে গাড়ি ব্যবহার করে যারা আসবেন সেখানেও একটা জটিলতা সৃষ্টি হবে। পুলিশের পক্ষ থেকে ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচলের অনুমতি না দিতে পরামর্শ দেওয়া হয়।

নির্বাচন কমিশন সেটি মেনে নিয়েছে বলে জানিয়েছেন ইসি সচিব মো. আলমগীর।

তিনি বলেন, গোয়েন্দাদের রিপোর্টে বলা হয়েছে মোট ১৮টি কেন্দ্র শুধু ঝুঁকিপূর্ণ। তাছাড়া তাদের কাছে এ ধরনের রিপোর্ট নাই যে এখানে খারাপ কিছু হতে পারে। একই সাথে ভবিষ্যতে এমন কিছু হতে পারে তার রিপোর্টও তাদের কাছে নেই। সব সময়ই তারা সতর্ক আছেন, কোন সমস্যা থাকলে তারা ব্যবস্থা নেবেন।

নির্বাচনের পরিবেশ ভালো আছে জানিয়ে তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানিয়েছে নির্বাচনের পরিবেশ ভালো আছে। এক্ষেত্রে ১০০ নম্বরের মধ্যে ৯৫ নাম্বার নিয়ে ভোটের কার্যক্রম এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা হয়ত শতভাগ করতে পারিনি, উত্তরের যে অভিযোগটি এসেছে সেটার ক্ষেত্রেও সাথে সাথে নির্বাচন কমিশন রিটার্নিং অফিসারকে নির্দেশ দিয়েছে, এবং তিনি সাথে সাথে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং ওসিকে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে বলেছে। ভবিষ্যতে যেন এ ধরনের ঘটনা আর একটিও না ঘটে।

নির্বাচনের দুইদিন আগে আরো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হবে। এখন পরিস্থিতি যা আছে তা তো থাকবেই আশা করি আরো ভালো হবে। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটও সে সময় মাঠে থাকবে।

বৈঠকে পুলিশ মহাপরিদর্শক ছাড়াও র‌্যাব মহাপরিচালক ও বিজিবি পরিচালকসহ বিভিন্ন বাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তারা, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন সংস্থার প্রধানরাও উপস্থিত ছিলেন।

এইচকে/এসবি

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও