বৃহস্পতিবার রাজধানীর যে সড়কগুলো এড়িয়ে চলবেন

ঢাকা, সোমবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৮ | ১০ বৈশাখ ১৪২৫

বৃহস্পতিবার রাজধানীর যে সড়কগুলো এড়িয়ে চলবেন

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১০:১১ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৮

print
বৃহস্পতিবার রাজধানীর যে সড়কগুলো এড়িয়ে চলবেন

স্বল্পোন্নত দেশের গ্রুপ (এলডিসি) থেকে উন্নয়নশীল দেশে বাংলাদেশের উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনে বর্তমান সরকারের ঐতিহাসিক সাফল্য বৃহস্পতিবার সর্বস্তরে উদযাপন করা হবে।

এ উপলক্ষে রাজধানীর বিভিন্ন স্থান থেকে সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীসহ নানা শ্রেণী-পেশার মানুষ ব্যানার, ফ্যাস্টুনসহ শোভাযাত্রা নিয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন।

যানজট এড়িয়ে নির্বিঘ্নে শোভাযাত্রা গমনের উদ্দেশ্যে বৃহস্পতিবার বেলা ২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত নগরবাসীদের কিছু নির্দেশনা মেনে চলতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ-ডিএমপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

বুধবার ডিএমপির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শাহবাগ, কাকরাইল মসজিদ, নাইটেংগেল, ফকিরাপুল, শাপলা চত্বর, গুলিস্তান, ফুলবাড়ীয়া, চানখারপুল, বকশিবাজার, পলাশী, নীলক্ষেত অঞ্চল দিয়ে শোভাযাত্রা এলাকায় গাড়ি প্রবেশ নিয়ন্ত্রণের জন্য ডাইভারশনের প্রয়োজন পড়বে।

সর্বসাধারণকে নিতান্ত প্রয়োজন ছাড়া গাড়ি নিয়ে শোভাযাত্রা এলাকা এড়িয়ে চলার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

একই সঙ্গে নিরাপত্তার স্বার্থে শোভাযাত্রা অংশগ্রহণকারীদের ব্যাক-প্যাক, হ্যান্ডব্যাগ, ভ্যানিটিব্যাগ, সিগারেট লাইটার বহন পরিহার করার জন্যও অনুরোধ করা হয়েছে।

ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বিভিন্ন মন্ত্রণালয় অথবা বিভাগের সমবেত স্থল ও শোভাযাত্রার গতিপথ সবাইকে মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, বাংলা একাডেমি ও সংলগ্ন এলাকায় সমবেত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, সেতু বিভাগ, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ, মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়, পরিকল্পনা বিভাগ, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সদস্যরা বাংলা একাডেমি-দোয়েল চত্বর-আব্দুল গণি রোড-জিপিও হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পশ্চিম গেইটে প্রবেশ করবেন।

শিল্পকলা একাডেমি ও মৎস ভবন সংলগ্ন এলাকায় সমবেত হয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয়, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, খাদ্য মন্ত্রণালয়, বিদ্যুৎ বিভাগ এবং জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সদস্যরা শিল্পকলা একাডেমি-মৎস ভবন-কদম ফোয়ারা-প্রেসক্লাব-পল্টন-বাইতুল মোকাররম হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের উত্তর গেইট (মশাল গেইট) দিয়ে প্রবেশ করবেন।

শিশু একাডেমি ও দোয়েল চত্বর সংলগ্ন এলাকায় সমবেত হয়ে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগ, অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার বিভাগ, জননিরাপত্তা বিভাগ, সুরক্ষা সেবা বিভাগ, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, আইন ও বিচার বিভাগ, লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগ এবং ভূমি মন্ত্রণালয়ের সদস্যরা শিশু একাডেমি-আব্দুল গণি রোড-জিপিও হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পশ্চিম গেইট দিয়ে প্রবেশ করবেন।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট সংলগ্ন এলাকায় সমবেত হয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগ, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, রেলপথ মন্ত্রণালয়, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সদস্যরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যান-মৎস ভবন-কদম ফোয়ারা-প্রেসক্লাব-পল্টন হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের উত্তর গেইট (মশাল গেইট) দিয়ে প্রবেশ করবেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জিমনেশিয়াম মাঠ ও সংলগ্ন এলাকায় সমবেত হয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দফতর ও সংস্থাসমূহের সদস্যরা দোয়েল চত্বর-আব্দুল গণি রোড-জিপিও হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পশ্চিম গেইট দিয়ে প্রবেশ করবেন।

নগর ভবন (ঢাকা দক্ষিণ) সমবেত হয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সদস্যরা নগর ভবন-গোলাপশাহ মাজার-গুলিস্তান মোড়-রাজউক মোড় হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পূর্ব গেইট দিয়ে প্রবেশ করবেন।

বাংলাদেশ ব্যাংক চত্বর এলাকায় সমবেত হয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অন্যান্য ব্যাংক ও সংশ্লিষ্ট আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের সদস্যরা বাংলাদেশ ব্যাংক চত্বর-দৈনিক বাংলা মোড় হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পূর্ব গেইট দিয়ে প্রবেশ করবেন।

রমনা পার্কের দক্ষিণ-পূর্ব অংশে সমবেত হয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপারেশনের সদস্যরা মৎস ভবন-কদম ফোয়ারা-প্রেসক্লাব-পল্টন-বাইতুল মোকাররম হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের উত্তর গেইট (মশাল গেইট) দিয়ে প্রবেশ করবেন।

শিল্প ভবন চত্বর সমবেত হয়ে শিল্প মন্ত্রণালয় এবং আওতাধীন সংস্থাসমূহের সদস্যরা শিল্প ভবন হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পূর্ব গেইট দিয়ে প্রবেশ করবেন।

ওএস/এমএসআই

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad